মঙ্গলবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ,২০১৮

Bangla Version
  
SHARE

সোমবার, ০৮ জানুয়ারী, ২০১৮, ০৭:৫৬:১২

হাটহাজারীতে ২০০ বছরের পুরনো দীঘি ভরাট বন্ধ করলেন ইউএনও

হাটহাজারীতে ২০০ বছরের পুরনো দীঘি ভরাট বন্ধ করলেন ইউএনও

চট্টগ্রামঃ-হাটহাজারীর ঐতিহ্যবাহী প্রায় ২শত বছর পুরনো ধোপার দীঘি ভরাট করে পাকা স্থাপনা নির্মাণ বন্ধ করলেন হাটহাজারী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আক্তার উননেছা শিউলী।
পরিবেশ অধিদপ্তের কোন ছাড়পত্র না নিয়ে দীঘি ভরাট করায় সোমবার (৮ জানুয়ারী) বিকাল ৩টায় ভ্রাম্যামাণ আদালত পরিচালনা করে তিনি এ নির্মাণকাজ বন্ধ করেন। এ সময় স্থাপনা নির্মাণের বেশ কিছু লোহার রড, গাছের খুঁটি জব্দ করে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান হাসান জামান বাচ্চুর জিম্মায় দেয়া হয়।
জানা যায়, হাটহাজারী-অক্সিজেন মহাসড়ক সংলগ্ন প্রায় ৫ একর বিশিষ্ট ঐতিহ্যবাহী ধোপার দীঘিটি দশ বছর পূর্বে মাটি দিয়ে ভরাট করে তিনভাগে বিভক্ত করে তিনটি জলাধার করে দীঘির মালিকরা। তখন পত্রপত্রিকায় লেখালেখি ও প্রশাসনিক ব্যবস্থায় ভরাট কাজ বন্ধ করা হয়। তবে গত ১০ দিন ধরে দীঘির মধ্যভাগের জলাধারটি সেচ করে সেখানে পাকা স্থাপনা নির্মাণ শুরু করা চিকনদণ্ডি ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান মো. ইকবাল। সংবাদ পেয়ে সোমবার বিকাল তিনটায় হাটহাজারী ইউএনও পুলিশ নিয়ে নির্মাণ কাজ বন্ধ করেন। 
এ সময় হাটহাজারী সহকারী কমিশনার (ভূমি) এসআর আরমান শাকিল, চিকনদণ্ডি ইউপি চেয়ারম্যান, থানার এসআই নিমাই চন্দ্র উপস্থিত ছিলেন।

এই বিভাগের আরও খবর

  চট্টগ্রামে পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত-৩

  চট্টগ্রামে সাড়ে তিন কোটি টাকার ইয়াবাসহ মডেল আটক

  কনটেইনার হ্যান্ডলিংয়ে রেকর্ড করেছে চট্টগ্রাম বন্দর

  সীতাকুণ্ড থেকে অজ্ঞাত যুবকের লাশ উদ্ধার

  মাদকাসক্ত নির্মূলের প্রতিবেদন দিতে সিএমপিকে নির্দেশ

  অবশেষে রেলের সেই শতকোটি টাকার জায়গা উদ্ধার

  ৫২৮ কোটি টাকায় চার লেন হচ্ছে চট্টগ্রাম-রাঙ্গামাটি সড়ক

  মামলার চূড়ান্ত প্রতিবেদন দাখিলঃ খুন নয়, আত্মহত্যা করেছে তাসফিয়া

  ভোরের কাগজ প্রতিনিধি সম্মেলনঃ শ্রেষ্ঠ কাগজ প্রতিবেদক হিসাবে রাঙ্গামাটির নন্দন দেবনাথ পুরস্কৃত

  চট্টগ্রামে পুলিশকে গুলি, আটক-৩

  চট্টগ্রামে প্রশ্ন ফাঁসঃ অভিভাবকের জিম্মায় ১১ শিক্ষার্থীর জামিন

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

আজকের প্রশ্ন

তত্ত্বাবধায়ক সরকার আমলে চালু হওয়া ‘না’ ভোট একাদশ সংসদ নির্বাচনের আগে গণপ্রতিনিধিত্ব আদেশ সংশোধনের উদ্যোগের মধ্যে পুনঃপ্রবর্তনের প্রস্তাব করেছে নাগরিক সংগঠন সুজন। আপনি কি তা সমর্থন করেন?