বুধবার, ২০ জুন ,২০১৮

Bangla Version
SHARE

রবিবার, ০৭ জানুয়ারী, ২০১৮, ০৮:১৯:৩৪

চট্টগ্রাম-রাঙ্গামাটি ও খাগড়াছড়ির মূল প্রবেশদ্বার হাটহাজারীতে অসহনীয় যানজটে, মানুষের ভোগান্তি

চট্টগ্রাম-রাঙ্গামাটি ও খাগড়াছড়ির মূল প্রবেশদ্বার হাটহাজারীতে অসহনীয় যানজটে, মানুষের ভোগান্তি

চট্টগ্রামঃ-চট্টগ্রামের হাটহাজারীতে ৮টি স্পটে নিত্যকার যানজটে নাকাল হাটহাজারীবাসী। স্পটগুলোর মধ্যে রয়েছে হাটহাজারী বাসস্টেশন, হাটহাজারী বাজারের ত্রিবেণী মোড়, হাটহাজারী কলেজ গেইট, সরকারহাট বাজার, ফতেয়াবাদ, চৌধুরীহাট, বড়দীঘির পাড় ও আমানবাজার। সরকার কয়েকশ' কোটি টাকা খরচ করে হাটহাজারী-অক্সিজেন মহাসড়ক চার লেনে উন্নীত করলেও যানজটের কারণে এর সুফল পাওয়া যাচ্ছে না।
ব্যস্ততম মহাসড়কে অবৈধ গাড়ী পার্কিং, দীর্ঘক্ষণ গাড়ি দাঁড় করিয়ে চালকদের যাত্রী উঠানো, হকারদের ফুটপাত দখল, মহাসড়ক দখল করে হাট-বাজার বসানো যানজটের মূল কারণ হিসেবে দেখা হচ্ছে।
জানা যায়, যানজট কমাতে কয়েকশ' কোটি টাকা ব্যয়ে হাটহাজারী-অক্সিজেন মহাসড়কের চার লেনে উন্নতকরণের কাজ শেষপ্রান্তে। তারপরেও হাটহাজারী বাসস্টেশন, ফতেয়াবাদ, চৌধুরীহাট, বড়দীঘির পাড় ও আমানবাজার এলাকায় যানজট নিত্যদিনের ব্যাপার। নগরমুখী বিভিন্ন মিনিবাস সার্ভিস, সিএনজি চালিত অটোরিকশা মহাসড়কে দাঁড়িয়ে যাত্রী উঠানোর কারণে যানজট থেকে মুক্তি পাচ্ছে না মহাসড়ক ব্যবহারকারীরা। আবার হাটহাজারী-খাগড়াছড়ি মহাসড়কে অতিরিক্ত যানবাহনের চাপে হাটহাজারী বাসস্টেশন থেকে হাটহাজারী বাজার ত্রিবেণী মোড় হয়ে মেডিকেল গেইট এলাকায় দীর্ঘ যানজট ব্যাপক জনদুর্ভোগ সৃষ্টি করে। সরকারহাট বাজারেও একই চিত্র।
এদিকে দুই পার্বত্য জেলা রাঙ্গামাটি ও খাগড়াছড়ির মূল প্রবেশদ্বার হাটহাজারী বাসস্টেশন বিষফোঁড়ায় পরিণত হয়েছে। ট্রাফিক পুলিশের কার্যকরী ব্যবস্থা না থাকায় হাটহাজারী বাসস্টেশন এলাকায় অসহনীয় যানজট লেগে থাকে। এ স্পটে নগরমুখী বাস যাত্রী উঠানো সম্পূর্ণ না হওয়া পর্যন্ত মহাসড়কে দীর্ঘক্ষণ দাঁড়িয়ে থেকে যানজট সৃষ্টি করে। একইভাবে সিএনজি চালিত অটোরিকশাও বিক্ষিপ্তভাবে দাঁড়িয়ে থেকে যাত্রী উঠানোয় ব্যস্ত থাকায় ব্যাপক যানজট সৃষ্টি হয়। বাসস্টেশন এলাকায় মহাসড়ক চার লেইনে উন্নীত হলেও দুটি লেন অবৈধ চাঁদের গাড়ী ও বিভিন্ন যানবাহন পার্কিং করে দখলে নিয়ে গেছে। যেখানে সরকারিভাবে নিবন্ধিত গাড়ী সামাল দিতে যেখানে ট্রাফিক পুলিশকে হিমশিম খেতে হয় সেখানে হাটহাজারী পৌর এলাকায় বিদ্যুৎখেকো অন্তত দেড় হাজার অবৈধ ব্যাটারি চালিত রিক্সা মহাসড়কে দাপিয়ে বেড়ায়। এটিও হাটহাজারী বাজার, কাচারী সড়ক, বাসস্টেশন, কলেজ রোড় এলাকায় ব্যাপক যানজট বৃদ্ধিতে প্রভাব ফেলছে। আবার মহাসড়ক সংলগ্ন আমানবাজার, লালিয়ারহাট, চৌধুরীহাট, হাটহাজারী বাজার, সরকারহাট বাজারে সাপ্তাহিক দুই বাজারবারে হাটবাজার বসানো, অবৈধ পার্কিং এর কারণেও যানজট সৃষ্টি হয়।
এদিকে গত কুরবানের ঈদ উপলক্ষে চট্টগ্রাম জেলা পুলিশের উদ্যোগে হাটহাজারী বাসস্টেশন এলাকায় একটি ট্রাফিক কন্ট্রোলিং বুথ বসানো হয়। এর ফলে অতিরিক্ত গাড়ীর চাপ থাকলেও ট্রাফিক ও থানা পুলিশের বাসস্টেশন এলাকায় যথাযথ মনিটরিং এর কারণে কোন যানজটও পরিলক্ষিত হয়নি। তবে কিছুদিন যেতে না যেতেই হঠাৎ বুথটি তুলে দেওয়ার কারণেই এখন হাটহাজারী বাসস্টেশন এলাকায় যানজট জনগণের নিত্যসঙ্গীতে পরিণত হয়েছে। স্থানীয়রা হাটহাজারী বাসস্টেশন এলাকায় একটি স্থায়ী ট্রাফিক কন্ট্রোলিং বুথের দাবি জানান।
সার্বিক বিষয়ে জানতে চাওয়া হলে হাটহাজারী মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. বেলাল উদ্দিন জাহাঙ্গীর বলেন, রবিবার (৭ জানুয়ারী) বিকালে হাটহাজারী উপজেলা অডিটোরিয়ামে চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসক, জেলা পুলিশ সুপার, হাটহাজারী, ফটিকছড়ি ও রাউজান উপজেলা ইউএনও দায়িত্বশীল ব্যক্তিবর্গ যানজট নিরসনে করণীয় নিয়ে সভার আয়োজন করা হয়েছে। সেখান থেকেই কার্যকরী সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হবে।

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

আজকের প্রশ্ন

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল বলেছেন, চলমান মাদকবিরোধী অভিযানে তথ্য-প্রমাণের ভিত্তিতে কাজ হচ্ছে, এখানে কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না। বাস্তবে তা ঘটবে বলে মনে করেন?