মঙ্গলবার, ২৪ অক্টোবর ,২০১৭

Bangla Version
  
SHARE

বৃহস্পতিবার, ১২ অক্টোবর, ২০১৭, ০১:৪১:১৪

সাঁতার কেটে নদী পাড়ি দিয়ে ১১ রোহিঙ্গা বাংলাদেশে

সাঁতার কেটে নদী পাড়ি দিয়ে ১১ রোহিঙ্গা বাংলাদেশে

মুহাম্মদ জুবাইর, টেকনাফঃ-মিয়ানমারের সেনাবাহিনীর নির্যাতন থেকে বাঁচতে জীবনের চরম ঝুঁকি নিয়ে সাঁতার কেটে নাফ নদী পাড়ি দিয়ে ১১ রোহিঙ্গা বাংলাদেশে এসেছে। এর মধ্য ১৫ বছরের নিচে তিন শিশু রয়েছে।
বুধভার (১১ সেপ্টেম্বর) সকাল ৯টা ৩০ মিনিটের দিকে বাংলাদেশ কোস্ট র্গাড বাংলাদেশের সীমান্ত থেকে তাদের কে উদ্ধার করে টেকনাফের  শাহ পরীর দ্বীপ জেটিতে নিয়ে আসে।
সাতাঁর কেটে আসা যুবক হামিদ হোছেন বলেন তারা ১১ জন যুবক সকাল ৭টার সময় মিয়ানমার সীমান্ত থেকে সাঁতার কাটা শুরু করে।
এরা মিয়ানমারের নাইক্ষ্যংদিয়া থেকে নৌযান না পেয়ে সাঁতার কেটে বাংলাদেশে আসছিল। টানা ৭/৮ ঘণ্টা তাদের সাঁতার কাটতে হয়।
কোস্টগার্ডের শাহপরীর দ্বীপ স্টেশনেরর কমান্ডার লে. জাফর ইমাম সজীব জানান তেলের হলুদ রংয়ের খালি গ্লেন নিয়ে সাঁতার কেটে ১১ জন বাংলাদেশে ঢোকার চেষ্টা করছিলেন। এর মধ্য পাঁচ জন নাফ নদীর পাড়ের কাছাকাছি চলে আসলেও অপর ছয় জন দূরে ছিলেন এবং তারা ক্লান্ত হয়ে যান। কোস্টগার্ডের টহল দল তাদের দেখে উদ্ধার করে নিয়ে আসে।
এদের চিকিৎসা এবং রোহিঙ্গা ক্যাম্পে প্রেরণ করতে বিজিবিব কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে বলে ও জানান।

এই বিভাগের আরও খবর

  ন্যায়বিচারের স্বার্থে রোহিঙ্গাদের পাশে দাঁড়ান-রানি রানিয়া

  টেকনাফে রোহিঙ্গাদের হামলায় পুলিশ কর্মকর্তা আহত

  ভুখন্ড রক্ষা ও মানুষের ভোগান্তি লাঘবে সরকার নিরলসভাবে কাজ করছে-এমপি বদি

  অবশেষে শাহপরীরদ্বীপবাসীর দাবী বিধ্বস্থ বেড়িবাঁধ বাস্তবায়নের পথে

  একদিনে আরো অর্ধলক্ষাধিক রোহিঙ্গার প্রবেশ

  টেকনাফে আবার ও নৌকা ডুবি ১১মৃতদেহ উদ্ধারঃ নিখোঁজ-৩৮

  রোহিঙ্গা ক্যাম্পে বন্যহাতির আক্রমণ, একই পরিবারে নিহত-৪, আহত-২

  টেকনাফে আরও এক রোহিঙ্গার লাশ উদ্ধার

  টেকনাফে ফের সাড়ে ২৮ হাজার মালিক বিহীন ইয়াবা উদ্ধার

  সাঁতার কেটে নদী পাড়ি দিয়ে ১১ রোহিঙ্গা বাংলাদেশে

  টেকনাফে নৌকা ডুবি: আরও ১১ রোহিঙ্গার লাশ উদ্ধার

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

আজকের প্রশ্ন

জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী বলেছেন, বাংলাদেশ সম্পূর্ণ মানবিক কারণে রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দিলেও এখন এটা বাংলাদেশের জন্য বোঝা হয়ে দাঁড়িয়েছে। আপনি কি তার এ বক্তব্যের সঙ্গে একমত?