মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ,২০১৯

Bangla Version
  
SHARE

শুক্রবার, ০১ মার্চ, ২০১৯, ০৭:১২:৩২

টেকনাফে পুলিশ ও বিজিবি’র পৃথক অভিযানে পিতা-পুত্রসহ নিহত-৪

টেকনাফে পুলিশ ও বিজিবি’র পৃথক অভিযানে পিতা-পুত্রসহ নিহত-৪

মুহাম্মদ জুবাইর, টেকনাফঃ-টেকনাফে পুলিশ ও বিজিবি’র পৃথক বন্দুকযুদ্ধে শীর্ষ ডাকাত সরদার আবদুল হাকিমের সহোদর ভাইসহ ৪ মাদককারবারী  নিহত হয়েছে। বিজিবি ও পুলিশের দাবি তারা সকলেই মাদকক ও ডাকাতী কাজের সাথে জড়িত। বন্দুকযুদ্ধে নিহতরা হলেন, টেকনাফ পৌরসভা ৭নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা ও রোহিঙ্গা নাগরিক আবদুল জলিলের পুত্র নজির আহমদ ওরফে নজির ডাকাত (৪০), টেকনাফ সদরের দক্ষিন ডেইল পাড়ার মৃত কালামিয়ার পত্র আব্দুস শুক্কুর(৫০) ও আবদুস শুকুরের পুত্র মোঃ ইলিয়াছ (৩০), হোয়াইক্যংয়ের হাজী মো. জকরিয়ার পুত্র  গিয়াস উদ্দিন(৩০)।
শুক্রবার (১ মার্চ) ভোররাতে টেকনাফ উপজেলার হোয়াইক্যং নয়াপাড়া বটতলী ও সাবরাং ইউপিস্থ পুরাতন মগপাড়া কাকঁড়া প্রজেক্ট এলাকায় বন্দুকযুদ্ধের পৃথক এঘটনা ঘটে।
তাদের বিরুদ্ধে একাধিক মামলা রয়েছে। ঘটনাস্থল থেকে এক লাখ ৬ হাজার পিস ইয়াবা ট্যাবলেট ও তিনটি এলজি এবং গুলি খোসা উদ্ধার করা হয় বলে জানায়।
টেকনাফ-২ বিজিবির অধিনায়ক লে. কর্নেল আছাদুদ জামান চৌধুরী স্বাক্ষরিত প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানা যায়, শুক্রবার ভোর রাতে সাবরাং ইউপির পুরাতন মগপাড়া কাঁকড়া প্রজেক্ট এলাকা দিয়ে বিপুল পরিমাণ ইয়াবা বাংলাদেশে প্রবেশ করবে । উক্ত সংবাদের ভিত্তিতে নায়েক সুবেদার মোহাম্মদ শাহ আলমের নেতৃত্বে একটি বিশেষ টহল দল ওই এলাকায় অবস্থান করে। এসময় চোরাকারবারিরা বিজিবির উপস্থিতি টের পেয়ে গুলি ছোড়ে এবং বিজিবিও পাল্টা গুলি চালায়। পরে ইয়াবা ব্যবসায়ীরা পিছু হটলে ঘটনাস্থলে গুলিবিদ্ধ দুইজন অজ্ঞাতনামা ব্যক্তিকে  দেখতে পায়। সেই সঙ্গে  উদ্ধার করা হয় এক লাখ ইয়াবা,একটি দেশীয় তৈরি এলজি ও একটি খালি কার্তুজ। আহত ব্যক্তিদেরকে টেকনাফ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত ডাক্তার মৃত ঘোষণা করেন।
বিজিবির অধিনায়ক আরো জানান, উভয়পক্ষের মাঝে আট থেকে ১০ মিনিট গুলি বিনিময় হয়। এতে মো. ইমরান হোসেন নামে এক বিজিবি সদস্য আহত হয়। তাকে টেকনাফ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এ প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে বিজিবি হাসপাতালে দেয়া হচ্ছে। পাশাপাশি মৃত ব্যক্তিদের খুব শিগগিরই শনাক্তের চেষ্টা চলছে বলেও জানান।
তবে স্থানীয় সুত্রে জানা যায়, বিজিবি’র বন্দুক যুদ্ধে নিহত ২জন হচ্ছে টেকনাফ সদর ইউনিয়নের দক্ষিন ডেইল পাড়া এলাকার পিতা-পুত্র। তারা হচ্ছে মৃত কালা মিয়ার পুত্র আবদুস শুকুর (৪৭) ও আবদুস শুকুরের পুত্র ইলিয়াছ (২৯)।
অপরদিকে পুলিশ জানায়, ১ মার্চ ভোররাতে টেকনাফ থানা পুলিশ জানতে পারে যে, হোয়াইক্যং নয়াপাড়া বট্টলী এলাকায় ডাকাতির প্রস্তুতি চলছে। এ সংবাদে একদল পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছলে একদল অস্ত্রধারী পুলিশের উপর গুলি বর্ষণ করে। পুলিশও আত্মরক্ষার্থে পাল্টা গুলি ছোড়ে।এতে ঘটনাস্থল থেকে টেকনাফ পৌরসভা চৌধুরী পাড়াস্থ ৭নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা ও রোহিঙ্গা নাগরিক  আব্দুল জলিলের ছেলে নজির আহমদ ওরফে নজির ডাকাত (৩০) ও হোয়াইক্যং ইউনিয়নের নয়াপাড়ার জাকারিয়ার ছেলে গিয়াস উদ্দিন (৩৫) গুলিবিদ্ধ হয়। ঘটনাস্থল থেকে তিনটি এলজি, ছয় হাজার পিস ইয়াবা ট্যাবলেট, নয় রাউন্ড তাজা কার্তুজ ও তেরটি গুলির খোসা উদ্ধার করা হয় বলে হোয়াইক্যং পুলিশ ফাঁড়ি ইনচার্জ এসআই দীপংঙ্কর রায় নিশ্চিত করেছেন। তিনি আরো বলেন, গুলি বিনিময়কালে টেকনাফ থানা পুলিশের এসআই সুজিত চন্দ্র দে, এএসআই খায়রুল, কনস্টেবল এরশাদুল ও হেলাল উদ্দিন নামের ৪ পুলিশ সদস্য আহত হয়।
তিন পুলিশ সদস্য আহত হন। গুলিবিদ্ধ আহতদের উদ্ধার করে  টেকনাফ উপজেলা সদর হাসপাতালে নেওয়া হলে কর্তব্যরত ডাক্তার মৃত ঘোষণা করেন। তাদের মৃতদেহ ময়না তদন্তের জন্য কক্সবাজার মর্গে পাঠানো হয়েছে।

