সোমবার, ১০ ডিসেম্বর ,২০১৮

Bangla Version
  
SHARE

বুধবার, ১৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৮, ০৮:৩৮:৫৯

যে কারণে চিকিৎসকেরা কাঁচা কলা খেতে বলেন

যে কারণে চিকিৎসকেরা কাঁচা কলা খেতে বলেন

স্বাস্থ্য ডেস্কঃ-শুধু পেট খারাপের মত রোগের প্রকোপ কমাতে নয়, কিছু জটিল রোগের চিকিৎসাতেও কাঁচা কলার কোনও বিকল্প নেই। কারণ এতে থাকা কার্বোহাইড্রেট, ফাইবার, পটাশিয়াম, ভিটামিন বি, ভিটামিন সিসহ নানা উপকারী উপাদান।
জেনে নেওয়া যাক নিয়মিত কাঁচা কলা খেলে কি ধরণের উপকার পাওয়া যায়...
রোগ প্রতিরোধক ক্ষমতা বৃদ্ধিঃ বেশ কিছু গবেষণায় দেখা গেছে নিয়মিত একটি করে কাঁচা কলা খাওয়া শুরু করলে দেহের ভেতর অ্যান্টিঅক্সিডেন্টের মাত্রা বৃদ্ধি পেতে শুরু করে, যার প্রভাবে শরীরে উপস্থিত ক্ষতিকর টক্সিক উপাদানের মাত্রা যেমন কমে যায়, তেমনি রোগ প্রতিরোধক ক্ষমতা বৃদ্ধি পায়।
পুষ্টির ঘাটতি দূর হয়ঃ খাবারে উপস্থিত পুষ্টিকর উপাদানগুলি যাতে ঠিক মতো শরীরের কাজে লাগতে পারে, সেদিকে খেয়াল রাখে কাঁচা কলায় উপস্থিত বেশ কিছু উপাদান। ফলে নিয়মিত এই ফলটি খেলে অনায়াসেই পুষ্টির ঘাটতি দূর হয়। আর এমনটা হওয়া মাত্র শরীরের কর্মক্ষমতা যে বৃদ্ধি পায়, তা আর বলার অপেক্ষা রাখে না।
নানাবিধ পেটের রোগের প্রকোপ কমায়ঃ কাঁচা কলায় রয়েছে প্রচুর মাত্রায় ফাইবার, যা শরীরে প্রবেশ করা মাত্র হজম ক্ষমতার উন্নতি ঘটানোর পাশাপাশি ডাইজেস্টিভ ট্র্যাকের কর্মক্ষমতা বাড়াতে এবং বাওয়েল মুভমেন্টের উন্নতি ঘটাতে বিশেষ ভূমিকা পালন করে থাকে। তাই শুধু পেট খারাপ নয়, যারা প্রায়শই গ্যাস-অম্বলের সমস্যায় ভুগে থাকেন, তারা কাঁচা কলাকে কাজে লাগাতে পারেন।
ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণঃ কাঁচা কলা খেলে রক্তে শর্করার মাত্রা বাড়ার কোনও সম্ভাবনাই থাকে না। বরং সুগারের মাত্রা নিয়ন্ত্রণে রাখতে বিশেষ ভূমিকা পালন করে থাকে এই ফলটি। তাই তো ডায়াবেটিক এর রোগীরা নিশ্চিন্তে কাঁচা কলা খেতে পারেন।
ব্লাড প্রেসার নিয়ন্ত্রণঃ গবেষণায় দেখা গেছে কাঁচা কলায় উপস্থিত পটাশিয়াম, শরীরে প্রবেশ করার পর ব্লাড ভেসেলের কর্মক্ষমতাকে বাড়িয়ে তোলে। সেই সঙ্গে শিরা-উপশিরার ভেতরে তৈরি হওয়া প্রেসারকেও কমিয়ে ফেলে। ফলে রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে চলে আসতে সময় লাগে না।
ওজন নিয়ন্ত্রণঃ কাঁচা কলায় উপস্থিত রেজিস্টেন্স স্টার্চ হজম হতে সময় নেয়। ফলে বহুক্ষণ  ক্ষুধা পায় না। আর ক্ষুধা না পেলে খাবার খাওয়ার পরিমাণও কমতে শুরু করে। ফলে শরীরে ক্যালরির প্রবেশ ঘটে কম। আর এমনটা দীর্ঘ দিন ধরে যখন হতে থাকে, তখন ওজন কমতে সময় লাগে না।
পটাশিয়ামের চাহিদা মেটেঃ এক কাপ কাঁচা কলায় প্রায় ৫৩১ এম জি পটাসিয়াম থাকে, যা পেশির গঠনে উন্নতি ঘটানোর পাশাপাশি নার্ভ এবং কিডনির কর্মক্ষমতা বাড়াতেও সাহায্য করে।
শরীরে উপকারী ব্যাকটেরিয়া বৃদ্ধি পায়ঃ বেশ কিছু গবেষণা অনুসারে নিয়মিত কাঁচা কলা খেলে ইন্টেস্টাইনে উপকারী ব্যাকটেরিয়ার সংখ্যা বৃদ্ধি পেতে শুরু করে। ফলে স্বাভাবিকভাবেই হজম ক্ষমতার উন্নতি ঘটে পেটের রোগও দূরে পালায়।

এই বিভাগের আরও খবর

  রাঙ্গামাটিতে ৬ জন, খাগড়াছড়িতে ৫ জন ও বান্দরবানে ৩ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্ধিতা করবেন

  আসন্ন নির্বাচনে কেউ যদি প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করে তাদের বিরুদ্ধে কঠোর প্রদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে-এ,কে,এম মামুনুর রশিদ

  নির্বাচনের সময়ে বান্দরবানে বিদেশী নাগরিকদের ভ্রমনে কড়াকড়ি আরোপ করলো প্রশাসন

  রাঙ্গামাটিতে বেগম রোকেয়া দিবসে পাঁচটি ক্যাটাগরিতে ৫ জয়িতাকে সম্মাননা

  বান্দরবানে সফল জননী নারী কেটাগরিতে জয়িতা হলেন ইয়াছমিন আক্তার রুবি

  পাহাড়ের সকল সম্প্রদায় দুর্নীতির বিরুদ্ধে একতাবদ্ধ হতে হবে

  লামায় ডেসটিনির বাগান কাটায় মামলা, ৯ জনের বিরুদ্ধে গ্রেফতারী ওয়ারেন্ট

  রাঙ্গামাটি কলেজ গেইট এলাকায় ভ্রাম্যমান আদালত, দুইটি রেষ্টুরেন্টকে জরিমানা

  বান্দরবানে আন্তর্জাতিক দুর্নীতি বিরোধী দিবস পালিত

  পাহাড়ে শান্তি ও উন্নয়ন ধারা অব্যাহত রাখতে নৌকা মার্কায় ভোট দেওয়ার আহবান

  দুর্নীতিকে দুরে রাখার অঙ্গীকার কাপ্তাইয়ে দুর্নীতি প্রতিরোধ দিবস পালিত



 

 

 

 

 

 

 

 

 

আজকের প্রশ্ন