মঙ্গলবার, ২৩ অক্টোবর ,২০১৮

Bangla Version
SHARE

মঙ্গলবার, ২৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৮, ০৮:২৫:৩৬

গুইমারায় শুরু হলো মংসাজাই চৌধুরী স্মৃতি গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্ট

গুইমারায় শুরু হলো মংসাজাই চৌধুরী স্মৃতি গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্ট

খাগড়াছড়িঃ-খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান কংজরী চৌধুরীর পিতা প্রয়াত মংসাজাই চৌধুরী স্মৃতি অনুর্ধ্ব-১৮ গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্ট’১৮, মঙ্গলবার বিকেলে গুইমারা উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে শুরু হয়েছে। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান কংজরী চৌধুরী প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে জাতীয় পতাকা উত্তোলন ও শান্তির প্রতীক পায়রা উঠিয়ে টুর্নামেন্টের শুভ সুচনা করেন।
এসময় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলা পরিষদের মুখ্য নির্বাহী কর্মকর্তা (যুগ্ম সচিব) মোঃ নূরুজ্জামান, সিন্দুকছড়ি সেনা জোন কমান্ডার লেঃ কর্ণেল রুবায়েত মাহমুদ হাসিব, গুইমারা উপজেলা নির্বাহী অফিসার পঙ্কজ বড়ুয়া, গুইমারা উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ও সদর ইউপি চেয়ারম্যান মেমং মারমা, হাফছড়ি ইউপি চেয়ারম্যন চাইথোয়াই চৌধুরী, সিন্দুকছড়ি ইউপি চেয়ারম্যান রেদাক মারমা প্রমুখ।
উদ্ধোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি’র বক্তব্যে কংজরী চৌধুরী বলেন, বর্তমানে যুব সমাজের যে নৈতিক অবক্ষয় ঘটছে তা থেকে উত্তরণের জন্য খেলাধুলার বিকল্প নাই। নিয়মিত লেখাধুলা যুব সমাজকে নৈতিক অবক্ষয়ের হাত থেকে রক্ষা করে জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বর্তমান সরকার শিক্ষার পাশাপাশি দেশ ব্যাপী খেলাধুলা প্রসার ঘটানোর লক্ষ্যে নানা কর্মসুচী গ্রহণ করেছে। তিনি বলেন, সন্ত্রাস নৈরাজ্য কখনও জাতি বা দেশের কল্যাণ ও উন্নয়ন করতে পারে না, আর ক্রীড়ামোধিরা কখনো সন্ত্রাস ও নৈরাজ্য করতে পারে না।
প্রয়াত মংসাজাই চৌধুরীকে আধুনিক গুইমারা রুপকার এলাকার কৃর্তি সন্তান ও পার্বত্য চট্টগ্রামের শান্তি সমৃদ্ধি ও উন্নয়নের রুপকার এবং সফল সমাজ কর্মী হিসেবে উল্লেখ করে তার স্মৃতির স্মরণে এবং এলাকার ক্রীড়াঙ্গণে নতুন মাত্রা যোগ করে জাতীয় মানের খেলোয়াড় তৈরীর করার জন্য এ টুর্নামেন্টের আয়োজন করা হয়েছে বলে জানান বক্তারা।
টুর্নামেন্ট পরিচালনা কমিটির আহবায়ক সাহলাপ্রু মারমার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত উদ্ধোধনী অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার ম্রোসাথোয়াই মগ সহ স্থানীয় জনপ্রতিনিধি, সাংবাদিক ও গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ। গুইমারা উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নের ব্যাপক সংখ্যক ক্রীড়ামোধী দর্শকের উপস্থিতিতে গুইমারা মাঠ কানায় কানায় পরিপূর্ণ হয়ে উঠে।
উল্লেখ্য, নক আউট পদ্ধতির এ টুর্নামেন্টে গুইমারা উপজেলার মোট ১৬টি দল অংশগ্রহণ করছে। উদ্ধোধনী ম্যাচে গুইমারা কলেজ একাদশকে গুইমারা বাজার একাদশ ১/০ গোলে পরাজিত করে।

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

আজকের প্রশ্ন

তথ্য প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম বলেছেন, গুজব সনাক্তকরণে যে সেল করা হয়েছে, তা সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে মতপ্রকাশ নিয়ন্ত্রণ বা সোশ্যাল মিডিয়া পুলিশিং করবে না। আপনি কি এতে আশ্বস্ত?