শুক্রবার, ২৪ মে ,২০১৯

Bangla Version
  
SHARE

শনিবার, ১১ মে, ২০১৯, ১২:১৩:৪৬

এটিএম শামসুজ্জামানকে বিদেশে নিতে চিকিৎসকদের সম্মতি

এটিএম শামসুজ্জামানকে বিদেশে নিতে চিকিৎসকদের সম্মতি

বিনোদন ডেস্কঃ-গুরুতর অসুস্থ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন কিংবদন্তি অভিনেতা এটিএম শামসুজ্জামান। বর্তমানে তাকে রাজধানীর গেণ্ডারিয়ার আজগর আলী হাসপাতালে লাইফ সাপোর্টে রাখা হয়েছে। এটিএম শামসুজ্জামান এখন খাদ্য গ্রহণ করতে পারছেন না। তার খাদ্যনালী চেপে গেছে। যার ফলে বর্ষীয়ান এই অভিনেতার শরীরের অবনতি ঘটেছে। তবে এই অবস্থায় তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য বিদেশে নিতে কোনও সমস্যা নেই। এটিএম শামসুজ্জামানের ছোট ভাই সালেহ জামান সেলিম শুক্রবার দুপুরে এ তথ্য জানিয়েছেন।
তিনি জানান, ‘শুক্রবার বেলা ১২টার দিকে এটিএম শামসুজ্জামানের শারীরিক অবস্থা সম্পর্কে খবর নিতে হাসপাতালে যান জাতীয় বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটের জাতীয় সমন্বয়ক সামন্ত লাল সেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বিশেষ সহকারী বিপ্লব বড়ুয়া ও সঙ্গীতশিল্পী রফিকুল আলম। তাদের সঙ্গে এটিএম শামসুজ্জামানের পরিবার ও হাসপাতালটির চিকিৎসক ডা. মতিউল ইসলামের মধ্যে বৈঠক হয়। তখন এটিএম শামসুজ্জামানকে বিদেশে নেওয়ার ব্যাপারে কোনো জটিলতা নেই বলে চিকিৎসকরা মত দিয়েছেন। তবে বিদেশে নেওয়া হবে কিনা সে ব্যাপারে কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি।’
সালেহ জামান সেলিম বলেন, ‘হাসপাতালের চিকিৎসকরা জানিয়েছেন ভাইকে বর্তমানে (এটিএম শামসুজ্জামান) ৩০-৩৫ ভাগ লাইফ সাপোর্ট দেওয়া হচ্ছে। তবে এমন অবস্থায় তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য বিদেশে নিতে কোনো সমস্যা নেই। আমরা পরিবারের পক্ষ থেকে তাকে বিদেশে চিকিৎসা করাতে চাই। তাই এখন আমরা প্রধানমন্ত্রীর অপেক্ষায় আছি। তিনি দেশে ফেরার পর সম্মতি দিলে ভাইকে বিদেশে নেওয়ার প্রক্রিয়া শুরু করতে পারবো।’
প্রসঙ্গত, গত ২৬ এপ্রিল রাতে গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় এটিএম শামসুজ্জামানকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরদিন সকালে তার পিত্তথলির একটি নালীতে সফল অস্ত্রোপচার হয়। তবে বর্ষীয়ান এই অভিনেতার শারীরিক অবস্থার অবনতি ঘটলে তাকে ৩০ এপ্রিল ও ৬ মে দুই দফায় লাইফ সাপোর্টে নেওয়া হয়।

এই বিভাগের আরও খবর

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

আজকের প্রশ্ন

ভোটের পর থেকে সংসদে না যাওয়ার ঘোষণা দিয়ে আসা মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, দলের নির্বাচিতদের শপথ নেওয়ায় সম্মতি দিয়ে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান সঠিক কাজটিই করেছেন। আপনি কি তার সঙ্গে একমত?