বুধবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ,২০১৮

Bangla Version
SHARE

বৃহস্পতিবার, ০৯ নভেম্বর, ২০১৭, ০৭:৪৮:০৬

নাইকো-পেট্রোবাংলার চুক্তিঃ শুনানি ৪ মাস মুলতবি

নাইকো-পেট্রোবাংলার চুক্তিঃ শুনানি ৪ মাস মুলতবি

ডেস্ক রিপোর্টঃ-বাপেক্সের সঙ্গে কানাডাভিত্তিক আন্তর্জাতিক কোম্পানি নাইকোর ও পেট্রোবাংলার সঙ্গে নাইকোর গ্যাস সরবরাহ চুক্তি অবৈধ ঘোষণা করে হাইকোর্টের রায়ের বিরুদ্ধে শুনানি আরো চার সপ্তাহের জন্য মুলতবি করেছেন আপিল বিভাগ।
বৃহস্পতিবার (৯ নভেম্বর) ভারপ্রাপ্ত প্রধান বিচারপতি মো. আবদুল ওয়াহ্হাব মিঞার নেতৃত্বাধীন পাঁচ বিচারপতির আপিল বেঞ্চ এই আদেশ দেন। এর আগেও তিন সপ্তাহের জন্য শুনানি মুলতবি করেছিলেন আপিল বেঞ্চ।
এর আগে গত ২৪ আগস্ট গ্যাস উত্তোলন ও সরবরাহের জন্য রাষ্ট্রায়ত্ত প্রতিষ্ঠান বাপেক্সের সঙ্গে কানাডাভিত্তিক আন্তর্জাতিক কোম্পানি নাইকোর ও পেট্রোবাংলার সঙ্গে নাইকোর গ্যাস সরবরাহ চুক্তি অবৈধ ঘোষণা করেন হাইকোর্ট।
আদালতে রিট আবেদেনের পক্ষে শুনানি করেন ব্যারিস্টার তানজীব উল আলম। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম।
একই সঙ্গে দুই চুক্তির অধীনে যেসব সম্পত্তি আছে, তা জব্দের পাশাপাশি নাইকো বাংলাদেশের সম্পত্তি ও বক্ল-৯ এর সম্পত্তিও জব্দের নির্দেশ দেন আদালত।
ওইদিন নাইকোসংক্রান্ত ইন্টারন্যাশনাল আর্বিট্রেশন আদালতে লড়া বাপেক্স ও পেট্রোবাংলার পক্ষে আইনজীবী ছিলেন ব্যারিস্টার মঈন গনি।
পরে ব্যারিস্টার মঈন গণি বলেন তিনি, নাইকোর সঙ্গে করা দু’টি চুক্তি চ্যালেঞ্জ করে জনস্বার্থে ২০১৬ সালে জ্বালানি বিশেষজ্ঞ প্রফেসর এম শামসুল আলম একটি রিট আবেদন করেন। ২০০৩ ও ২০০৬ সালে নাইকোর সঙ্গে বাপেক্স ও পেট্রোবাংলার চুক্তি সঠিকভাবে হয়নি। দুর্নীতির মাধ্যমে হয়েছে। এ ছাড়া ২০০৫ সালে ছাতকে যে বিস্ফোরণ ঘটেছে এর ক্ষতিপূরণ হিসেবে বাংলাদেশে থাকা নাইকোর সব সম্পত্তি জব্দের জন্যও আবেদন করা হয়।
এরপর আদালত ২০১৬ সালের ৯ মে রুল জারি করেন। ওই রুলের চূড়ান্ত শুনানি শেষে হাইকোর্ট এই রায় ঘোষণা করেন।
আইনজীবী মঈন গনি বলেন, নাইকোর সঙ্গে ২০০৩ সালে করা বাপেক্সের চুক্তি ও ২০০৬ সালের পেট্রোবাংলার সঙ্গে কোম্পানিটির গ্যাসসংক্রান্ত চুক্তি অবৈধ ঘোষণা করেছেন হাইকোর্ট।

এই বিভাগের আরও খবর

  রাঙ্গামাটির কাউখালীতে ভয়াবহ অগ্নিকান্ডে ২২টি দোকান পুড়ে ছাই

  পাহাড়ে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি ও উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে শেখ হাসিনার কোন বিকল্প নেই-বীর বাহাদুর এমপি

  চট্টগ্রামে ভারত প্রত্যাগত শরনার্থীদের প্রত্যাবাসন ও পুনর্বাসন সংক্রান্ত টাস্কফোর্সের সভা

  মানুষের অসচেতনতার কারণে রাঙ্গামাটির সৌন্দর্য্য দিন দিন হারিয়ে যেতে চলেছে-বৃষ কেতু চাকমা

  অস্ত্রবাজ, চাঁদাবাজ ও সন্ত্রাসী যারা করে তাদের ছাড় নেই-বিগ্রেডিয়ার জেনারেল হামিদুল হক

  আলীকদম উপজেলায় আবারও যৌথ অভিযানে মেশিনসহ ১৬ পাথর শ্রমিক আটক

  শিক্ষার্থীদের জন্য রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদের স্কুল বেঞ্চ প্রদান

  বরকলে ৫ হাজার পিচ ইয়াবাসহ ২জন আটক

  ব্যাংক খোলা মানে প্রগতি বা উন্নতির দিকে যাওয়া-এম এম শফিকুর রহমান

  রাঙ্গামাটি শহরকে পরিস্কার পরিচ্ছন্ন রাখতে জেলা প্রশাসনের অভিযান অব্যাহত

  শতভাগ পেনশন প্রদানসহ ৫দফা পূরণের দাবীতে প্রধানমন্ত্রীর বরাবরে স্মারকলিপি পেশ



 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

আজকের প্রশ্ন