মঙ্গলবার, ১৯ মার্চ ,২০১৯

Bangla Version
SHARE

সোমবার, ১৮ ফেব্রুয়ারী, ২০১৯, ০১:৪১:৩৮

লামায় বিলুপ্ত প্রজাতির সহস্রাধিক ঘনফুট গাছ পাচারের জন্য মজুদ, নেই কোন তদারকি

লামায় বিলুপ্ত প্রজাতির সহস্রাধিক ঘনফুট গাছ পাচারের জন্য মজুদ, নেই কোন তদারকি

মোহাম্মদ রফিকুল ইসলাম, লামাঃ-বান্দরবানের লামায় বেশ কয়েকটি স্থানে পাচারের জন্য মজুদ করা হয়েছে বিলুপ্ত প্রজাতির সহস্রাধিক ঘনফুট শিউরি কাঠ। মজুদকৃত কাঠের নেই বৈধ পাস বা পারমিট। অবৈধভাবে রাতের আধাঁরে সরকারি রাজস্ব ফাঁকি দিয়ে কাঠ গুলো নিয়ে যেতে সংশ্লিষ্ট বন বিভাগের দায়িত্বরত কর্মকর্তাদের সাথে ব্যবসায়ীদের দফারফা চলছে বলে জানা যায়। প্রকাশ্য দিবালোকে অবৈধ কাঠ গুলো রাখা হলেও বন বিভাগের লোকজনের না দেখার ভান করছে!
সূত্র মতে, শিউরি ‘সি’ শ্রেণীভুক্ত কাঠ। এলাকাতে লালি কাঠ হিসেবে চলে এই গাছটি। অনেকে এই গাছটিকে সিরাইজ্জা গাছ হিসেবে চিনে। বিশেষ করে সমুদ্রে ইঞ্জিনচালিত বোট নৌকায় এই কাঠের বেশী ব্যবহার হয়। অনেকে বাড়ির কাজেও শিউরি কাঠ ব্যবহার করেন। সি শ্রেণীভুক্ত কাঠ হলেও শিউরি অত্যন্ত শক্ত প্রজাতির কাঠ। প্রাকৃতিকভাবে পাহাড়ে এই কাঠের জন্ম হয়ে থাকে। বেপরোয়াভাবে বন উজাড়ের কারণে আজ শিউরি কাঠ বিলুপ্তির পথে।
লামা বন বিভাগের তথ্য মতে লামা সদর রেঞ্জের আওতাধীন এলাকায় অশ্রেণীভুক্ত বনাঞ্চল ও ব্যক্তি মালিকানাধীন বাগানে বর্তমানে শিউরি গাছের কোন পারমিট দেয়া হয়নি। পাচারের জন্য মজুদ শিউরি কাঠ গুলো লামা সদর রেঞ্জের আওতাধীন পোপা মৌজা হতে কাটা হয়েছে বলে জানান, গাছের মালিক কাঠ ব্যবসায়ী সদর ইউনিয়নের মেরাখোলা এলাকার মো. মাবুদ। তিনি গাছগুলোর পারমিট নেই বলে স্বীকার করেন।
স্থানীয়রা বলছেন, রাতের আধাঁরে কাঠ গুলো আনা হয়েছে আবার রাতের আধাঁরে সবাইকে ম্যানেজ করেই চলে যাবে কাঠগুলো। দূর্বল তদারকি ও প্রশাসনিক ব্যবস্থার কারণে হুমকির মুখে দেশীয় প্রজাতির গাছপালা। অপরদিকে সরকার হারাচ্ছে লক্ষ লক্ষ টাকার রাজস্ব। প্রাকৃতিক বনজ সম্পদ রক্ষায় লামার লুলাইং, লেমুপালং, লামা, পোপা, নাইক্ষ্যং, লৈক্ষ্যং, বড় বমু ও সাঙ্গু মৌজায় সকল প্রকার জোত পারমিট ইস্যু বন্ধ রাখতে সরকারকে অনুরোধ করেছেন এলাকাবাসি।
সরজমিনে দেখা যায়, লামা পৌরসভার লামামুখ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের দেয়ালের পাশে ১০ থেকে ১৫ ফুট লম্বা বড় সাইজের ৬১ টুকরা শিউরি কাঠ, লামামুখ মসজিদের সামনে মাঠে ৬৮ টুকরা, রাজবাড়ি হেফজখানার সামনে ৩৫ টুকরা, রুপসীপাড়া ইউনিয়নের দরদরী বরিশাল পাড়ার কালামের বাড়ির পাশে রাস্তায় ১৫ টুকরা ও লামা সদর ইউনিয়নের বৈল্ল্যারচর বশির কারবারীর বাড়ির পাশে ৯ টুকরা বিলুপ্ত প্রজাতির শিউরি কাঠ পাচারের জন্য মজুদ করা হয়েছে। ৫টি স্থানে মজুদ মোট ১৮৮ টুকরা শিউরি গাছে প্রায় ১২শ ঘনফুট কাঠ হতে পারে। গাছ গুলো দূর্গম এলাকা হতে হাতি দিয়ে পরিবহন করে গাড়ি পয়েন্টে এনে উল্লেখিত স্থানে রাখা হয়। যার কোন বৈধ কাগজপত্র দেখাতে পারেনি কাঠের মালিক দাবিদার মো. মাবুদ। তবে মাবুদের পিছনে বড় একটি সিন্ডিকেট রয়েছে বলেও জানায় অনেকে।
এই গাছ পাচারচক্রটি প্রায়সময় নিষিদ্ধ প্রজাতির চাম্পাফুল, গোদা ও গুটগুটিয়া কাঠ পাচার করে বলেও অভিযোগ রয়েছে। উদ্বেগের বিষয় হল লামা উপজেলার দূর্গম লুলাইং, লেমুপালং, পোপা, নাইক্ষ্যং ও লৈক্ষ্যং মৌজায় হাতি দিয়ে গাছ টানা হয়।
লামা সদর রেঞ্জের দায়িত্বপ্রাপ্ত ফরেস্ট রেঞ্জ কর্মকর্তা আনোয়ার হোসাইন বলেন, জনবল সংকটের কারণে তদারকি করা সম্ভব হয়না। লামা সদর রেঞ্জের আওতাধীন এলাকায় বর্তমানে শিউরি বা সিরাইজ্জা গাছের কোন পারমিট নেই।

