সোমবার, ১৯ আগস্ট ,২০১৯

Bangla Version
  
SHARE

শুক্রবার, ১৯ জুলাই, ২০১৯, ০৯:০৭:২৭

বান্দরবানে ছেলে ধরা সন্দেহে এক রোহিঙ্গ্যা নারীকে জনতার গণপিটুনি, পুলিশে সোপর্দ

বান্দরবানে ছেলে ধরা সন্দেহে এক রোহিঙ্গ্যা নারীকে জনতার গণপিটুনি, পুলিশে সোপর্দ

বান্দরবানঃ-বান্দরবানে ছেলেধরা সন্দেহে রোকেয়া আক্তার (১৮) নামে এক রোহিঙ্গ্যা নারীকে জনতা গনপিঠুনি দিয়েছে। শুক্রবার (১৯ জুলাই) দুপুর একটায় বান্দরবান জেলা সদরের বালাঘাটা বাজারে এই ঘটনা ঘটে।
স্থানীয় সুত্রে জানা যায়, দুপুরে হঠাৎ করে এক নারী বাজারে দৌড়ে যাওয়ার সময় স্থানীয় জনতা  ছেলেধরা সন্দেহে তাকে আটক করে এবং ব্যাপক মারধর করে, পরে পুলিশ এসে তাকে উদ্ধার করে সদর হাসপাতালে ভর্তি করে।
এদিকে বান্দরবান সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো: শহিদুল ইসলাম চৌধুরী জানান, প্রাথমিক তদন্তে আমরা জানতে পেরেছে একটি সংঘবদ্ধ চক্র রোহিঙ্গা নারী রোকেয়া আক্তার (১৮)কে কক্সবাজারের উখিয়া রোহিঙ্গ্যা ক্যাম্প থেকে প্রলোভন দেখিয়ে বান্দরবান নিয়ে আসে এবং পরবর্তীতে তাকে ছেলেধরা প্রমান করার জন্য বালাঘাটা বাজারে ব্যাপক মারধর করে, এবং সদর থানার পুুলিশ খবর পেয়ে তাকে উদ্ধার করে সদর হাসপাতালে ভর্তি করে। তিনি আরো জানান, এই বিষয়ে আরো তদন্ত করা হবে এবং পরবর্তী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

এই বিভাগের আরও খবর

  বান্দরবানে ডেঙ্গু প্রতিরোধে ঢাকা-চট্টগ্রাম যাত্রীবাহি যানবাহনে মশার ওষুধ স্প্রে ও পরিস্কার পরিচ্ছন্ন অভিযান

  টানা ছুটিতে আশানুরূপ পর্যটক নেইঃ অর্থনৈতিক ভাবে বিপর্যয়ে পড়বে পর্যটন শিল্পের সঙ্গে সংশ্লিষ্টরা

  সোনালী লাইফ ইন্স্যুরেন্সের লামা শাখা অফিস উদ্বোধন

  বাংলাদেশ এখন আর তলাবিহীন ঝুড়ি নয়-পার্বত্য মন্ত্রী বীর বাহাদুর

  বান্দরবানে ডেঙ্গু রোগ প্রতিরোধে পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতা অভিযানে পার্বত্য মন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং এমপি

  থানচিতে বন্যাদুর্গতদের মাঝে চাউল বিতরন

  প্রতারণা মামলায় আলীকদমে স্কুল শিক্ষক গ্রেফতার

  ১৫ আগষ্ট বাংলাদেশের ইতিহাসে সবচেয়ে অশ্রু ভেজা ও কলঙ্কময় অধ্যায়-পার্বত্য মন্ত্রী বীর বাহাদুর

  লামায় উপজেলা প্রশাসন ও আ’লীগের উদ্যোগে জাতীয় শোক দিবস পালিত

  থানচিতে জাতীয় শোক দিবস পালন

  আলীকদমে ভাব গাম্ভির্যের সাথে জাতীয় শোক দিবস পালিত

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

আজকের প্রশ্ন

ডেঙ্গুতে মৃত্যুর সংখ্যা নিয়ে বিভ্রান্তির প্রেক্ষাপটে আইইডিসিআরের সাবেক পরিচালক মাহমুদুর রহমান বলছেন, মৃত্যুর ঘটনাগুলো ‘রিভিউ’ করার কোনো প্রয়োজন নেই, চিকিৎসকদের কথাই যথেষ্ট। আপনি কি তাকে সমর্থন করেন?