বুধবার, ২২ মে ,২০১৯

Bangla Version
SHARE

মঙ্গলবার, ০৪ ডিসেম্বর, ২০১৮, ০৭:৫১:২৪

শিক্ষার মান বৃদ্ধির লক্ষে বান্দরবানে পিটিআই উপহার দিলেন প্রতিমন্ত্রী বীর বাহাদুর এমপি

শিক্ষার মান বৃদ্ধির লক্ষে বান্দরবানে পিটিআই উপহার দিলেন প্রতিমন্ত্রী বীর বাহাদুর এমপি

বান্দরবানঃ-বান্দরবানের প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের সঠিক প্রশিক্ষণের মাধ্যমে দক্ষ করার লক্ষ্যে বান্দরবান জেলা সদরে রেইচা এলাকায় স্থানীয় সরকার অধিদপ্তর (এলজিইডি) বান্দরবানের ১৬ কোটি টাকা ব্যয়ে প্রাইমারি টিচার্চ ট্রেনিং ইনস্টিটিউট (পিটিআই) উপহার দিলেন পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং ।
বান্দরবানে প্রাইমারি টিচার্চ ট্রেনিং ইনস্টিটিউট (পিটিআই) স্থাপনের সুফল পাচ্ছে বান্দরবান জেলার ৭ টি উপজেলা, ২টি পৌরসভা ও ৩৩ টি ইউনিয়নের বিভিন্ন প্রাথমিক বিদ্যালয়েল শিক্ষক-শিক্ষিকাবৃন্দরা।
বান্দরবানের দূর্গম থানচি উপজেলার একজন শিক্ষিকা থুইনাই প্রু মার্মা বলেন, আমার যখন প্রথম চাকরী হয় তখন সবাই বলতো আমার না কি চট্টগ্রাম জেলার পটিয়া উপজেলায় গিয়ে প্রাইমারি টিচার্চ ট্রেনিং করতে হবে। শুনে তখন নিজের থেকে অনেক ভয় লাগতো কারন আমি একজন পাহাড়ী মেয়ে কি করে সেখানে গিয়ে ট্রেনিং করবো? খুব ভয় হতো। কিন্তু আমার সেই ভয় দুর করে বান্দরবানের সকল শিক্ষক-শিক্ষিকার স্বপ্নের সেই ট্রেনিং সেন্টার এখন বান্দরবানে উপহার দিলেন বান্দরবানের গণমানুষের প্রাণের মানুষ আমাদের মন্ত্রী বীর বাহাদুর স্যার।
রুমা উপজেলার সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক ক্য ক্য চিং বলেন, আমি রুমার দূর্গম এলাকা মনজয় পাড়ার ছেলে আমি জীবনের ও পটিয়া গিয়ে নিজের মত প্রশিক্ষণ করতে পারতাম না কারণ এটা আমার জন্য অসম্ভব ছিল। কিন্তু আমার সেই অসম্ভব কাজ টা বা অসম্ভব ট্রেনিংটা বান্দরবানে গিয়ে করে করার সুযোগ সুষ্টি করে দেওয়ার কারনে আমি নতশিরে পার্বত্য প্রতিমন্ত্রী বীর বাহাদুর কে আন্তরিক ভাবে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি।
রোয়াংছড়ি লাপাইমুখ পাড়া প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক মংনু প্রু বলেন, বীর বাহাদুর কে কখনো শিক্ষকদের বা শিক্ষার উন্নয়নে বলতে হয়নি তিনি একজন দক্ষ নেতা। তিনি সকলের মনের অগোচরে থাকা অভার পূরণ করে নিমিশে। আমি ব্যক্তিগতভাবে প্রতিদিন সৃষ্টিকর্তার নামের পর বীর বাহাদুর এর জন্য প্রার্থণা করি।
প্রসঙ্গত, প্রাইমারি টিচার্চ ট্রেনিং ইনস্টিটিউট (পিটিআই) পরিচালিত সার্টিফিকেট ইন এডুকেশন প্রশিক্ষণটি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের জন্য অনুষ্ঠিত একটি এক বছর মেয়াদী একটি প্রশিক্ষণ। এ প্রশিক্ষণে সরকারি রেজিঃ বেসকারি ও কমিউনিটি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকগণ প্রশিক্ষণ নিয়ে থাকে। এ প্রশিক্ষণটি একটি কর্মকালীন প্রশিক্ষণ (ইন-সার্ভিস ট্রেনিং) এ প্রশিক্ষণে শিক্ষকগণ মোট ১৫ (পনের) টি বিষয়ে তাত্ত্বিক ও ব্যবহারিক জ্ঞান ও দক্ষতা অর্জন করে থাকেন। সি-ইন-এড প্রশিক্ষণে বিষয়ভিত্তিক বাংলা, ইংরেজি, গণিত, পরিবেশ পরিচিতি সমাজ ও পরিবেশ পরিচিতি বিজ্ঞান, ধর্ম শিক্ষা, প্রাথমিক শিক্ষা পরিচিতি, প্রাথমিক শিক্ষার গুরুত্ব এবং বিভিন্ন দেশের প্রাথমিক শিক্ষা ব্যবস্থা, শিশু মনো বিজ্ঞান, শিখন ও ব্যক্তিত্ব বিকাশের মূল্যায়ন, শারিরীক শিক্ষা, চারু ও কারুকলা, বাংলাদেশের প্রাথমিক শিক্ষা (নীতি, কৌশল, সংগঠন) ইত্যাদি প্রশিক্ষণ প্রদান করা হয়।

এই বিভাগের আরও খবর

  লামা সরকারিভাবে ধান ক্রয় শুরু, লক্ষ্যমাত্রা ৭৪ মেট্রিক টন

  লামায় পাহাড় থেকে পড়ে কাঠুরিয়া নিহত

  বোমা বিস্ফোরণে নিহত সৈনিক জাহিদ'র রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় দাফন সম্পূর্ণ

  বান্দরবানে আওয়ামীলীগ সমর্থককে অপহরণের পর গুলি করে হত্যা

  লামায় গাজী প্লান্টেশনের ৪১৭টি রাবার গাছ কেটে দিল সন্ত্রাসীরা

  কঠোর নিরাপত্তায় বান্দরবানে উদযাপিত হচ্ছে বৈশাখি পূর্ণিমা

  বর্তমান সরকারের আমলে প্রত্যেক সম্প্রদায় তাদের ধর্মীয় উৎসব সুন্দরভাবে পালন করতে পারছে-পার্বত্য মন্ত্রী বীর বাহাদুর

  বান্দরবানে পরিত্যক্ত বোমা বিষ্ফোরণে নিহত-২, আহত-১১

  আলীকদমের চাঞ্চল্যকর লাকাচিং তঞ্চঙ্গ্যা হত্যাঃ তিন উপজাতি যুবকের দোষ স্বীকার

  লামায় বিক্রি হচ্ছেনা টিসিবি’র পণ্য; সুবিধাবঞ্চিত দুই লাখ মানুষ

  রোয়াংছড়ি প্রানসা ঝিরিতে অবৈধ পাথর উত্তোলন বন্ধ করে দিলেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

আজকের প্রশ্ন

ভোটের পর থেকে সংসদে না যাওয়ার ঘোষণা দিয়ে আসা মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, দলের নির্বাচিতদের শপথ নেওয়ায় সম্মতি দিয়ে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান সঠিক কাজটিই করেছেন। আপনি কি তার সঙ্গে একমত?