বৃহস্পতিবার, ১৯ জুলাই ,২০১৮

Bangla Version
SHARE

সোমবার, ০৯ এপ্রিল, ২০১৮, ০২:৪০:১১

চট্টগ্রামে বাড়ছে গ্যাস সিলিন্ডার দুর্ঘটনাঃ লিকেজ ও ব্যবহারকারীদের অসচেতনতা

চট্টগ্রামে বাড়ছে গ্যাস সিলিন্ডার দুর্ঘটনাঃ লিকেজ ও ব্যবহারকারীদের অসচেতনতা

চট্টগ্রামঃ-চট্টগ্রাম মহানগরীসহ আশেপাশে বাসা-বাড়ি, দোকানপাট ও বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠানে গ্যাস সিলিন্ডার দুর্ঘটনা আশঙ্কাজনক হারে বাড়ছে। চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটের সংশ্লিষ্ট সূত্রগুলোর মতে অগ্নিদগ্ধ হয়ে এখানে যেসব সংকটাপন্ন মানুষ চিকিৎসা নিতে আসছে তাদের মধ্যে গ্যাস সিলিন্ডার দুর্ঘটনায় আহতরাও রয়েছে।
বিশেষজ্ঞরা বলছেন, মহানগরীসহ আশেপাশের অঞ্চলে গ্যাস সিলিন্ডারের আগুনে দগ্ধ হয়ে হতাহতের যে ঘটনা ঘটছে সেটিকে দুর্ঘটনা বলা যাবে। কিন্তু সিলিন্ডারের বিস্ফোরণ বলা যাবে না। আর এসব দুর্ঘটনার কারণ হচ্ছে সিলিন্ডার থেকে গ্যাস লিকেজ এবং ব্যবহারকারীদের অসচেতনতা।
নগরীতে বর্তমানে উল্লেখযোগ্য সংখ্যক আবাসিক, বাণিজ্যিক ও অন্যান্য প্রতিষ্ঠানে গ্যাস ভর্তি সিলিন্ডার ব্যবহার করা হয়। নগরীর গ্যাস বিপণনকারী ডিলারদের মতে গ্যাসের বিপুল চাহিদার মুখে ৭০/৭৫ শতাংশ গ্রাহক বাংলাদেশ পেট্রোলিয়াম কর্পোরেশন উত্পাদিত গ্যাস সিলিন্ডার এবং বাকি ২৫/৩০ শতাংশ গ্রাহক বেসরকারি গ্যাস কোম্পানিগুলোর সিলিন্ডার ব্যবহার করে থাকে।
গ্যাস সিলিন্ডার দুর্ঘটনা বৃদ্ধি এবং এ কারণে চট্টগ্রামে বিভিন্ন সময় হতাহতের ঘটনা বৃদ্ধির বিষয়টিকে দুঃখজনক আখ্যায়িত করে চট্টগ্রামস্থ বিস্ফোরক অধিদপ্তরের পরিচালক তোফাজ্জল হোসেন বলেন, মহানগরী ও আশেপাশের এলাকাগুলোতে গত ক’বছরে যে কয়টি গ্যাস সিলিন্ডার দুর্ঘটনা ঘটেছে তার সবগুলোই তদন্ত করে দেখেছেন বিস্ফোরক অধিদপ্তরের কর্মকর্তা। এসব তদন্তে দেখা গেছে, নগরীতে গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণের ঘটনা এ যাবত দু’টি সংঘটিত হয়েছে। এসব ঘটনার একটি হয়েছে নাসিরাবাদে সিএনজি ফিলিং স্টেশনে। অপরটি সংঘটিত হয়েছে মহেশখালীর আদিনাথ মন্দির মেলায় বেলুন ফুলানোর হাইড্রোজেন গ্যাস সিলিন্ডার ফেটে। তিনি বলেন, গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণের অর্থ হলো- সিলিন্ডারটি ফেটে টুকরো টুকরো হয়ে যাবে। টুকরোগুলো আগুনের লেলিহান শিখার ভিতর দিয়ে চারদিকে বোমার স্প্লিন্টারের মতো ক্ষয়ক্ষতি ঘটাবে। কিন্তু বাসা-বাড়ি, দোকানপাটে গ্যাস সিলিন্ডার দুর্ঘটনার যেসব খবর বিস্ফোরণ হিসাবে প্রকাশ পাচ্ছে, সেগুলোর বেশির ভাগই সিলিন্ডার থেকে নানাভাবে লিকেজের কারণে গ্যাস থেকে সৃষ্ট অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা। এসব দুর্ঘটনাও ব্যাপক হতাহতের ঘটনা ও সম্পদহানি ঘটাচ্ছে।
বিস্ফোরক অধিদপ্তরের পরিচালক আরো বলেন, সরকারি হোক কিংবা বেসরকারি হোক, গ্যাস সিলিন্ডারের মাথায় লাগানো রেগুলেটর ব্যবহারে অজ্ঞতা-অসচেতনতা এবং অনেক সময় সিলিন্ডারের ভাল্বের ত্রুটি ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটাচ্ছে। তিনি বলেন, জ্বালানি হিসেবে গ্যাস সিলিন্ডার সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠানগুলোকে অবশ্যই গ্রাহকদের সচেতনতা বৃদ্ধির উদ্যোগ নিতে হবে। দেখা গেছে, শিক্ষিত-অশিক্ষিত বহু পরিবার চুলার পাশেই গ্যাস সিলিন্ডার রেখে তা ব্যবহার করছে। ফলে চুলার উত্তাপে ভাল্ব-রেগুলেটর ক্ষতিগ্রস্ত হয়ে লিকেজ থেকে ঘটছে অগ্নিকাণ্ড। তিনি আরো বলেন, গণসচেতনতা ও সাবধানতাই গ্যাস সিলিন্ডার দুর্ঘটনা থেকে বাঁচার একমাত্র উপায়। রাস্তাঘাটে, ফুটপাতে অনিরাপদভাবে গ্যাস সিলিন্ডার বসিয়ে ভাজাপোড়া, চা ও নানা রকম পথখাদ্য প্রস্তুত করাটাকেও তিনি উদ্বেগজনক বলে আখ্যায়িত করেন।
টিআইবি’র জাতীয় পর্ষদ সদস্য বিশিষ্ট প্রকৌশলী দেলোয়ার হোসেন মজুমদার বলেন, সিলিন্ডার বিস্ফোরিত হয় না একথা ঠিক নয়। পুরনো, পুরুত্ব ক্ষয়ে যাওয়া সিলিন্ডার যথাসময়ে পরীক্ষা না করা এবং সরিয়ে না নেয়ার কারণে বিস্ফোরিত হয়ে ভেঙে যাওয়ার ঘটনা ঘটছে। আবার লিকেজ থেকে অগ্নিকাণ্ড হচ্ছে। এক্ষেত্রে তিনি বহুতল ভবনে গ্যাস সিলিন্ডার ব্যবহারে ব্যাপক সতর্কতা গ্রহণের আহবান জানান।

