মঙ্গলবার, ১৭ সেপ্টেম্বর ,২০১৯

Bangla Version
  
SHARE

শুক্রবার, ০৭ জুন, ২০১৯, ০৭:৫২:০১

টেকনাফে পুলিশের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে তিন রোহিঙ্গা নিহত

টেকনাফে পুলিশের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে তিন রোহিঙ্গা নিহত

কক্সবাজারঃ-কক্সবাজারের টেকনাফে পুলিশের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে তিন রোহিঙ্গা অপহরণকারী নিহত হয়েছেন। এসময় ঘটনাস্থল থেকে অস্ত্র ও গুলি উদ্ধার করা হয়। শুক্রবার (৭ জুন) ভোরে টেকনাফের সাগর উপকুলবর্তী মেরিন ড্রাইভ সড়কে এ ঘটনা ঘটে।
নিহতরা হলেন, উখিয়ার থ্যাংখালী রোহিঙ্গা সি-ব্লকের বাসিন্দা নুর মোহাম্মদের ছেলে শামসুল আলম (৩৫), একই ব্লকের মোক্তার আহমদের ছেলে নুরে আলম (২১) ও লেদা রোহিঙ্গা ক্যাম্পের বাসিন্দা আজিজুর রহমানের ছেলে মো. হাবিব (২০)।
টেকনাফ থানার (ওসি) প্রদীপ কুমার দাশ জানান, কিছুদিন আগে এক শিশুকে অপহরণপূর্বক ৫ লাখ টাকা দাবি করার ঘটনায় আটক করা হয় ৩ রোহিঙ্গাকে। পরে আটক রোহিঙ্গাদের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী অন্যান্যদের ধরতে গেলে পুলিশের অবস্থান টের পেয়ে গুলি চালায় অপহরণকারীরা। পুলিশও পাল্টা গুলি চালালে তিন আসামি নিহত হয়।
এসময় ঘটনাস্থল থেকে ৩টি অস্ত্র ও ১৯ রাউন্ড গুলি উদ্ধার করা হয়। পরে ময়না তদন্তের জন্য লাশগুলো কক্সবাজার সদর হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে। এ ঘটনার সাথে কারা জড়িত তা খতিয়ে নিয়ে দেখা হচ্ছে বলে জানান ওসি।

এই বিভাগের আরও খবর

  মিয়ানমারের সিমে ইন্টারনেট চালাচ্ছে রোহিঙ্গারা

  টেকনাফে প্রবল বর্ষনে পাহাড় ধ্বস ও পানির স্রোতে তিন ’শিশু’র মৃত্যুঃ আহত-১০

  টেকনাফে ১৯ মাদকসেবীকে বিভিন্ন মেয়াদে সাজা

  উখিয়ায় শেড এনজিওর গুদামে বিপুল পরিমাণ ধারালো অস্ত্র

  রোহিঙ্গা মহাসমাবেশে অর্থ সহায়তাঃ দুই এনজিওর কার্যক্রম নিষিদ্ধ

  রোহিঙ্গা ক্যাম্পে নিয়োজিত চার কর্মকর্তাকে প্রত্যাহার

  টেকনাফে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ রোহিঙ্গা কুখ্যাত সন্ত্রাসী নূর মোহাম্মদ নিহত

  কক্সবাজারে অস্ত্রসহ ডাকাত সন্দেহে দুই যুবক গ্রেফতার

  কক্সবাজারে এনজিও মুক্তি এর ৬ প্রকল্প স্থগিত করলো এনজিও ব্যুরো

  টেকনাফে চোরাগুপ্তা হামলায় দিনমজুরকে হত্যা

  পাচারকারীদের ফেলে যাওয়া নৌকায় মিললো তিন লাখ ষাট হাজার ইয়াবা

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

আজকের প্রশ্ন

ডেঙ্গুতে মৃত্যুর সংখ্যা নিয়ে বিভ্রান্তির প্রেক্ষাপটে আইইডিসিআরের সাবেক পরিচালক মাহমুদুর রহমান বলছেন, মৃত্যুর ঘটনাগুলো ‘রিভিউ’ করার কোনো প্রয়োজন নেই, চিকিৎসকদের কথাই যথেষ্ট। আপনি কি তাকে সমর্থন করেন?