মঙ্গলবার, ১৭ জুলাই ,২০১৮

Bangla Version
  
SHARE

শনিবার, ১১ নভেম্বর, ২০১৭, ০৭:৪৫:৫০

নতুন কৌশলে রোহিঙ্গা অনুপ্রবেশঃ ফের ভেলা ভাসিয়ে ৭৩১ রোহিঙ্গা অনুপ্রবেশ

নতুন কৌশলে রোহিঙ্গা অনুপ্রবেশঃ ফের ভেলা ভাসিয়ে ৭৩১ রোহিঙ্গা অনুপ্রবেশ

মুহাম্মদ জুবাইর, টেকনাফঃ-সীমান্তে নিত্য নতুন কৌশলে রোহিঙ্গা অনুপ্রবেশ অব্যাহত রয়েছে।দীর্ঘদিন নৌকা নিয়ে মিয়ানমারের নির্যাতিত রোহিঙ্গারা বাংলাদেশ সীমানা পেরিয়ে আসলে ও গত কয়েকদিন ধরে ভেলায় ভেসে আসছে তারা। ফের ১ দিনেই মাত্র ৪ ঘন্টার ব্যবধানে মংডু থেকে টেকনাফের শাহপরীরদ্বীপ সীমান্তে এসেছে ৭৩১ জন রোহিঙ্গা। পারাপারের জন্য নৌকা সংকটের কারণে ভেলায় চড়ে রোহিঙ্গাদের নাফ নদী অতিক্রম করে টেকনাফ সীমান্তে অনুপ্রবেশের প্রবনতা দিন দিন বাড়ছে। সেই সাথে নৌকায় করে রাতের আঁধারেও রোহিঙ্গা অনুপ্রবেশ অব্যাহত রয়েছে।
শুক্রবার (১০ নভেম্বর) দুপর ২টা থেকে বিকাল ৫টা পর্যন্ত আবারও মিয়ানমার থেকে বাঁশের ভেলা ভাসিয়ে পালিয়ে এসেছে ৭ শতাধিক রোহিঙ্গা নারী-পুরুষ-শিশু। এসব রোহিঙ্গা ১০টি ভেলায় করে টেকনাফ উপজেলার সাবরাং ইউনিয়নের শাহপরীরদ্বীপ নয়াপাড়া এবং টেকনাফ সদর ইউনিয়নের নাজিরপাড়া পৌঁছায়।
এনিয়ে গত ৩ দিনে ১ হাজারেরও বেশী রোহিঙ্গা নারী-পুরুষ-শিশু ভেলায় চড়ে মিয়ানমার থেকে বাংলাদেশের টেকনাফ উপকুলে পৌঁছেছে। এছাড়া আরো ৪টি ভেলা নিয়ে ৩ শতাধিক রোহিঙ্গা নারী, শিশু ও পুরুষ বাংলাদেশের ঢুকার অপেক্ষায় নাফ নদীতে ভাসছে বলে জানা গেছে।
জানা যায়, রাখাইন রাজ্যে রোহিঙ্গাদের ওপর সেনা বাহিনী ও রাখাইনদের নির্যাতন বন্ধ হলেও বন্ধ হয়নি ভয়-ভীতি। রাখাইনদের সঙ্গে নিয়ে সেনা বাহিনীরা রাতে গ্রামে গ্রামে গিয়ে গুলি বর্ষন ও ধরপাকড় করেছে। যাতে রোহিঙ্গা দেশ ছাড়তে বাধ্য হয়। পারাপারের জন্য নৌকা সংকটের কারণে রোহিঙ্গারা এখন মিয়ানমার থেকে ভেলা ভাসিয়ে রাখাইন রাজ্যে ছেড়ে নাফ নদী পেরিয়ে পালিয়ে আসছেন টেকনাফে।
বৃহস্পতিবার (৯ নভেম্বর) সকাল সাড়ে নয়টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত টেকনাফ উপজেলায় শাহপরীরদ্বীপে দুটি ও সাবরাং নয়া পাড়া ১টিসহ মোট ৩টি ভেলায় ১৮০ জন রোহিঙ্গা অনুপৎুবেশ করে। তারমধ্যে ৯৪ জন শিশু, ৪৯ নারী এবং ৩৭ পুরুষ ছিল।
এদিকে একটি সুত্রে জানা যায়, ভেলায় ভেসে আসা রোহিঙ্গাদের লক্ষ্য করে কয়েকটি ভেলায় বিজিপি হামলা করেছে। হামলায় মোঃ শাকের, তার ছেলে ইলিয়াছ ও মোঃ ছালেহ আহত হয়েছে। এরা সকলে রাখাইনের বুছিডং খোইয়াংসং এলাকার বাসিন্দা। তারা জানায়, রাখাইনের সীমান্তের ধংখালী বালুচরে ১০ হাজারের অধিক রোহিঙ্গা এখনো এপারে আসার জন্য অপেক্ষায় আছে। প্লাষ্টিক জার, বাঁশ সংগ্রহ করে তারাও ভেলা তৈরী করছে।
এদিকে উপজেলার বিভিন্ন সীমান্ত পয়েন্টে দিয়ে বুধবার ৮ নভেম্বর দিবাগত রাত ৮টা থেকে বৃহস্পতিবার (৯ নভেম্বর) সকাল ৬টা পর্যন্ত নতুন করে আরও ৭৩১ জন রোহিঙ্গা অনুপ্রবেশ করে। পরে তাদের সেনাবাহিনীর ত্রাণ কেন্দ্রের মাধ্যমে উখিয়ার বালুখালী রোহিঙ্গা শিবিরে পাঠানো হয়েছে।
ভেলায় করে অনুপ্রবেশ করা রোহিঙ্গা আবদুল মজিদ বলেন, ‘মিয়ানমার থেকে বাংলাদেশে আসার জন্য নৌকা পাওয়া যাচ্ছেনা। তাই প্লাস্টিকের জারিকেন, কাঠের তক্তা ও রশি দিয়ে ভেলা বানিয়ে চলে এসেছি। মিয়ানমার সীমান্তে অপেক্ষমান রোহিঙ্গারা আরও ১২-১৫টি নতুন করে ভেলা তৈরি করছেন। বুধবার ৮ নভেম্বর একটি ভেলায় পরীক্ষামূলক ভাবে ভাসিয়ে আসতে পারায় এখন রোহিঙ্গারা ভেলার সাহায্যে পাড়ি দিচ্ছে’। রোহিঙ্গারা আরও বলেন ‘ভেলা ভাসানোর আগে খুবই ঝুঁকিপূর্ণ মনে হয়েছিল। শিশুদের নিয়ে চিন্তায় থাকতে হয় বেশি। জোয়ারের সঙ্গে তাল মিলিয়ে নারী, পুরুষরা বৈঠার সহযোগিতায় পৌছাতে পেরেছি’।
সাবরাং হারিয়াখালী সেনা ত্রাণ কেন্দ্রে জেলা প্রশাসকের প্রতিনিধি হিসাবে দায়িত্বে নিয়োজিত টেকনাফ উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা মো. আলমগীর কবির বলেন ‘উপজেলার বিভিন্ন এলাকা দিয়ে নতুন অনুপ্রবেশকারী ১৬০ পরিবারের ৭৩১ জন রোহিঙ্গাকে ত্রাণ সামগ্রী দিয়ে উখিয়ার বালুখালী রোহিঙ্গা ক্যা¤পে পাঠানো হয়েছে’। সাবরাং বিওপির কোম্পানি কমান্ডার আতিকুর রহমান জানান, ভেলায় আসা রোহিঙ্গাদের বিষয়ে উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নির্দেশে পরবর্তী ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।
টেকনাফ ২ বিজিবির অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্ণেল এসএম আরিফুল ইসলাম বলেন ‘ভেলায় করে আসা রোহিঙ্গাদের জড়ো করে মানবিক ও খাদ্য সহায়তা দিয়ে সেনা বাহিনীর মাধ্যমে উখিয়ার বালুখালী রোহিঙ্গা ক্যাম্পে পাঠানো হচ্ছে’।

