সোমবার, ২১ জানুয়ারী ,২০১৯

Bangla Version
SHARE

বুধবার, ০৯ জানুয়ারী, ২০১৯, ১২:৪৪:০০

চট্টগ্রামে পিটুনিতে যুবক নিহতের ঘটনায় গ্রেপ্তার-৪

চট্টগ্রামে পিটুনিতে যুবক নিহতের ঘটনায় গ্রেপ্তার-৪

চট্টগ্রামঃ-চট্টগ্রামের পতেঙ্গায় পিটুনিতে যুবকের মৃত্যুর ঘটনায় চারজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। জিজ্ঞাসাবাদে তাদের কাছে পাওয়া তথ্যের ভিত্তিতে পুলিশ কর্মকর্তারা বলছেন, পতেঙ্গার পূর্ব কাঠগড়ে চুরি করতে একটি বাড়িতে ঢুকেছে সন্দেহে ওই যুবককে পেটানো হয়।
পতেঙ্গার মাইজপাড়া এলাকার পুরাতন কন্ট্রোল মোড়ে গুরুতর আহত অবস্থায় পড়ে থাকা মোহাম্মদ ফারুক সোমবার ভোরে মারা যান। পিটুনিতে তার মৃত্যু হওয়ার কথা জানিয়েছিল পুলিশ।
পতেঙ্গা থানার ওসি উৎপল কুমার বড়ুয়া বলেন, সোমবার রাত থেকে মঙ্গলবার সকাল পর্যন্ত অভিযান চালিয়ে এ হত্যাকাণ্ডে জড়িত সন্দেহে মোহাম্মদ রাশেদ (৩৫), মামুনুর রশিদ (৩০), মেহাম্মদ সজিব (২০) ও মোহাম্মদ ইলিয়াছকে (৩২) গ্রেপ্তার করা হয়।
নগরীর উত্তর পতেঙ্গা এলাকায় নিহত ফারুকের একটি মোবাইল রিচার্জের দোকান আছে। তার বিরুদ্ধে পতেঙ্গা থানায় মোবাইল চুরির একটি মামলা রয়েছে। ওই মামলায় গ্রেপ্তার হয়েছিলেন তিনি।
ওসি উৎপল জানান, গ্রেপ্তার চারজন এবং নিহত ফারুক পতেঙ্গা থানার পূর্ব কাঠগড় এলাকার বাসিন্দা এবং একে অপরের পরিচিত। পুলিশ গোপন তথ্যের ভিত্তিতে প্রথমে রাশেদকে এবং পরবর্তীতে অপর তিনজনকে গ্রেপ্তার করে।
চট্টগ্রাম নগর পুলিশের কর্ণফুলী জোনের সহকারী কমিশনার জাহেদুল ইসলাম বলেন, নিহত ফারুক মোবাইল চোর। সে রোববার রাত আড়াইটার দিকে রাশেদের বাড়ির আঙিনায় প্রবেশ করতে চাইলে গ্রেপ্তার চারজনসহ মোট আট-দশজন যুবক তাকে আটক করে লাঠি, রড দিয়ে পিটুনি দেয়।
গুরুতর আহত ফারুককে সোমবার ভোরে পুরাতন কন্ট্রোল মোড়ের ফারুক স্টোর নামের দোকানের সামনে নিয়ে ফেলে রাখে আসামিরা।
গ্রেপ্তার চারজনই এ ঘটনার সাথে যুক্ত থাকার কথা স্বীকার করে আদালতে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দিয়েছে বলে জানান এসি জাহেদুল।
তারা বলেছে, চুরি করতে প্রবেশ করছে এমন ধারণার ভিত্তিতে ফারুককে আটক করে পিটুনি দেওয়া হয়।

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

আজকের প্রশ্ন

মন্ত্রিসভা থেকে পুরনোদের বাদ দেওয়াকে ভালো সিদ্ধান্ত বলেছেন সাবেক ডেপুটি গভর্নর খোন্দকার ইব্রাহিম খালেদ। আপনি কি তার সঙ্গে একমত?