সোমবার, ১৬ সেপ্টেম্বর ,২০১৯

Bangla Version
  
SHARE

সোমবার, ২৬ আগস্ট, ২০১৯, ০৭:৩৫:২০

টেকনাফে আলোচিত যুবলীগ নেতা হত্যা মামলার আরো এক রোহিঙ্গা আসামী গুলাগুলিতে নিহত

টেকনাফে আলোচিত যুবলীগ নেতা হত্যা মামলার আরো এক রোহিঙ্গা আসামী গুলাগুলিতে নিহত

মুহাম্মদ জুবাইর, টেকনাফঃ-টেকনাফে যুবলীগ নেতা ওমর ফারুক হত্যা মামলার গুলিবিদ্ধ আসামী পুলিশের বন্দুকযুদ্ধে নিহত হয়েছে। এসময় পুলিশের এসআই সাব্বিরসহ ৩জন পুলিশ সদস্য আহত হন। ঘটনাস্থল হতে অস্ত্র, বুলেট ও খোসা উদ্ধার করা হয়েছে বলে জানা যায়। এনিয়ে হত্যা মামলার অভিযোক্ত ৩ রোহিঙ্গা সন্ত্রাসী বন্দুক যুদ্ধে নিহত হয়েছে।
সুত্র জানায়, ২৫ আগষ্ট (রবিবার) দিবাগত রাত অনুমানানিক দেড়টার দিকে একদল পুলিশ আলোচিত হ্নীলা ৯নং ওয়ার্ড যুবলীগ সভাপতি মোঃ ওমর ফারুক হত্যা মামলার আসামীরা আসামীরা জাদিমুড়া পাহাড়ের পাদদেশে  অবস্থান করছে গোপন সংবাদ পেয়ে অভিযানে যায়। এসময় পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে রোহিঙ্গা স্বশস্ত্র সন্ত্রাসীরা গুলিবর্ষণ করে। এতে এসআই সাব্বির আহমদ (৩০), কনস্টেবল লিটন (২১) এবং বাহার আহত হয়। পুলিশও আত্মরক্ষার্থে পাল্টা গুলিবর্ষণ করে। কিছুক্ষণ পর রোহিঙ্গা সন্ত্রাসীরা আরো গভীর পাহাড়ের দিকে পালিয়ে গেলে ঘটনাস্থল তল্লাশী করে ১ এলজি, ৫তাজা কার্তুজ ও ৮ কার্তুজের খোসাসহ নয়াপাড়া শরণার্থী ক্যাম্পের ই-ব্লকের মোঃ আমিরুল ইসলামের পুত্র মোঃ হাসান (২০) কে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় উদ্ধার করে। গুলিবিদ্ধ ও আহতদের উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য টেকনাফ উপজেলা সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে সেখান থেকে উন্নত চিকিৎসার জন্য কক্সবাজার হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যায়। পরে তার মৃতদেহ ময়নাতদন্তের জন্য কক্সবাজার মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে।
টেকনাফ মডেল থানার ওসি প্রদিপ কুমার দাশ জানান, ওমর ফারুক হত্যা মামলার আসামীরা পাহাড়ের পাদদেশে অবস্থানের খবর পেয়ে একদল পুলিশ সেখানে অভিযান চালাই। এসময় পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে রোহিঙ্গা স্বশস্ত্র সন্ত্রাসীরা অভিযানিক দলের উপর গুলিবর্ষণ করে। পুলিশও আত্মরক্ষার্থে পাল্টা গুলি ছোড়ে। এতে এসআই সাব্বির আহমদ (৩০), কনস্টেবল লিটন (২১) এবং বাহার আহত হয়। গুলাগুলি থামার পর রোহিঙ্গা সন্ত্রাসীরা আরো গভীর পাহাড়ের দিকে পালিয়ে গেলে ঘটনাস্থল তল্লাশী করে এলজি, তাজা কার্তুজ ও কার্তুজের খোসাসহ নয়াপাড়া শরণার্থী ক্যাম্পের ই-ব্লকের মোঃ আমিরুল ইসলামের পুত্র মোঃ হাসান (২০) কে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় উদ্ধার করে। হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানে চিকিৎসাধিন অবস্থায় রোহিঙ্গা হাসান মৃত্যু বরন করেন।
উল্লেখ্য, গত বৃহস্পতিবার রাত ১১টারদিকে হ্নীলা জাদিমোরায় শালবাগান ক্যাম্পের রোহিঙ্গা স্বশস্ত্র সন্ত্রাসী স্থানীয় আব্দুল মোনাফ কোম্পানীর ছেলে, জাদিমোরা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটি ও হ্নীলা ইউনিয়ন ৯নং ওয়ার্ড যুবলীগ সভাপতি মোঃ ওমর ফারুক (৩০) কে গুলি করে খুন করে।
এর আগে গত শুক্রবার রাতে ওই হত্যা মামলার আরো দুই সন্ত্রাসী বন্দুকযুদ্ধে নিহত হয়।

এই বিভাগের আরও খবর

  মিয়ানমারের সিমে ইন্টারনেট চালাচ্ছে রোহিঙ্গারা

  টেকনাফে প্রবল বর্ষনে পাহাড় ধ্বস ও পানির স্রোতে তিন ’শিশু’র মৃত্যুঃ আহত-১০

  টেকনাফে ১৯ মাদকসেবীকে বিভিন্ন মেয়াদে সাজা

  উখিয়ায় শেড এনজিওর গুদামে বিপুল পরিমাণ ধারালো অস্ত্র

  রোহিঙ্গা মহাসমাবেশে অর্থ সহায়তাঃ দুই এনজিওর কার্যক্রম নিষিদ্ধ

  রোহিঙ্গা ক্যাম্পে নিয়োজিত চার কর্মকর্তাকে প্রত্যাহার

  টেকনাফে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ রোহিঙ্গা কুখ্যাত সন্ত্রাসী নূর মোহাম্মদ নিহত

  কক্সবাজারে অস্ত্রসহ ডাকাত সন্দেহে দুই যুবক গ্রেফতার

  কক্সবাজারে এনজিও মুক্তি এর ৬ প্রকল্প স্থগিত করলো এনজিও ব্যুরো

  টেকনাফে চোরাগুপ্তা হামলায় দিনমজুরকে হত্যা

  পাচারকারীদের ফেলে যাওয়া নৌকায় মিললো তিন লাখ ষাট হাজার ইয়াবা

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

আজকের প্রশ্ন

ডেঙ্গুতে মৃত্যুর সংখ্যা নিয়ে বিভ্রান্তির প্রেক্ষাপটে আইইডিসিআরের সাবেক পরিচালক মাহমুদুর রহমান বলছেন, মৃত্যুর ঘটনাগুলো ‘রিভিউ’ করার কোনো প্রয়োজন নেই, চিকিৎসকদের কথাই যথেষ্ট। আপনি কি তাকে সমর্থন করেন?