মঙ্গলবার, ২৩ এপ্রিল ,২০১৯

Bangla Version
SHARE

সোমবার, ০৫ নভেম্বর, ২০১৮, ০২:১৫:৪০

চট্টগ্রামে এলএনজি সরবরাহ বন্ধঃ চরম গ্যাস সংকট

চট্টগ্রামে এলএনজি সরবরাহ বন্ধঃ চরম গ্যাস সংকট

চট্টগ্রামঃ-টেকনিক্যাল সমস্যায় গত শনিবার রাত থেকে চট্টগ্রামে এলএনজি সরবরাহ বন্ধ রয়েছে। এখন জাতীয় গ্রিড থেকে চট্টগ্রামে গ্যাস সরবরাহ দিয়ে পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখার চেষ্টা চালানো হচ্ছে। হঠাৎ এলএনজি সরবরাহ বন্ধ হয়ে যাওয়ায় চট্টগ্রামে চরম গ্যাস সংকট দেখা দিয়েছে। গ্যাস নির্ভর বিদ্যুৎ কেন্দ্রগুলোতে গ্যাস সরবরাহ বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। পাইপ লাইনে চাপ কমে যাওয়ায় শিল্প কারখানায় উৎপাদন ব্যাহত হচ্ছে। আবাসিক গ্রাহকরাও গ্যাস সংকটের কবলে পড়েছে। এলএনজি সরবরাহ কবে স্বাভাবিক হবে তা নিশ্চিত করে বলতে পারছেন না সংশ্লিষ্টরা।
সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, মহেষখালীতে এলএনজি টার্মিনালে সরবরাহের প্রক্রিয়ায় টেকনিক্যাল ত্রুটি দেখা দিয়েছে। ফলে শনিবার (৩ নভেম্বর) রাত ১টা থেকে চট্টগ্রামে এলএনজি সরবরাহ বন্ধ হয়ে যায়। টেকনিক্যাল সমস্যা এখনো চিহ্নিত করা সম্ভব হয়নি। বিশেষজ্ঞরা সমস্যা চিহ্নিত করার চেষ্টা চালাচ্ছেন। এলএনজি সরবরাহের পর থেকে চট্টগ্রামে দৈনিক ২৮০ থেকে ৩০০ মিলিয়ন ঘনফুট গ্যাস সরবরাহ দেওয়া হচ্ছিল। হঠাৎ করে সরবরাহ বন্ধ হয়ে যাওয়ায় বিপাকে পড়েছে সকল পর্যায়ের গ্রাহক।
জানা যায়, বর্তমানে জাতীয় গ্রিড থেকে চট্টগ্রামে ২০০ মিলিয়ন ঘনফুট গ্যাস সরবরাহ দেওয়া হচ্ছে। অথচ এতোদিন এলএনজিসহ চট্টগ্রামে ৩৭০/৩৮০ মিলিয়ন ঘনফুট গ্যাস সরবরাহ দেওয়া হতো। কর্ণফুলী গ্যাস কোম্পানির এক শীর্ষ কর্মকর্তা জানান, এলএনজি সরবরাহ কবে চালু হবে তা নিশ্চিত বলা যাচ্ছে না। এসব টেকনিক্যাল সমস্যা। চট্টগ্রামে জাতীয় গ্রিড থেকে যে পরিমাণ গ্যাস সরবরাহ দেওয়া হতো এলএনজি সরবরাহের পর তা দেশের অন্য এলাকায় বিতরণ করা হচ্ছে। ফলে ঐসব এলাকায় হঠাৎ করে সরবরাহ বন্ধ করা যাবে না। তাই সরবরাহ সমন্বয় করে চট্টগ্রামে গ্যাস সরবরাহ বাড়াতে সময় লাগবে।
এলএনজি বন্ধের কারণে রবিবার (৪ নভেম্বর) সকাল থেকে চট্টগ্রামে আবাসিক ও শিল্প কারখানায় গ্যাস সংকট বিরাজ করছে। পাইপ লাইনে চাপ কমে যাওয়ায় শিল্প কারখানায় উৎপাদন ব্যাহত হচ্ছে। গ্যাস কন্ট্রোল রুম জানায়, গ্যাস না পাওয়া ও চাপ কম থাকায় নগরীর বিভিন্ন এলাকা থেকে গ্রাহকদের অভিযোগ পাওয়া যাচ্ছে। দিনের বেলায় শিল্প কারখানা চালু থাকায় আবাসিক ও বাণিজ্যিক গ্রাহকদের চরম ভোগান্তি পোহাতে হয়েছে।
কর্ণফুলি গ্যাস কোম্পানি সূত্র জানায়, রবিবার সকাল থেকে চট্টগ্রামে গ্যাস নির্ভর বিদ্যুৎ কেন্দ্রগুলোতে সরবরাহ বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। এলএনজি সরবরাহের পর রাউজানের একটি ইউনিট ও শিকলবাহায় দু’টি ইউনিটে গ্যাস সরবরাহ দেওয়া হয়েছিল। এখন এই তিনটি ইউনিটে বিদ্যুৎ উৎপাদন বন্ধ হয়ে গেছে। এই তিনটি ইউনিট থেকে দৈনিক প্রায় ৫৫০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন করা হতো। তবে সিইউএফএল ও কাফকোতে গ্যাস সরবরাহ অব্যাহত রয়েছে।
পিডিবি কন্ট্রোল রুম জানায়, রবিবার দিনে চট্টগ্রামে বিদ্যুৎ কেন্দ্রগুলো থেকে ৫৫২ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন হয়েছে। স্থানীয়ভাবে উৎপাদন কমে যাওয়ায় নগরীর বিভিন্ন স্থানে লোডশেডিং করতে হয়েছে।