এই বিভাগের আরও খবর

  কক্সবাজারে পাহাড়ি ঝোপে অজ্ঞাত ব্যক্তির লাশ

  টেকনাফে নিখোঁজের ১৯ দিন পর রোহিঙ্গা ডাকাতের মস্তকবিহীন লাশ উদ্ধার

  টেকনাফে ২শ ৮৬কোটি টাকার মাদকদ্রব্য ধ্বংস

  টেকনাফে পাহাড়ি সড়কে গণপরিবহনে দুর্ধর্ষ ডাকাতি

  টেকনাফে এক মাসেই ৬ কোটি ৭৪ লাখ টাকার মাদক ও চোরাইপণ্য জব্দ

  টেকনাফে মাদকবিরোধী অভিযানে আটক ১৫ জনকে সাজা

  রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধানে যুক্তরাজ্য মিয়ানমারের উপর চাপ দিচ্ছে-মার্ক ফিল্ড

  ভারি র্বষণে ক্ষতিগ্রস্তদের জন্য ২০০ টন চাল বরাদ্দ

  কক্সবাজারে মাদক বিক্রেতাকে ১৫ বছরের কারাদণ্ড

  টেকনাফে পূর্ব শত্রুতার জেরে স্কুল ছাত্রকে হত্যা

  টেকনাফ সীমান্তে ৪টি স্বর্ণবারসহ যুবক আটক

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

আজকের প্রশ্ন

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল বলেছেন, চলমান মাদকবিরোধী অভিযানে তথ্য-প্রমাণের ভিত্তিতে কাজ হচ্ছে, এখানে কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না। বাস্তবে তা ঘটবে বলে মনে করেন?