বুধবার, ২০ জুন ,২০১৮

Bangla Version
  
SHARE

সোমবার, ০৭ মে, ২০১৮, ০১:৩৩:১১

১০৯ স্কুলে সবাই ফেল, ১৫৭৪ প্রতিষ্ঠানে সবাই পাস

১০৯ স্কুলে সবাই ফেল, ১৫৭৪ প্রতিষ্ঠানে সবাই পাস

ডেস্ক রিপোর্টঃ-এ বছর এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষায় সারাদেশের ১০৯ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের কোনো পরীক্ষার্থী পাস করেনি। গতবার এ সংখ্যা ছিল ৯৩টি। ফলে গতবারের তুলনায় শতভাগ ফেল করা প্রতিষ্ঠানের সংখ্যা ১৬টি বেড়েছে।
অন্যদিকে, এবার সারা দেশে এক হাজার ৫৭৪টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শতভাগ শিক্ষার্থী উত্তীর্ণ হয়েছে। গত বছর এই সংখ্যা ছিল ২ হাজার ২৬৬টি। ফলে এবার শতভাগ শিক্ষার্থী পাসের প্রতিষ্ঠানের সংখ্যা গতবারের চেয়ে ৬৯২টি কমেছে।
এ বছর দেশের ১০ শিক্ষা বোর্ডে গড় পাসের হার ৭৭ দশমিক ৭৭ শতাংশ। গতবার ছিল ৮০ দশমিক ৩৫ শতাংশ। এবার জিপিএ-৫ পেয়েছে ১ লাখ ১০ হাজার ৬২৯ জন শিক্ষার্থী। গতবার জিপিএ-৫ পেয়েছিল ১ লাখ ৪ হাজার ৭৬১ জন।
শতভাগ পাস করা শিক্ষা প্রতিষ্ঠান রাজশাহী বোর্ডে ২০৬টি, ঢাকা বোর্ডে ১৮৪টি, দিনাজপুর বোর্ডের ৮৪টি, কুমিল্লা বোর্ডের ৭৪টি, যশোর বোর্ডের ৭৩টি, বরিশাল বোর্ডের ৫০টি,  চট্টগ্রাম বোর্ডের ২৭টি এবং সিলেট বোর্ডের ২৩টি। এছাড়া মাদ্রাসা বোর্ডের ৭৫৭টি এবং কারিগরি বোর্ডের ৯৬টি প্রতিষ্ঠানের সবাই পাস করেছে।
শতভাগ ফেল করা ১০৯টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে দিনাজপুর বোর্ডে ৫টি, ঢাকা ও বরিশাল বোর্ডে তিনটি করে এবং যশোর ও রাজশাহী বোর্ডে একটি। এছাড়া মাদ্রাসা বোর্ডের ৯৬টি প্রতিষ্ঠানের সব পরীক্ষার্থী এবার ফেল করেছে।

এই বিভাগের আরও খবর

  ১০৯ স্কুলে সবাই ফেল, ১৫৭৪ প্রতিষ্ঠানে সবাই পাস

  উচ্চ মাধ্যমিকে নির্ধারিত আসনে কোটা বাতিলঃ অতিরিক্ত শিক্ষার্থী ভর্তি হবে কোটায়

  এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষা শুরু কাল

  ২৯ মার্চ থেকে সব ধরনের কোচিং বন্ধ

  ‘পরীক্ষা কেন্দ্রের ২০০ মিটারের মধ্যে মোবাইল নিলেই গ্রেপ্তার’

  প্রশ্ন ফাঁসকারীকে ধরিয়ে দিলে ৫ লাখ টাকা পুরস্কার-নাহিদ

  এসএসসি পরীক্ষা শুরু বৃহস্পতিবার, পরীক্ষার্থী ২০ লাখ-শিক্ষামন্ত্রী

  ১ ফেব্রুয়ারি এসএসসি পরীক্ষাঃ আজ থেকেই সকল কোচিং সেন্টার বন্ধ, ‘প্রশ্ন ফাঁসের প্রমাণ মিললেই পরীক্ষা বাতিল’

  জেএসসি-জেডিসি পরীক্ষার ফল প্রকাশ ৩০ ডিসেম্বর

  জেএসসি-জেডিসিঃ প্রথম দিনে অনুপস্থিত ৬০ হাজার ৮৯৩ পরীক্ষার্থী, বহিষ্কার ১৬ জন

  শুরু হলো জেএসসি-জেডিসি পরীক্ষা

 

 

 

 

 

 

 

 

 

আজকের প্রশ্ন

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল বলেছেন, চলমান মাদকবিরোধী অভিযানে তথ্য-প্রমাণের ভিত্তিতে কাজ হচ্ছে, এখানে কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না। বাস্তবে তা ঘটবে বলে মনে করেন?