বুধবার, ২১ আগস্ট ,২০১৯

Bangla Version
SHARE

বৃহস্পতিবার, ০৮ আগস্ট, ২০১৯, ০৮:১৭:০৩

বান্দরবানের রোয়াংছড়িতে ১ হাজার ১৩৩টি পরিবার ভিজিএফ চাউল পেল

বান্দরবানের রোয়াংছড়িতে ১ হাজার ১৩৩টি পরিবার ভিজিএফ চাউল পেল

রোয়াংছড়িঃ-বান্দরবানের রোয়াংছড়ি উপজেলার আলেক্ষ্যং ইউনিয়নে পবিত্র ঈদুল আযহার উপলক্ষে ১ হাজার ১৩৩টি দু:স্থ পরিবার পেল ভিজিএফের চাউল। এই চাউল বিতরণী অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান আথুইমং মারমা।
বৃহস্পতিবার (৮ আগষ্ট) সকালে চাউল বিতরণ কালে পরিদর্শন করেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো: মেহেদী হাসান। এসময় উপস্থিত ছিলেন আলেক্ষ্যং ইউপি চেয়ারম্যান বিশ্বনাথ তঞ্চঙ্গ্যা, মন্ত্রী প্রতিনিধি নেইতন বুইতিং, ইউপি সদস্যা সুনীতা তঞ্চঙ্গ্যা, ইউপি সচিব লিটন পাল।
অনুষ্ঠানে ইউপি চেয়ারম্যান বিশ্বনাথ তঞ্চঙ্গ্যা বলেন, এ বারের পবিত্র ঈদুল আযহার উপলক্ষে ভিজিএফের চাউল বরাদ্দ কম পাওয়া গেছে। তিনি আরো বলেন, প্রায় ২০০ জনের ও বেশি চাউল বরাদ্দ কম পাওয়ায় বন্টন করতে সমস্যার মধ্যে পড়ে যায়। তারপরও কাউকে বাদ না দিয়ে প্রত্যেক পরিবারকে ১৫ কেজি করে দেওয়া হয়েছে। এছাড়া সূত্রে জানা গেছে, রোয়াংছড়ি সদর, তারাছা ও নোয়াপতং ইউনিয়নের মধ্যে ট্যাগ অফিসার ও ইউপি চেয়ারম্যানের উপস্থিতিত্বে ভিজিএফ চাউল বিতরণ করা হয়েছে।

এই বিভাগের আরও খবর

  লামায় ১৩ ডেঙ্গু রোগী শনাক্ত, জনমনে আতংক

  বান্দরবা‌নের রুমায় তিন গাড়ি চালককে অপহর‌ণের অভিযোগ

  নাইক্ষংছড়ির ঘুমধুম সীমান্তে বিজিবি’র অভিযানে ৪০ হাজার ইয়াবা উদ্ধার

  পানির সংকট নিরসন হলো বান্দরবানের রোয়াংছড়িতে

  লামা থেকে চট্টগ্রাম বাস সার্ভিস চালু ও সড়কে দুর্ঘটনা রোধে শিক্ষার্থীদের সংবাদ সম্মেলন-স্মারকলিপি প্রদান

  বান্দরবানে ডেঙ্গু রোগ প্রতিরোধে মালিক ও চালক সমিতির উদ্যোগে পরিস্কার পরিচ্ছন্ন অভিযান

  লামায় পুকুরে ভেসে উঠল শিশুর লাশ

  বান্দরবানে ডেঙ্গু প্রতিরোধে ঢাকা-চট্টগ্রাম যাত্রীবাহি যানবাহনে মশার ওষুধ স্প্রে ও পরিস্কার পরিচ্ছন্ন অভিযান

  টানা ছুটিতে আশানুরূপ পর্যটক নেইঃ অর্থনৈতিক ভাবে বিপর্যয়ে পড়বে পর্যটন শিল্পের সঙ্গে সংশ্লিষ্টরা

  সোনালী লাইফ ইন্স্যুরেন্সের লামা শাখা অফিস উদ্বোধন

  বাংলাদেশ এখন আর তলাবিহীন ঝুড়ি নয়-পার্বত্য মন্ত্রী বীর বাহাদুর

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

আজকের প্রশ্ন

ডেঙ্গুতে মৃত্যুর সংখ্যা নিয়ে বিভ্রান্তির প্রেক্ষাপটে আইইডিসিআরের সাবেক পরিচালক মাহমুদুর রহমান বলছেন, মৃত্যুর ঘটনাগুলো ‘রিভিউ’ করার কোনো প্রয়োজন নেই, চিকিৎসকদের কথাই যথেষ্ট। আপনি কি তাকে সমর্থন করেন?