মঙ্গলবার, ১৭ জুলাই ,২০১৮

Bangla Version
  
SHARE

মঙ্গলবার, ২৬ ডিসেম্বর, ২০১৭, ০৮:১৬:০৪

কক্সবাজারে শীর্ষ ১১ ছিনতাইকারীসহ আটক-১৪

কক্সবাজারে শীর্ষ ১১ ছিনতাইকারীসহ আটক-১৪

কক্সবাজারঃ-কক্সবাজার সদর মডেল থানা পুলিশ অভিযান চালিয়ে শহরের বিভিন্ন পয়েন্ট থেকে ১১জন ছিনতাইকারীসহ ১৪ জন আসামি গ্রেফতার করেছে। মঙ্গলবার ভোর রাত ৪টার দিকে কক্সবাজার সদর মডেল থানা পুলিশ এ অভিযান চালায়। আটককৃতদের কাছ থেকে ৮টি ছোরা, ৮টি মুখোশ ও ৫টি লোহার রড উদ্ধার করা হয়।
পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, ২৬ ডিসেম্বর ভোর রাত ৪টার দিকে অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে একদল ডাকাত শহরে বড় ধরনের ডাকাতির প্রস্তুতি নিচ্ছিল। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে কক্সবাজার সদর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) রনজিত কুমার বড়ুয়ার নেতৃত্বে কক্সবাজার পৌরসভর কবিতা চত্বরের পূর্বপাশে ঝাউবাগানে ডাকাতির প্রস্তুতিকালে অস্ত্রশস্ত্রসহ উল্লেখিত ডাকাতদের আটক করা হয়।
এ ব্যাপারে সদর থানার অফিসার ইনচার্জ রনজিত কুমার বড়ুয়া জানান, আটক ছিনতাইকারী ও ডাকাতদের বিরুদ্ধে ডাকাতি, ছিনতাই, দস্যুতার অভিযোগে একাধিক মামলা রয়েছে। এছাড়া তাদের বিরুদ্ধে আলাদাভাবে ডাকাতির প্রস্তুতি এবং অস্ত্র মামলা রুজু করে রিমান্ডের প্রতিবেদনসহ আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে। ওসি আরও জানান, কক্সবাজার শহর ও শহরতলীর পর্যটকসহ সকল নাগরিকের নিরাপত্তা বিধানে পুলিশের বিভিন্ন টিমের প্রতিনিয়ত অভিযান অব্যাহত আছে।

এই বিভাগের আরও খবর

  টেকনাফে পাহাড়ী ছড়া থেকে রোহিঙ্গা যুবকসহ দু’মৃতুদেহ উদ্ধার

  টেকনাফের নাফনদীতে বিজিবি-বিজিপি পর্যায়ে ১০ম যৌথ সমন্বয় টহল

  কক্সবাজারে পাহাড়ি ঝোপে অজ্ঞাত ব্যক্তির লাশ

  টেকনাফে নিখোঁজের ১৯ দিন পর রোহিঙ্গা ডাকাতের মস্তকবিহীন লাশ উদ্ধার

  টেকনাফে ২শ ৮৬কোটি টাকার মাদকদ্রব্য ধ্বংস

  টেকনাফে পাহাড়ি সড়কে গণপরিবহনে দুর্ধর্ষ ডাকাতি

  টেকনাফে এক মাসেই ৬ কোটি ৭৪ লাখ টাকার মাদক ও চোরাইপণ্য জব্দ

  টেকনাফে মাদকবিরোধী অভিযানে আটক ১৫ জনকে সাজা

  রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধানে যুক্তরাজ্য মিয়ানমারের উপর চাপ দিচ্ছে-মার্ক ফিল্ড

  ভারি র্বষণে ক্ষতিগ্রস্তদের জন্য ২০০ টন চাল বরাদ্দ

  কক্সবাজারে মাদক বিক্রেতাকে ১৫ বছরের কারাদণ্ড

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

আজকের প্রশ্ন

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল বলেছেন, চলমান মাদকবিরোধী অভিযানে তথ্য-প্রমাণের ভিত্তিতে কাজ হচ্ছে, এখানে কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না। বাস্তবে তা ঘটবে বলে মনে করেন?