বুধবার, ১৩ ডিসেম্বর ,২০১৭

Bangla Version
SHARE

রবিবার, ০৮ অক্টোবর, ২০১৭, ০৯:১৮:২৮

বলিউডের কয়েকটি ব্যয়বহুল বিবাহবিচ্ছেদ সম্পর্কে অজানা কিছু তথ্য

বলিউডের কয়েকটি ব্যয়বহুল বিবাহবিচ্ছেদ সম্পর্কে অজানা কিছু তথ্য

সাংস্কৃতিক ডেস্কঃ-বলিউড তারকাদের জীবনের উত্থান-পতনের কাহিনিও কিন্তু কম নাটকীয় নয়। বলিউড তারকাদের ভক্তদের কাছে এসব তারকার ভালবাসা বা ঘর বাঁধার পাশাপাশি ঘর ভাঙার কাহিনিও আগ্রহের কেন্দ্রে থাকে।
বলিউডের নায়ক ও নায়িকাদের বিয়েতে খরচ নিয়ে নিয়ে যেমন মাতামাতি হয় অনেক বেশি, তেমনি বলিউডের অনেক বিচ্ছেদ বিয়ের খরচকেও ছাপিয়ে যায়। আমাদের আজকের আয়োজন তারকাদের আলোচিত বিবাহ বিচ্ছেদের খরচ নিয়ে।
১। হৃতিক রোশন-সুজান খান
সুজান খানের সঙ্গে ১৪ বছরের বিবাহিত জীবনে ইতি পড়ে ২০১৪ সালে। শোনা যায়, ৩৮০ কোটি টাকা খোরপোশ দিতে হয়েছিল অভিনেতাকে।
২। কারিশমা কাপুর-সঞ্জয় কাপুর
প্রায় ১৩ বছরের বিবাহিত জীবনের পর, স্বামী সঞ্জয় কাপুরের বাবার বাড়ি নিজের নামে করে নেন অভিনেত্রী। এর সঙ্গে নিজেদের সন্তানদের নামে যে ১৪ কোটি টাকার বন্ড কিনেছিলেন সঞ্জয়, তার মাসিক ইন্টারেস্টের ১০ লাখ টাকাও পান কারিশমা।
৩। আদিত্য চোপড়া-পায়েল চোপড়া
২০০৯ সালে স্ত্রী, পায়েল চোপড়ার সঙ্গে বিবাহবিচ্ছেদে, প্রচুর অঙ্কের টাকার সঙ্গে একটি বিশাল বাড়িও দিতে হয় আদিত্যকে।
৪। সাইফ আলি খান -অমৃতা সিং
২০০৫ সালে বিবাহবিচ্ছেদ হয় দুজনের। তখন সাইফ স্টার হননি। এক সাক্ষাৎকারে তিনি জানিয়েছিলেন, সেই অবস্থায়ও পাঁচ কোটি টাকা খোরপোষ দিতে হয়েছিল তাকে।
৫। ফারহান আখতার-অধুনা
 ১৫ বছরের সম্পর্কে ইতি টানেন এই দম্পতি। অধুনা তার দুই মেয়েকে নিয়ে নিজেদের বাড়িতেই থাকেন। তবে ফারহান তাকে কত টাকা দিয়েছিলেন তা প্রকাশ্যে আসেনি।   
৬। প্রভু দেবা-রামলতা
১৫ বছরের বিবাহিত জীবনের পরে, বিশাল সম্পত্তির বিনিময়ে বিচ্ছেদ হয় প্রথম স্ত্রী রামলতার সঙ্গে। ৩টি বাড়ি, ২টি গাড়ি ও ১০ লাখ টাকা ছিল খোরপোষের খরচে।
৭। আমির খান-রিনা দত্ত
২০০২ সালে ১৬ বছরের বিবাহিত জীবনের সমাপন ঘটে রিনা দত্তর সঙ্গে। শোনা যায়, ৫০ কোটি টাকা দাবি করেছিলেন রিনা।
৮। সঞ্জয় দত্ত-রিয়া পিল্লাই
লিয়েন্ডার পেজের সঙ্গে সম্পর্ক থাকাকালীনই সঞ্জয় দত্ত ও রিয়া পিল্লেইয়ের বিচ্ছেদ ঘটে। ৮ কোটি টাকা, একটি গাড়ির পাশাপাশি, মামলার সমস্ত খরচও বহন করেন সঞ্জয়।
৯। আরবাজ খান-মালাইকা অরোরা
১৮ বছরের দীর্ঘ বিবাহিত জীবনের সমাপন ঘটে ২০১৬ সালে। শোনা যায়, ১০ কোটি টাকা খোরপোশ চেয়েছিলেন মালাইকা। কিন্তু, এ তথ্যের কোনও ভিত্তি পাওয়া যায়নি।

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

আজকের প্রশ্ন

পুলিশের আইজিপি এ কে এম শহিদুল হক বলেছেন, ‘দেশকে জঙ্গি, মাদক ও সন্ত্রাসমুক্ত করতে হলে পুলিশের পাশাপাশি জনগণকে কাজ করতে হবে।’ আপনিও কি তাই মনে করেন?