মঙ্গলবার, ২০ আগস্ট ,২০১৯

Bangla Version
  
SHARE

সোমবার, ২২ জুলাই, ২০১৯, ০৮:৪৪:৩৯

লালদিয়ার চরে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদে অভিযান শুরু

লালদিয়ার চরে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদে অভিযান শুরু

চট্টগ্রামঃ-অবশেষে শাহ আমানত বিমানবন্দর সড়কের লালদিয়ার চরে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদে অভিযান শুরু করেছে চট্টগ্রাম বন্দর কর্তৃপক্ষ। এখানকার ১৫ একর জায়গা উদ্ধার করে আমদানি-রফতানি পণ্য হ্যান্ডলিংয়ের জন্য নতুন পতেঙ্গা টার্মিনাল নির্মাণ করবে বন্দর কর্তৃপক্ষ। দীর্ঘদিন ধরে এই লালদিয়ার চরে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদে অভিযান শুরুর কথা থাকলেও এতোদিন তা হয়নি। সোমবার বন্দরের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট গৌতম বাড়ৈ এর নেতৃত্বে এ উচ্ছেদ অভিযান শুরু হয়।
তিনি জানান, আইনশৃঙ্খলা বাহিনী ও স্থানীয় জনগণের সহায়তায় অভিযান শুরু হয়েছে। ৬০ জন পুলিশ, ৩০ জন আনসার ও ৬০ জন শ্রমিক ও পর্যাপ্ত লংবুম ও বুলডোজার দিয়ে উচ্ছেদ কার্যক্রম শুরু হয়েছে।
এদিকে উচ্ছেদ অভিযানের নোটিশ পেয়ে অনেকে তাদের স্থাপনা নিজ উদ্যোগে সরিয়ে নিতে শুরু করেছে। উচ্ছেদকৃত জায়গায় লাল পতাকা টাঙিয়ে বন্দর কর্তৃপক্ষ তাদের এই জায়গা দখলে নেয়। কর্ণফুলী নদীর ১২-১৩ নম্বর ঘাটের মাঝখানের এই চরে অবৈধ দখলে থাকা ১৩০টি পরিবারকে উচ্ছেদ করা হবে বলে বন্দর সূত্রে জানা গেছে। যারা নিজ উদ্যোগে সরে যাচ্ছে না তাদের স্থপনা গুড়িয়ে দেওয়া হচ্ছে।

এই বিভাগের আরও খবর

  চট্টগ্রামে নতুন করে আরো ৩১ ডেঙ্গু রোগী শনাক্ত

  চট্টগ্রামে গৃহবধূর ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার

  কোরবানির পশুর বর্জ্য অপসারণে প্রস্তুত চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন

  চট্টগ্রামের কোরবানির বাজারে অতিরিক্ত পশু, নেই কোন সঙ্কট

  সাবেক মেয়র মহিউদ্দিন চৌধুরীর কবরে সাবেক ছাত্র নেতা সহকারী এ্যটর্ণি জেনারেল এডভোকেট এস.আর সিদ্দিকী সাইফের পুষ্পস্তপক অর্পণ

  বছর জুড়ে চলবে এডিস মশার বিরুদ্ধে অভিযান- মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন

  চট্টগ্রামেও ডেঙ্গুর প্রকোপ বাড়ছে

  'ফেসবুকে গুজবের নিউজ শেয়ার করলে মামলা'

  লালদিয়ার চরে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদে অভিযান শুরু

  চট্টগ্রাম বিমানবন্দরে আবারও হাজিদের টাকা চুরি

  চট্টগ্রাম বোর্ডে বাড়ছে জিপিএ ৫, কমেছে পাসের হার

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

আজকের প্রশ্ন

ডেঙ্গুতে মৃত্যুর সংখ্যা নিয়ে বিভ্রান্তির প্রেক্ষাপটে আইইডিসিআরের সাবেক পরিচালক মাহমুদুর রহমান বলছেন, মৃত্যুর ঘটনাগুলো ‘রিভিউ’ করার কোনো প্রয়োজন নেই, চিকিৎসকদের কথাই যথেষ্ট। আপনি কি তাকে সমর্থন করেন?