সোমবার, ১৬ সেপ্টেম্বর ,২০১৯

Bangla Version
  
SHARE

বৃহস্পতিবার, ১২ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ০৭:১৫:১৭

চট্টগ্রাম বিআরটিএ কার্যালয় থেকে পাঁচ দালাল আটক

চট্টগ্রাম বিআরটিএ কার্যালয় থেকে পাঁচ দালাল আটক

চট্টগ্রামঃ-চট্টগ্রাম নগরের বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষের (বিআরটিএ) বিভাগীয় অফিসে অভিযান চালিয়ে পাঁচ দালালকে আটক করা হয়েছে। বুধবার সন্ধ্যায় আটক পাঁচ দালালকে কারাদণ্ড দেন বিআরটিএ নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট এস এম মনজুরুল হক।
দণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন- হাটহাজারী থানার খন্দাকিয়া গ্রামের ইউনুচ নগর এলাকার মো. সরোয়ারের ছেলে মো. ইমরান। একই এলাকার মৃত মো. ইসহাকের ছেলে মো. আরমান, হাটহাজারী থানার দক্ষিণ পাহাড়তলী ফতেয়াবাদ এলাকার মৃত আব্দুল মালেকের ছেলে জাহেদুল ইসলাম রনি, একই এলাকার মো. জানে আলমের ছেলে মো. বেলাল হোসেন এবং হাটহাজারী থানার শিকারপুর ইউনুচ নগর এলাকার মৃত বাবুল বিশ্বাসের ছেলে সাজু বিশ্বাস। এ সময় র‌্যাব ও পুলিশের সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।  
বিএআরটিএর নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট এস এম মনজুরুল হক বলেন, বিআরটিএতে দালালের তৎপরতা বেড়েছে বলে বেশ কয়েকজন সেবা গ্রহিতাদের অভিযোগ ছিল। তারই প্রেক্ষিতে বুধবার সকালে কার্যালয়ে অভিযান চালিয়ে হাতেনাতে পাঁচ দালালকে আটক করা হয়। পরে তাদেরকে বিভিন্ন মেয়াদে সাজা প্রদান করা হয়েছে। সেবা নিতে আসা মানুষদের কোন প্রকার হয়রানি সহ্য করা হবে না। এ অভিযান আগামীতে অব্যাহত থাকবে।

এই বিভাগের আরও খবর

  অতি ভারী বর্ষণে চট্টগ্রাম বিভাগে ভূমিধসের শঙ্কা

  চট্টগ্রাম বিআরটিএ কার্যালয় থেকে পাঁচ দালাল আটক

  চট্টগ্রামের ফটিকছড়ির ত্রিপুরা পল্লীতে হামে আক্রান্ত ১১ শিশু

  চট্টগ্রামে বাংলাদেশি পাসপোর্ট পরিচয়পত্রসহ সাত রোহিঙ্গা গ্রেফতার

  চট্টগ্রামে বিএনপি-জামায়াতের ৪৫৩ নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন

  চট্টগ্রামে নতুন করে আরো ৩১ ডেঙ্গু রোগী শনাক্ত

  চট্টগ্রামে গৃহবধূর ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার

  কোরবানির পশুর বর্জ্য অপসারণে প্রস্তুত চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন

  চট্টগ্রামের কোরবানির বাজারে অতিরিক্ত পশু, নেই কোন সঙ্কট

  সাবেক মেয়র মহিউদ্দিন চৌধুরীর কবরে সাবেক ছাত্র নেতা সহকারী এ্যটর্ণি জেনারেল এডভোকেট এস.আর সিদ্দিকী সাইফের পুষ্পস্তপক অর্পণ

  বছর জুড়ে চলবে এডিস মশার বিরুদ্ধে অভিযান- মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

আজকের প্রশ্ন

ডেঙ্গুতে মৃত্যুর সংখ্যা নিয়ে বিভ্রান্তির প্রেক্ষাপটে আইইডিসিআরের সাবেক পরিচালক মাহমুদুর রহমান বলছেন, মৃত্যুর ঘটনাগুলো ‘রিভিউ’ করার কোনো প্রয়োজন নেই, চিকিৎসকদের কথাই যথেষ্ট। আপনি কি তাকে সমর্থন করেন?