মঙ্গলবার, ২০ আগস্ট ,২০১৯

Bangla Version
  
SHARE

শনিবার, ২৭ জুলাই, ২০১৯, ০৭:৫৬:৪৬

রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শনে মিয়ানমারের প্রতিনিধি দল

রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শনে মিয়ানমারের প্রতিনিধি দল

কক্সবাজারঃ-জোরপূর্বক বাস্তুচ্যুত রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবাসনে করণীয় নির্ধারণে কক্সবাজারের উখিয়া-টেকনাফের রোহিঙ্গা শিবির পরিদর্শনে এসেছেন মিয়ানমারের একটি উচ্চপর্যায়ের প্রতিনিধি দল। রোহিঙ্গা শরণার্থীদের অবস্থা সরজমিনে দেখাই তাদের প্রধান লক্ষ্য বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা। শনিবার (২৭ জুলাই) সকালে বিমানের একটি ফ্লাইটে তারা কক্সবাজার বিমান বন্দরে এসে পৌঁছান।
বিমানবন্দরে প্রতিনিধি দলকে গ্রহণ করেন কক্সবাজার ত্রাণ প্রত্যাবাসন কার্যালয়ের অতিরিক্ত কমিশনার শামসুদ্দৌজা, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক এস এম সরওয়ার কামালসহ প্রশাসনের শীর্ষ কর্মকর্তারা।
ক্যাম্প সূত্র জানায়, শনিবার সকাল ১০টার দিকে প্রতিনিধি দলটি কক্সবাজার বিমানবন্দরে পৌঁছানোর পর সেখান থেকে তারা ইনানীর তারকা হোটেল রয়েল টিউলিপের উদ্দেশে রওনা হন। বেলা একটার দিকে তারা রোহিঙ্গা ক্যাম্পের উদ্দেশে বের হন। সেখানে রোহিঙ্গা নেতাদের সঙ্গে বৈঠক করবে দলটি।
উল্লেখ্য, ২০১৭ সালের ২৫ আগস্টের পর থেকে মিয়ানমার থেকে পালিয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নেয় প্রায় সাড়ে ৭লাখ রোহিঙ্গা। এর আগে বিভিন্ন সময়ে আরো প্রায় ৫ লাখ বেশি বাংলাদেশের বিভিন্ন এলাকায় আশ্রয় নিয়ে আছে। তবে, ২০১৭ সালের পর ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা রোহিঙ্গাদের উখিয়া-টেকনাফের ৩১টি ক্যাম্পে জড়ো করে আশ্রয় দেয়া হয়েছে। এরপর কূটনৈতিক প্রচেষ্টায় তাদের প্রত্যাবাসনের প্রক্রিয়া চালানো হয়। কিন্তু দফায় দফায় চেষ্টা করেও প্রত্যাবাসন প্রক্রিয়া শুরু করা যায়নি। গত বছরে প্রত্যাবাসন শুরুর কথা দিয়েও কথা রাখেনি মিয়ানমার।
এদিকে, আগামী সেপ্টেম্বরে জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের অধিবেশন শুরুর আগে আন্তর্জাতিক সমালোচনা প্রশমন করতে চায় মিয়ানমার। সে লক্ষ্যেই বাংলাদেশে প্রতিনিধি দল পাঠালো তারা। গত বছরও মিয়ানমারের উচ্চপর্যায়ের একটি প্রতিনিধি দল কক্সবাজারের শিবিরে গিয়ে রোহিঙ্গাদের সঙ্গে কথা বলেছিল। এরপরেও প্রত্যাবাসন প্রক্রিয়ায় কোনো গতি আসেনি। আজকের দল সার্বিক পরিস্থিতি দেখে গেলে প্রত্যাবাসনে কি বার্তা সামনে আসে তা দেখার অপেক্ষায় বাংলাদেশ ও বিশ্ববাসী। কক্সবাজারের শরণার্থী ত্রাণ ও প্রত্যাবাসন কর্মকর্তা (আরআরআরসি) মো. আবুল কালাম বলেন, প্রতিনিধি দল ক্যাম্প পরিদর্শন শেষে আমাদের সাথে বসার কথা রয়েছে। তারা কি বলে সেটি দেখার অপেক্ষায় রয়েছি আমরা।

এই বিভাগের আরও খবর

  ২২ আগস্ট থেকে রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন শুরু

  টেকনাফে পুলিশের গুলিতে মাদক কারবারী নিহত, তিন পুলিশ আহত

  টেকনাফে চিকিৎসকসহ ডেঙ্গুতে আক্রান্ত-৮

  টেকনাফে রোহিঙ্গা ডাকাত হাকিমের ভাই ও স্ত্রীর গুলিবিদ্ধ লাশ উদ্ধার

  টেকনাফে গবাদি পশুর হাটঃ মিয়ানমারের গবাদি পশু’র সয়লাব

  টেকনাফ বিজিবির সাথে মাদককাবারীর গুলাগুলিঃ রোহিঙ্গাসহ নিহত-২,আহত-৪

  টেকনাফে পুলিশ-ডাকাত বন্দুকযুদ্ধ নিহত-৪, অস্ত্রসহ আটক-২

  ডেঙ্গু রোগে আক্রান্ত হয়ে টেকনাফ ব্যবসায়ীর মৃত্যু

  টেকনাফ সাগর উপকুলে গুলাগুলিতে নিহত-১, আহত-২, অস্ত্র, ইয়াবাও অটোরিকসা জব্দ

  টেকনাফে বন্দুকযুদ্ধে ২ মাদক ব্যবসায়ী নিহত

  রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শনে মিয়ানমারের প্রতিনিধি দল

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

আজকের প্রশ্ন

ডেঙ্গুতে মৃত্যুর সংখ্যা নিয়ে বিভ্রান্তির প্রেক্ষাপটে আইইডিসিআরের সাবেক পরিচালক মাহমুদুর রহমান বলছেন, মৃত্যুর ঘটনাগুলো ‘রিভিউ’ করার কোনো প্রয়োজন নেই, চিকিৎসকদের কথাই যথেষ্ট। আপনি কি তাকে সমর্থন করেন?