এই বিভাগের আরও খবর

  রাইফা হত্যায় চারজনকে অভিযুক্ত করে এজাহার

  বেপরোয়া হয়ে যাওয়া পুলিশ সদস্যদের লাগাম টেনে ধরুন-চট্টগ্রাম ডিআইজি

  চট্টগ্রামে আবাসিক হোটেল থেকে ২৫ রাউন্ড গুলিসহ একজন গ্রেফতার

  চট্টগ্রামের বাশঁখালীতে চলন্ত ট্রাকে আগুন, নিহত-৩

  চট্টগ্রামে বেসরকারি হাসপাতালের ধর্মঘট স্থগিত

  সাংবাদিক কন্যা রাইফা 'হত্যাকাণ্ড': গাফেলতি অবহেলার প্রমাণ পেয়েছে তদন্ত কমিটি

  সাংবাদিকদের কর্মসূচিতে সম্পাদক ও পেশাজীবীদের সংহতি

  চন্দনাইশে ব্রিজের র‌্যালিং ভেঙ্গে ট্রাক খালে

  চট্টগ্রামে ম্যানহোলে কিশোর, ২ ঘণ্টা পর উদ্ধার

  টানা বৃষ্টিতে চট্টগ্রাম-রাঙ্গামাটি সড়ক যোগাযোগ বন্ধ

  রাউজানে পানিবন্দী লাখো মানুষের পাশে ফজলে করিম চৌধুরী

আজকের প্রশ্ন

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল বলেছেন, চলমান মাদকবিরোধী অভিযানে তথ্য-প্রমাণের ভিত্তিতে কাজ হচ্ছে, এখানে কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না। বাস্তবে তা ঘটবে বলে মনে করেন?