বৃহস্পতিবার, ২৬ এপ্রিল ,২০১৮

Bangla Version
  
SHARE

রবিবার, ০৭ জানুয়ারী, ২০১৮, ০৭:৪২:১৫

ম্রো সম্প্রদায়ের ভালবাসা সিক্ত হলেন জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ক্যশৈহ্লা, এলাকা উন্নয়নের আশ্বাস

ম্রো সম্প্রদায়ের ভালবাসা সিক্ত হলেন জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ক্যশৈহ্লা, এলাকা উন্নয়নের আশ্বাস

থানচিঃ-বান্দরবানে থানচিতে টুকটং পাড়ায় ম্রো কমিউনিটি সাথে ভালবাসা সিক্ত হলেন বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ক্যশৈহ্লা। টুকটং পাড়াবাসীদের দীর্ঘ দিনের ৩ সমস্যা সমাধান করলেন চেয়ারম্যান। যথাক্রমে টুকটং পাড়া জিএসএফ পাইপের মাধ্যমে বিশুদ্ধ পানীয় জলের নিষ্কাসন, গীর্জা ঘর নির্মাণ ও প্রাক-প্রাথমিক বিদ্যালয়টি ৫ম শ্রেনির উন্নিতকরন বা সরকারীকরনে আশ্বাস দিলেন। 
রবিবার (৭ জানুয়ারী) সকাল ১০ টা টুকটং পাড়াবাসীদের উদ্যোগের এক মতবিনিময় সভা আয়োজন করেন। টুকটং পাড়া প্রধান মাংসার ম্রো সভাপতিত্বে সভায় বান্দরবান জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও আওয়ামী লীগের সভাপতি প্রধান অতিথি বক্তব্যে উপরোক্ত সমস্যা জন্য তাৎক্ষনিকভাবে বরাদ্ধ দিয়ে ঘোষনা দিলেন। 
বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা চেয়ারম্যান ও ইউপিডিএফ কেন্দ্রীয় কমিটি সাবেক সভাপতি ক্যহ্লাচিং মারমা, জেলা পরিষদের সদস্য থোয়াইহ্লামং মারমা, আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি বাশৈচিং মারমা, সাবেক সাধারণ সম্পাদক মংবেওয়াংচিং মারমা, প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক শহিদুল ইসলাম (শহিদ), সাবেক চেয়ারম্যান মালিরাং ত্রিপুরা, উবামং মারমা, জেলা পরিষদের সাবেক সদস্য অংপ্রু ম্রো, ইউপি চেয়ারম্যান মাংসার ম্রো প্রমুখ।
জেলা পরিষদের চেয়ারম্যার ক্যশৈহ্লা বলেন, এই সরকার উন্নয়ন বিশ্বাস করে বলেই পার্বত্য চট্টগ্রামে সকল সম্প্রদায়ের ভালবাসা আছে বলে দীর্ঘ ৫টি বার আওয়ামী লীগের নৌকা প্রতীকে ভোট দিয়ে জয় যুক্ত করেন। পার্বত্য অঞ্চলের জনগনের চাওয়া শিক্ষা, স্বাস্থ্য, যোগাযোগ, বিশুদ্ধ পানীয় জল, পর্যটন শিল্প বিকাশসহ ব্যাপক উন্নয়ন করেছে। সরকার আপনাদের সকল চাওয়া পূরণ করবে। শুধু আপনারা সময় মতো আওয়ামী লীগের নির্বাচনের নৌকা প্রতীকের ভোট দিয়ে জয় যুক্ত করেন। 
জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আওয়ামী লেিগর সভাপতি ক্যশৈহ্লা, এর সহধর্মীনি এবং আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দ নিয়ে দুর্গম রেমাক্রী, ছোট মধক, বড় মধক, জিন্না পাড়া সহ ৬টি স্থানের অধিবাসীদের সাথে শুক দুঃখ গ্লানিসহ সহভাগিতা করার জন্য ৬ দিনে সফরে রবিবার দুপুর ২টা থানচি উপজেলা থেকে নৌ পথে যাত্রা করেছেন।

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

আজকের প্রশ্ন

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, বাংলাদেশের ক্ষমতায় কে আসবে তা এ দেশের জনগণই নির্ধারণ করবে, এ বিষয়ে ভারতের ইন্টারফেয়ার করার কিছু নেই। আপনি কি তার সঙ্গে একমত?