মঙ্গলবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ,২০১৮

Bangla Version
  
SHARE

সোমবার, ১১ ডিসেম্বর, ২০১৭, ০৮:১২:২৫

রোহিঙ্গা শিবিরের মহামারী আকারে ডিপথেরিয়া, ১১ জনের মৃত্যু, আক্রান্ত ৫শ

রোহিঙ্গা শিবিরের মহামারী আকারে ডিপথেরিয়া, ১১ জনের মৃত্যু, আক্রান্ত ৫শ

কক্সবাজারঃ-টেকনাফ ও উখিয়া উপজেলার রোহিঙ্গা শিবিরে পথেরিয়ায় ১১ জনের মৃত্যু ও ৫০০ জন আক্রান্ত হয়েছেন। ছোঁয়াছে রোগ হওয়ায় স্থানীয়দের মধ্যে সহজে এই রোগ ছড়িয়ে পড়ার আশংকা দেখা দিয়েছে।
কক্সবাজার সির্ভিল সার্জন আবদুস সালাম জানান, টিকাদানের মাধ্যমে বাংলাদেশ থেকে ডিপথেরিয়া একেবারে বিদায় নিয়েছে। তবে রোহিঙ্গাদের মধ্যে এই রোগ সনাক্ত করা হয়েছে। ইতিমধ্যে এই রোগে ১১ জনের মৃত্যু হয়েছে। আক্রান্ত হয়েছে  ৫শ জনের বেশি।
চট্টগ্রাম সির্ভিল সার্জন ডা: মোহাম্মদ আজিজুর রহমান সিদ্দিকী জানান, বাংলাদেশে টিকা দানের মাধ্যমে এই রোগকে অনেক আগেই বিদায় জানানো হয়েছে। রোহিঙ্গারা যেহেতু ঠিকাদান থেকে বঞ্চিত তাদের মধ্যে এই রোগ ছড়িয়ে পড়েছে। মূলত কাশির মাধ্যমে এই রোগ ছড়িয়ে পড়ে। ছোঁয়াছে হওয়ায় স্থানীয়রার এই রোগে আক্রান্ত হওয়ার সম্ভবনা আছে। তবে স্বাস্থ্য বিভাগ ইতিমধ্যে নিয়ন্ত্রণে কাজ শুরু করেছে।
স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের ন্যাশনাল ক্রাইসিস ম্যানেজম্যান্ট ও কন্টোল রুমের ইনচার্য ডা: আয়েশা আক্তার জানান ব্যাকটেরিয়া জনিত সংক্রামক ব্যাধি ডিপথেরিয়া আক্রান্তের হাঁচি, কাশির মাধ্যমে এই রোগ দ্রুতই অন্যের শরীরে ছড়িয়ে পড়তে পারে। এতে শ্বাস কষ্ট হৃদযন্ত্রের সমস্যা পক্ষাঘাত এমনকি মৃত্যু ঘটে।
চট্টগ্রাম সির্ভিল সার্জন জানান ডিপথেরিয়ার আক্রান্ত ৫০ জনের এক জনের মৃত্যু হয়। তবে স্বাস্থ্য মন্ত্রনালয় খুব দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়ায় পরিস্থিতি আয়ত্তে আসবে বলে আশা তার।
নাম প্রকাশ না করার শর্তে রোহিঙ্গা ক্যাম্পে কাজ করা এক সরকারী চিকিৎসক জানান, রোহিঙ্গাদের কারণে স্বাস্থ্যখাতে আমাদের অর্জন প্রশ্নবিদ্ধ হয়ে উঠেছে। বাংলাদেশ থেকে ডিপথেরিয়া অনেক আগে বিদায় নেওয়ায় দেশে ডিপথেরিয়ার ভালো কোন ওষুধও মওজুদ নেই। স্বাস্থ্য বিভাগ বিষয়টি কিভাবে মোকাবেলা করবে এখন সেটা দেখার বিষয়।
আইইউসিআরের সাবেক পরিচালক ড.মাহামুদুর রহমান বলেন, ক্যাম্পে কাজ করা এনজিও কর্মী থেকে শুরু করে সবার মাস্ক ব্যবহার করা উচিত। তা ছাড়া স্থানীয়দের রোহিঙ্গা ক্যাম্প এড়িয়ে চলার পরমর্শও দেন তিনি।

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

আজকের প্রশ্ন

তত্ত্বাবধায়ক সরকার আমলে চালু হওয়া ‘না’ ভোট একাদশ সংসদ নির্বাচনের আগে গণপ্রতিনিধিত্ব আদেশ সংশোধনের উদ্যোগের মধ্যে পুনঃপ্রবর্তনের প্রস্তাব করেছে নাগরিক সংগঠন সুজন। আপনি কি তা সমর্থন করেন?