সোমবার, ১৮ জুন ,২০১৮

Bangla Version
  
SHARE

বৃহস্পতিবার, ১৪ জুন, ২০১৮, ০৮:২৫:৩৩

চট্টগ্রামে ঝুঁকিপূর্ণ পাহাড় থেকে সরিয়ে নেওয়া হচ্ছে ১০০ পরিবারকে

চট্টগ্রামে ঝুঁকিপূর্ণ পাহাড় থেকে সরিয়ে নেওয়া হচ্ছে ১০০ পরিবারকে

চট্টগ্রামঃ-চট্টগ্রামে চলমান ভারী বর্ষণে ভূমিধসের দুর্ঘটনা রোধে ঝুঁকিপূর্ণ পাহাড়ে বসবাসরতদের সরিয়ে নিতে অভিযান শুরু করেছে জেলা প্রশাসন। বুধবার নগরীর একে খান পাহাড় ও বাটালি হিলের পিডব্লিউডি কলোনিস্থ এলাকায় ঝুঁকিপূর্ণভাবে বসবাসরত ১শটি পরিবারকে নিরাপদ স্থানে সরিয়ে নেওয়া হয়। এ ছাড়া অবৈধভাবে নির্মিত ৪৫টি টিনের তৈরি কাঁচাঘর উচ্ছেদ করা হয়েছে।
অভিযানে নেতৃত্ব দেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) মোঃ দেলোয়ার হোসেন। এ সময় সহকারী কমিশনার (ভূমি) আবদুল্লাহ আল মনসুরসহ পুলিশ, ওয়াসা, বিদ্যুৎ বিভাগের কর্মকর্তারা অভিযানে অংশ নেন।
অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) মো. দেলোয়ার হোসেন জানান, প্রবল বর্ষণে ভূমিধসের আশঙ্কায় ঝুঁকিপূর্ণ পাহাড় থেকে ১শ পরিবারকে সরিয়ে নেয়া হয়েছে। তাদের নগরীর বিভিন্ন স্থানে স্থাপিত অস্থায়ী আশ্রয়কেন্দ্রগুলোতে নিয়ে যাওয়া হয়েছে।
এদিকে পাহাড় ধসের দুর্ঘটনা রোধে অভিযান অব্যাহত থাকবে বলে জেলা প্রশাসন সূত্র জানিয়েছে। বৃহস্পতিবার দুপুর সাড়ে ১১টা থেকে জেলা প্রশাসকের নেতৃত্বে নগরীর মতিঝর্না, খুলশী, আকবর শাহ ও বায়েজিদ এলাকায় অভিযান পরিচালনা করা হয় বলে জানা গেছে।

এই বিভাগের আরও খবর

  চট্টগ্রাম বন্দর এলাকায় শক্তিশালী টর্নেডোর আঘাত, ১০জন আহত

  চট্টগ্রামে ঝুঁকিপূর্ণ পাহাড় থেকে সরিয়ে নেওয়া হচ্ছে ১০০ পরিবারকে

  চট্টগ্রামে বিদ্যুৎস্পৃষ্টে যুবকের মৃত্যু

  পানিতে ভাসছে চট্টগ্রাম শহরের নিম্নাঞ্চলঃ ঈদ বাজারে নাভিশ্বাস

  নকল সোনার বার বিক্রি চক্রের ৩ জন গ্রেফতার

  চট্টগ্রামে সিমেন্ট বোঝাই ট্রাক নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে নিহত-৩

  ছাত্রলীগ নেতা রনির জামিন

  চট্টগ্রামে অভিযানে ৭৫টি মোবাইল ও ৫ লাখ টাকা উদ্ধার

  চট্টগ্রামে অস্ত্রসহ ৬ ছিনতাইকারী গ্রেফতার

  চট্টগ্রামে ট্রাকের ধাক্কায় বিজিবি সদস্য নিহত ও গৃহবধূর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার

  ঈদে চট্টগ্রামে যানজট, জাল নোট ও আইনশৃঙ্খলা স্বাভাবিক রাখার জেলা প্রশাসনের তিন চ্যালেঞ্জ

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

আজকের প্রশ্ন

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল বলেছেন, চলমান মাদকবিরোধী অভিযানে তথ্য-প্রমাণের ভিত্তিতে কাজ হচ্ছে, এখানে কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না। বাস্তবে তা ঘটবে বলে মনে করেন?