সোমবার, ২৮ মে ,২০১৮

Bangla Version
  
SHARE

বুধবার, ০৯ মে, ২০১৮, ০৯:০২:১২

টেকনাফে অস্ত্র ও কার্তুজসহ আটক-১

টেকনাফে অস্ত্র ও কার্তুজসহ আটক-১

কক্সবাজারঃ-কক্সবাজারের টেকনাফ হ্নীলা মুচনী পাড়া এলাকায় অভিযান চালিয়ে একটি এলজি (দেশীয় তৈরী বন্দুক) ও দু’রাউন্ড কার্তুজসহ ইমান হোসেনকে আটক করেছে পুলিশ। ইমান টেকনাফ হ্নীলা মুচনী পাড়া এলাকার নজির আহমদ প্রকাশ নামিউর জামান ছেলে।
বুধবার (৯ মে) ভোররাতে নয়াপাড়া শরনার্থী ক্যাম্প পুলিশ ফাড়িঁর ইনচার্জ এসআই কবির হোসেনের নেতৃত্বে সঙ্গীয় পুলিশ ফোর্স গোপন সংবাদের ভিত্তিতে নজির আহমদের বসত বাড়িতে অভিযান চালিয়ে এলজি ও ২ রাউন্ড কার্তুজসহ ইমান হোসেনকে আটক করেন।
শরনার্থী ক্যাম্প পুলিশ ফাড়িঁর ইনচার্জ কবির হোসেন জানান, ওই দিন রাতে নয়াপাড়া শরনার্থী ক্যাম্পে রোহিঙ্গা ডাকাত নুরুল আলমের সাথে ইমান হোসেন রোহিঙ্গা ক্যাম্পে ফাঁকা গুলিবর্ষণ করে। এতে আতংকিত হয়ে পড়ে স্থানীয় নিরীহ রোহিঙ্গা লোকজন। এক পর্যায়ে তারা ক্যাম্পের পুলিশকে খবর দেয়। পরে শরনার্থী ক্যাম্প পুলিশ ফাড়িঁর ইনচার্জ এসআই কবির হোসেনসহ একদল পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে ইমান হোসেনকে আটক করে। পরে তার দেখানো স্থান হতে অস্ত্র ও ২ রাউন্ড কার্তুজ উদ্ধার করা হয়।
তিনি আরো জানান, ইমান হোসেনের বিরুদ্ধে বিভিন্ন অপরাধে একাধিক মামলা রয়েছে।
স্থানীয়রা জানায়, প্রায় সময় রোহিঙ্গা ডাকাত নুরুল আলমের সাথে ইমান হোসেনও প্রায় সময় অস্ত্র দেখিয়ে ভয়ভীতি প্রদর্শন করে শরনার্থী ক্যাম্পে।
টেকনাফ মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) রনজিত কুমার বড়ুয়া জানান, রোহিঙ্গা ক্যাম্প অস্ত্রধারী সন্ত্রাসী সংগঠিত হওয়ার চেষ্টা করছে বলে বিভিন্ন মাধ্যমে খবর পাওয়া যাচ্ছে। এমন তথ্যের ভিত্তিতে সন্ত্রাসী ইমান হোসেনকে জনতার সহায়তায় পুলিশ আটক করে। পরে তার দেখানো তথ্যের ভিত্তিতে একটি দেশীয় তৈরী বন্দুক (এলজি) ও দু রাউন্ড কার্তুজ উদ্ধার করা হয়। এ ছাড়া এ সংক্রান্ত একটি মামলাও রুজু করা হয় বলে জানান তিনি।

এই বিভাগের আরও খবর

 

 

 

 

 

 

 

 

আজকের প্রশ্ন

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল বলেছেন, চলমান মাদকবিরোধী অভিযানে তথ্য-প্রমাণের ভিত্তিতে কাজ হচ্ছে, এখানে কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না। বাস্তবে তা ঘটবে বলে মনে করেন?