বৃহস্পতিবার, ২৩ নভেম্বর ,২০১৭

Bangla Version
  
SHARE

মঙ্গলবার, ২২ আগস্ট, ২০১৭, ০২:৫০:২৮

রাঙ্গামাটি জেলা পরিষদ সদস্যদের সাথে জাতিসংঘের রেসিডেন্ট কো-অর্ডিনেটরের সৌজন্য সাক্ষাৎ

রাঙ্গামাটি জেলা পরিষদ সদস্যদের সাথে জাতিসংঘের রেসিডেন্ট কো-অর্ডিনেটরের সৌজন্য সাক্ষাৎ

রাঙ্গামাটিঃ-রাঙ্গামাটি সফরে আসা বাংলাদেশে নিযুক্ত জাতিসংঘের রেসিডেন্ট কো-অর্ডিনেটর ও ইউএনডিপি’র ঢাকা অফিসের আবাসিক প্রতিনিধি রবার্ট ডি. ওয়াটকিনস মঙ্গলবার (২২ আগস্ট) রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদ চেয়ারম্যানের প্রতিনিধি সদস্য সবির কুমার চাকমা ও রেমলিয়ানা পাংখোয়ার সাথে পরিষদ কার্যালয়ে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেন।
সাক্ষাৎকালে রবার্ট ওয়াটকিনস ইউএনডিপির সহযোগিতায় পরিচালিত রাঙ্গামাটি জেলার ৪টি উপজেলার প্রাইমারী স্কুল জাতীয়করণে সন্তোষ প্রকাশ করেন। বিশেষ করে বিগত বছরগুলোতে ইউএনডিপি এবং পার্বত্য জেলা পরিষদগুলো পরস্পরের সমন্বয়ে শিক্ষা, স্বাস্থ্য, কৃষি এবং স্থানীয় প্রতিষ্ঠানগুলোর সক্ষমতা বৃদ্ধিতে সফলভাবে কাজ করার বিষয়টি উল্লেখ করেন। তিনি ১৩জুন রাঙ্গামাটিতে প্রবল বর্ষণে পাহাড় ধসের বিষয়ে এক মন্তব্যে বলেন, পার্বত্য চট্টগ্রামের এই ধসের পেছনে অনেক কারণ থাকলেও এগুলো অনুসন্ধানে কোন বিজ্ঞানভিত্তিক গবেষণা বা অনুসন্ধান করা হয়নি। পার্বত্য জেলা পরিষদ যদি এই বিষয়ে বিজ্ঞানভিত্তিক কারণ অনুসন্ধান করতে চায় সেক্ষেত্রে ইউএনডিপি এবিষয়ে কারিগরী সহায়তা দিতে পারে। পার্বত্য চট্টগ্রামের জনসংখ্যা বৃদ্ধি এবং জমির উপর চাপ এর কারণে খাদ্যের নিরাপত্তাহীনতা সৃষ্টি এবং এ থেকে পরিত্রাণের উপায় হিসাবে সনাতন পদ্ধতিতে চাষের পরিবর্তে অন্য কোন বিকল্প পদ্ধতিতে খাদ্য নিরাপত্তা সৃষ্টি করা যায় কিনা এ বিষয়ে জেলা পরিষদকে উদ্যোগ গ্রহণের পরামর্শ দেন।
রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদ সদস্য সবির কুমার চাকমা বলেন, প্রতি বছরই জেলা পরিষদ হতে বাগান চাষীদের বিনামূল্যে চারা বিতরণ করা হয়। প্রকৃত দরিদ্রদের বাগান ও গবাদি পশুপালনে উদ্বুদ্ধ করতে পারলে পার্বত্য অঞ্চলে খাদ্য নিরাপত্তা বৃদ্ধি পাবে বলে তিনি মন্তব্য করেন। তিনি পার্বত্য জেলায় শিক্ষা-স্বাস্থ্য ও কৃষি উন্নয়নে কাজ করায় ইউএনডিপিকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন।
সৌজন্য সাক্ষাতে পরিষদের জনসংযোগ কর্মকর্তা অরুনেন্দু ত্রিপুরা, ইউএনডিপি-সিএইচটিডিএফ এর কর্মকর্তা বিপ্লব চাকমা, ডিষ্ট্রিক ম্যানেজার ঐশ্বর্য চাকমা উপস্থিত ছিলেন।

এই বিভাগের আরও খবর

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

আজকের প্রশ্ন

পুলিশের আইজিপি এ কে এম শহিদুল হক বলেছেন, ‘দেশকে জঙ্গি, মাদক ও সন্ত্রাসমুক্ত করতে হলে পুলিশের পাশাপাশি জনগণকে কাজ করতে হবে।’ আপনিও কি তাই মনে করেন?