বুধবার, ১৫ আগস্ট ,২০১৮

Bangla Version
SHARE

রবিবার, ১১ ফেব্রুয়ারী, ২০১৮, ০৭:৫৩:৪৫

আজীবন গাইতে চায়-রুমায় কন্ঠশিল্পী জিংএংকিম

আজীবন গাইতে চায়-রুমায় কন্ঠশিল্পী জিংএংকিম

শৈহ্লাচিং মারমা, রুমাঃ-গানের প্রযোগিতায় অংশ গ্রহণ করতে হলে সব প্রস্তুতি নিয়ে যাওয়া উচিত যে কোন শিল্পীকে। তাই প্রতিযোগিরা নিজেকে প্রস্তুত করে রাখতে হবে। এতে প্রতিযোগির মনোবল শক্ত থাকে। প্রতিযোগিতায় অংশ নেয়ার সময়ও সব পরিবেশকে নিজের মতো করে আয়ত্বে নেয়া সম্ভব হয়। আর নিজ আয়ত্বে রেখে উপস্থাপন করতে পারলে-তো বিজয়ের মুকুট হতে পারে।
বম সম্প্রদায়ের মডেল ও কন্ঠশিল্পী জিংএংকিম বম এসব কথা বলেছেন। পাহাড়ের মেয়ে ২০বছর বয়সি শিল্পী জিংএংকিম ২০১৬সালে বম সম্প্রদায়ের যুব সংগঠন কেন্দ্রীয় টিকেপি‘র বার্ষিক কনভেশন উপলক্ষে আয়োজিত একক গান প্রতিযোগিতায় প্রথম স্থান অধিকার করে বিজয়ী মুকুট পায়। তাই এবার আমন্ত্রিত অতিথি শিল্পী হিসেবে কনভেশনে যোগ দিতে এসেছিল সে।
শনি ও রবিবার বান্দরবানের রুমায় বেথেল পাড়ায় কেন্দ্রীয় টিকেপি‘র আয়োজিত দুইদিনের ‘বার্ষিক কনভেশন’র তথ্য সংগ্রহ করতে গেলে মডেল এ শিল্পীর সঙ্গে এ প্রতিবেদকের কথা হয়।
রবিবার (১১ ফেব্রুয়ারী) দুপুরে বেথেল পাড়ার এক বাড়িতে আলোপকালে শিল্পী জিংএংকিম পাহাড়বার্তা‘কে বলেন সুষ্ঠু থেকে আজীবন গান করতে চাই। এজন্য শুধু অনুষ্ঠান বা কোনো প্রযোগিতায় নয়। সুযোগ পেলে নিজ বাড়িতেও নিয়মিত গান করি। অন্যদেরও উৎসাহ দিয়ে থাকি।
এবারের চলমান গান প্রতিযোগিতার সম্পর্কে বলেন অঞ্চলভিত্তিক ৮জন চূড়ান্ত পর্যায়ে বিজয়ী হয়ে কেন্দ্রীয় প্রতিযোগিতায় অংশ নিয়েছে। তবে দুইজনের চর্চা ভাল প্রস্তুতি লক্ষ্য করছি। বাকী ৬জন কিভাবে অঞ্চল ভিত্তিক চূড়ান্ত হয়েছে তাতো আমার পক্ষে বলা মুশকিল। তাই ভবিষ্যতে যেসব শিল্পী প্রতিযোগিতায় অংশ নেবে, তাদের সব প্রস্তুতি নিয়ে আসতে পরামর্শ দিতে চায় শিল্পী জিং।
অভিভাবকের আর্থিক দৈন্যতার কারণে জিংএংকিম পড়ালেখায় পঞ্চম শ্রেণির বেশি সুযোগ হয়নি। বেশি দুর পড়ালেখায় আগাতে না পারলেও গানের প্রতি মনোবল ছিল দুর্বল। তাই ছোট থাকতে রোমান হরফে লেখা নিজের বম ভাষায় যেকোনো গান অনর্গল গাইতেন। তার কন্ঠের গান মুগ্ধ হয়ে এক প্রবীণ শিল্পী রেমরুয়াতময় বম তাকে গান গাইতে উৎসাহ দিতেন। শুদ্ধ উচ্চারণ ও সুর কিভাবে ওঠা-নামা করে, তাও মাঝে মধ্যে বলে দেওয়ায় গানের প্রতি মনোবলের ঝোঁক বাড়তে থাকে। গানের প্রাতিষ্ঠানিক কোনো শিক্ষা হয়নি জিং‘র। তৃনমূল অবস্থায় থেকে বেড়ে উঠা এবং বম সমাজের ছোট-বড় সবার কাছে পরিচিত। সেই ২০১৬ সালে প্রতিযোগিতায়  বিজয়ী কন্ঠশিল্পী জিংএংকিম।
জিং‘র ব্যক্তিগত জীবনে অবিবাহিত। বাবা-জিংচুনুন বম, মা-রনিনপার বম। তিন বোন ও তিনভাইয়ের মধ্যে সে সবার বড়। বান্দরবানের রুমা উপজেলায় পাইন্দু ইউনিয়নের ফিয়াংপাদুং পাড়ায় জিং‘র জন্ম। সে গত বছর নভেম্বর মাসে পার্শ্ববর্তি মিজোরাম লংতালাই শহরে অনুষ্ঠিত ‘আন্তর্জাতিক চীন খ্রিষ্টিয়ান যুব কনভেশনে’ আমন্ত্রিত অতিথি শিল্পী হিসেবে যোগ দেন।

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

আজকের প্রশ্ন

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল বলেছেন, চলমান মাদকবিরোধী অভিযানে তথ্য-প্রমাণের ভিত্তিতে কাজ হচ্ছে, এখানে কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না। বাস্তবে তা ঘটবে বলে মনে করেন?