সোমবার, ১৬ জুলাই ,২০১৮

Bangla Version
  
SHARE

বুধবার, ০৯ আগস্ট, ২০১৭, ০৩:০৪:৪০

চট্টগ্রামে শিক্ষার্থীর চোখে বেত্রাঘাত, শিক্ষক কারাগারে

চট্টগ্রামে শিক্ষার্থীর চোখে বেত্রাঘাত, শিক্ষক কারাগারে

চট্টগ্রামঃ-চট্টগ্রাম নগরীর বেপজা স্কুল অ্যান্ড কলেজের অষ্টম শ্রেণির এক শিক্ষার্থীকে পিটিয়ে জখমের অভিযোগে স্কুল শিক্ষককে আদালতের নির্দেশে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।
মঙ্গলবার (৮ আগস্ট) বেপজা স্কুল অ্যান্ড কলেজের গণিতের শিক্ষক আরিফ বিল্লাহকে (৪৫) কারাগারে পাঠানো হয়।
সোমবার (৭ আগস্ট) বেপজা স্কুল অ্যান্ড কলেজের অষ্টম শ্রেণির শিক্ষার্থী মাশরাফুল আল কারীর পিতা আদালতে অভিযোগ দায়ের করেন। ওই অভিযোগটি চট্টগ্রাম চতুর্থ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট হারুন অর রশিদ এফআইআর হিসেবে গ্রহণ করার জন্য ইপিজেড থানা পুলিশকে নির্দেশ দেন। পরে পুলিশ অভিযুক্ত শিক্ষককে গ্রেফতার করে আদালতে পাঠালে তাকে মঙ্গলবার কারাগারে প্রেরণ করা হয়।
মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ইপিজেড থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) আবু সায়েম এ তথ্য জানান। তিনি বলেন, ‘অভিযুক্ত শিক্ষকের নাম আরিফ বিল্লাহ। তিনি বেপজা স্কুল অ্যান্ড কলেজের গণিতের শিক্ষক। এই শিক্ষকের বেত্রাঘাতের কারণে মাশরাফুল বাম চোখের দৃষ্টিশক্তি হারাতে বসেছে বলে অভিযোগ করেছেন মাশরাফুলের বাবা।’
অভিযোগপত্রে শিক্ষকের বেত্রাঘাতের ফলে মাশরাফুলের বাম চোখে মারাত্মক জখম হয়েছে বলে উল্লেখ করা হয়।
জখমের কারণে তার বাম চোখটি নষ্ট হয়ে যেতে পারে বলে আশংকা প্রকাশ করা হয়েছে।

এই বিভাগের আরও খবর

  চট্টগ্রামে আবাসিক হোটেল থেকে ২৫ রাউন্ড গুলিসহ একজন গ্রেফতার

  চট্টগ্রামের বাশঁখালীতে চলন্ত ট্রাকে আগুন, নিহত-৩

  চট্টগ্রামে বেসরকারি হাসপাতালের ধর্মঘট স্থগিত

  সাংবাদিক কন্যা রাইফা 'হত্যাকাণ্ড': গাফেলতি অবহেলার প্রমাণ পেয়েছে তদন্ত কমিটি

  সাংবাদিকদের কর্মসূচিতে সম্পাদক ও পেশাজীবীদের সংহতি

  চন্দনাইশে ব্রিজের র‌্যালিং ভেঙ্গে ট্রাক খালে

  চট্টগ্রামে ম্যানহোলে কিশোর, ২ ঘণ্টা পর উদ্ধার

  টানা বৃষ্টিতে চট্টগ্রাম-রাঙ্গামাটি সড়ক যোগাযোগ বন্ধ

  রাউজানে পানিবন্দী লাখো মানুষের পাশে ফজলে করিম চৌধুরী

  চট্টগ্রামে ভুল চিকিৎসায় শিশুর মৃত্যু, তিন দফা দাবি সিইউজের

  চট্টগ্রামে ভুল চিকিৎসায় শিশু মৃত্যুর ঘটনার তদন্ত শুরু

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

আজকের প্রশ্ন

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল বলেছেন, চলমান মাদকবিরোধী অভিযানে তথ্য-প্রমাণের ভিত্তিতে কাজ হচ্ছে, এখানে কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না। বাস্তবে তা ঘটবে বলে মনে করেন?