মঙ্গলবার, ১৭ জুলাই ,২০১৮

Bangla Version
  
SHARE

বৃহস্পতিবার, ২৮ ডিসেম্বর, ২০১৭, ০৭:৫১:৩৪

কক্সবাজারের মহেশখালীতে বিধ্বস্ত বিমানের যন্ত্রাংশ উদ্ধারে ৬৫ সদস্য

কক্সবাজারের মহেশখালীতে বিধ্বস্ত বিমানের যন্ত্রাংশ উদ্ধারে ৬৫ সদস্য

কক্সবাজারঃ-কক্সবাজারের মহেশখালীতে বিমান বিধ্বস্তের ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন বাংলাদেশ বিমান বাহিনীর এয়ার চিফ মার্শাল আবু এশরার। একই সঙ্গে উপজেলার ছোট মহেশখালী ইউনিয়নের কম্বনিয়া পাড়ার পাহাড়ে মাটিতে ডুকে যাওয়া বিমানের উদ্ধার কাজ পরিদর্শন করেন।
চট্টগ্রাম জহরুল হক বিমান ঘাটি থেকে কর্নেল এনামুল হক ও কক্সাবাজার স্কোয়াডন ডোন লিডার ও রেস্কিউটিমের প্রধান আরমান খানের নেতৃত্বে ৬৫ বিমান বাহিনীর সদস্যের সমন্বয়ে উদ্ধার কাজে অংশ নিয়েছে। বিমান বাহিনীর উদ্ধার কাজের সহায়তা করছেন মহেশখালী উপজেলা ফায়ার সার্ভিস ইউনিটের সদস্যরা।
রেস্কিউটিমের প্রধান আরমান খান জানান, প্রাথমিকভাবে উদ্ধার হওয়া বিমানের যন্ত্রাংশ উপজেলা ডাকবাংলোতে সংরক্ষণ করে পরে বিমান বাহিনীর ঘাঁটিতে নিয়ে যাওয়া হবে। বিধ্বস্ত বিমানের বিভিন্ন অংশে ফায়ার হওয়া ও দুর্ঘটনা সৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে।
উদ্ধার কাজ পরিদর্শনে ছিলেন মহেশখালী উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ আবুল কালাম, কক্সবাজার জেলার সহকারী পুলিশ সুপার (মহেশখালী সার্কেল) রতন দাশ গুপ্ত, মহেশখালী পৌর মেয়র আলহাজ্ব মকছুদ মিয়া, মহেশখালী থানার ওসি প্রদীপ কুমার দাশ, প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মোহাম্মদ শফিউল আলম সাকিক, সাবেক মেয়র সরওয়ার আজম, ছোট মহেশখালীর ইউপি চেয়ারম্যান জিহাদ বিন আলী প্রমুখ।

এই বিভাগের আরও খবর

  কক্সবাজারে পাহাড়ি ঝোপে অজ্ঞাত ব্যক্তির লাশ

  টেকনাফে নিখোঁজের ১৯ দিন পর রোহিঙ্গা ডাকাতের মস্তকবিহীন লাশ উদ্ধার

  টেকনাফে ২শ ৮৬কোটি টাকার মাদকদ্রব্য ধ্বংস

  টেকনাফে পাহাড়ি সড়কে গণপরিবহনে দুর্ধর্ষ ডাকাতি

  টেকনাফে এক মাসেই ৬ কোটি ৭৪ লাখ টাকার মাদক ও চোরাইপণ্য জব্দ

  টেকনাফে মাদকবিরোধী অভিযানে আটক ১৫ জনকে সাজা

  রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধানে যুক্তরাজ্য মিয়ানমারের উপর চাপ দিচ্ছে-মার্ক ফিল্ড

  ভারি র্বষণে ক্ষতিগ্রস্তদের জন্য ২০০ টন চাল বরাদ্দ

  কক্সবাজারে মাদক বিক্রেতাকে ১৫ বছরের কারাদণ্ড

  টেকনাফে পূর্ব শত্রুতার জেরে স্কুল ছাত্রকে হত্যা

  টেকনাফ সীমান্তে ৪টি স্বর্ণবারসহ যুবক আটক

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

আজকের প্রশ্ন

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল বলেছেন, চলমান মাদকবিরোধী অভিযানে তথ্য-প্রমাণের ভিত্তিতে কাজ হচ্ছে, এখানে কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না। বাস্তবে তা ঘটবে বলে মনে করেন?