এই বিভাগের আরও খবর

  টেকনাফে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ আটক মাদক ব্যবসায়ী নিহত

  রোহিঙ্গা ক্যাম্পে পানিতে ডুবে ২ শিশুর মৃত্যু

  টেকনাফে বন্দুকযুদ্ধে মাদক ব্যবসায়ী নিহত

  উখিয়ার ক্যাম্পে দেয়াল চাপায় রোহিঙ্গা নারীর মৃত্যু

  কক্সবাজারে 'বন্দুকযুদ্ধে' মাদক মামলার পলাতক আসামি নিহত

  টেকনাফে বিজিবির অভিযানে “৫৩ কোটি” টাকার ইয়াবাসহ চোরাইপন্য জব্দ

  টেকনাফে ইউপি মেম্বার বন্দুক যুদ্ধে নিহত, আহত-৩, অগ্নেয়াস্ত্র ও ইয়াবা উদ্ধার

  টেকনাফ-উখিয়ায় ‘বন্দুকযুদ্ধ’, দুইভাইসহ রোহিঙ্গা নিহত

  টেকনাফে পরিত্যক্ত অবস্থায় ১ লাখ ইয়াবা উদ্ধার

  মাদকে জড়িত অনুপস্থিত জনপ্রতিনিধিদের বরখাস্তে প্রয়োজনীয় আইন মতে ব্যবস্থা নেওয়া হবে

  টেকনাফে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ রোহিঙ্গাসহ নিহত-২

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

আজকের প্রশ্ন

এলডিপি সভাপতি অলি আহমদ বলেছেন, বাংলাদেশে এখন টাকা থাকলে সব রকম অন্যায় করে পার পাওয়া যায়। আপনি কি তা ঠিক মনে করেন?