এই বিভাগের আরও খবর

  নগরীর আসাদগঞ্জে গোলাগুলি পুলিশসহ আহত-৮

  কানাডা-যুক্তরাষ্ট্রে পাঠানোর নামে ৮ কোটি টাকা নিয়ে উধাও প্রতারক চক্র

  যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত মিলারের চট্টগ্রাম সফরঃ দ্বিপক্ষীয় বাণিজ্য ও বিনিয়োগ, সামরিক সহযোগিতার উপর গুরুত্বারোপ

  রমজানে পণ্যে ভেজাল করলে কঠোর ব্যবস্থা-সচিব মো. মফিজুল ইসলাম

  পাহাড় ধ্বসের ব্যাপারে এবার সংশ্লিষ্ট দপ্তরকে দায়ী করা হবে, কাউকে ছাড় দেয়া হবে না-মো. আব্দুল মান্নান

  চট্টগ্রামে ১৫ মের মধ্যে পাহাড়ে উচ্ছেদ, ৩০ এপ্রিলের মধ্যে বিদ্যুৎ-গ্যাস বন্ধ

  চট্টগ্রামের বেশ কয়েকটি এলাকায় মৃদু ভূমিকম্প

  বর্ষবিদায়-বরণকে ঘিরে উৎসবমুখর বন্দরনগরী

  নুসরাত হত্যার প্রতিবাদে চট্টগ্রামে বিক্ষোভ

  বর্ষবরণ ঘিরে চট্টগ্রামে জেলা পুলিশের নিরাপত্তা জোরদার

  নিরাপত্তা মানেই তল্লাশি, সাময়িক বিড়ম্বনা মেনে নিন-সিএমপি কমিশনার

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

আজকের প্রশ্ন

লন্ডনে থেকে দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান বিএনপির পুনর্গঠনের কাজ শুরু করেছেন জানিয়ে দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, অল্প সময়ের মধ্যেই বিএনপি আবার উঠে দাঁড়াবে। আপনি কি তা মনে করেন?