এই বিভাগের আরও খবর

  লামার নির্বাচনে গাড়ি দূর্ঘটনায় আহত ১৬, অপর ঘটনায় নিহত-১

  বঙ্গবন্ধুর জন্ম না হলে আজ আমরা স্বাধীন দেশ পেতাম না-পার্বত্য মন্ত্রী বীর বাহাদুর

  উপজেলা নির্বাচন উপলক্ষে বান্দরবানের বিভিন্ন কেন্দ্রে কেন্দ্রে পাঠানো হয়েছে নির্বাচনী সরঞ্জাম

  নিউজিল্যান্ডের মসজিদে হামলার প্রতিবাদে লামায় মানববন্ধন

  উপজেলা নির্বাচন ঘিরে তেমন একটা আগ্রহ নেই বান্দরবানের ভোটারদের

  সৎভাবে আমাদের পণ্যগুলো যদি বাজারে বিক্রয় করি তাহলে আমরা সবাই সুস্থ থাকবো-মোহাম্মদ দাউদুল ইসলাম

  লামায় জীপের চাকায় পিষ্ট হয়ে রোহিঙ্গা শ্রমিক নিহত

  আলীকদমে দুই চেয়ারম্যান প্রার্থীর পাল্টাপাল্টি সংবাদ সম্মেলন

  জাতীয় সংসদে বাসন্তী চাকমার রাষ্ট্রবিরোধী বক্তব্যের প্রতিবাদে বান্দরবানে প্রতিবাদ সমাবেশ

  লামায় স্বতন্ত্র প্রার্থী ও আলীকদমে নির্বাচন অফিসারের বিরুদ্ধে অভিযোগ

  বান্দরবানের শান্তি-শৃংখলা ও সম্প্রীতির উন্নয়নে সবাইকে একসাথে কাজ করতে হবে-খন্দকার মো: শাহিদুল এমরান

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

আজকের প্রশ্ন

ডাকসু নির্বাচনের সঙ্গে একাদশ সংসদ নির্বাচনের তুলনা করে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, এতে ৩০ ডিসেম্বরের ‘ভোট ডাকাতি’র পুনরাবৃত্তি ঘটেছে। আপনি কি তা মনে করেন?