শনিবার, ২১ সেপ্টেম্বর ,২০১৯

Bangla Version
SHARE

সোমবার, ২৭ ফেব্রুয়ারী, ২০১৭, ০১:৩৯:৩০

৩৩১০ হ্যান্ডসেটে ক্যামেরা-ইন্টারনেট

৩৩১০ হ্যান্ডসেটে ক্যামেরা-ইন্টারনেট

ঢাকা : ২০০০ সালে উৎপাদন প্রক্রিয়া শুরুর পর ২০০২ সালে প্রথমবারের মতো বাজারে আসে বিশ্বখ্যাত মোবাইল ব্র্যান্ড নকিয়া কোম্পানির ৩৩১০ মডেলের মোবাইল ফোন হ্যান্ডসেট। ২০০৫ সালে এ মডেলের হ্যান্ডসেট উৎপাদন বন্ধ করে কোম্পানিটি। এর আগে টানা ৩ বছরে সাড়ে ১২ কোটির বেশি হ্যান্ডসেট বাজারে ছাড়া হয়েছিল।

উৎপাদন ও বাজারজাত বন্ধের এক যুগ পর আবারও নতুন করে বাজারে আসার অপেক্ষায় আছে নকিয়ার ৩৩১০ মডেলের হ্যান্ডসেট। কালের পরিক্রমায় পরিবর্তিত হয়ে বাজারে আসছে এটি। তবে অপরিবর্তিত থাকছে সেই পুরনো আকৃতি। একইসঙ্গে আগের বেশকিছু ফিচারও থাকবে নতুন হ্যান্ডসেটে।

বিবিসির এক প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে, ফিনিশ স্টার্ট-আপ প্রতিষ্ঠান এইচএমডি গ্লোবালের লাইসেন্সের আওতায় নতুন করে বাজারে আসবে নকিয়া ৩৩১০ মডেলের হ্যান্ডসেট। একইসঙ্গে নকিয়া ব্র্যান্ডের কিছু অ্যান্ড্রয়েড সংস্করণও বাজারে ছাড়ছে তারা।

এইচএমডি গ্লোবালের বরাত দিয়ে ওই প্রতিবেদনে আরও জানানো হয়েছে, ৩৩১০ হ্যান্ডসেটে স্মার্টফোনের কিছু বৈশিষ্ট্য সংযোজন করা হলেও এটি মূলত ফিচার ফোন। এ হ্যান্ডসেটের আগের সংস্করণে ক্যামেরা না থাকলেও নতুন সংস্করণে ২ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা সংযুক্ত করা হয়েছে। আগের ৩৩১০ মডেলের হ্যান্ডসেটে ইন্টারনেট সুবিধা না থাকলেও নতুন হ্যান্ডসেটে সীমিত আকারে ইন্টারনেট ব্যবহারের সুযোগ থাকবে।

প্রস্ততকারকদের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, এ ফিচার ফোনে কিছু নতুন বৈশিষ্ট্য সংযোজন করা হলেও এতে ব্যবহৃত ব্যাটারির ক্ষমতা আগের মতোই রাখা হয়েছে। একবার পুরো চার্জ দিলে এক মাস পর্যন্ত স্ট্যান্ডবাই থাকবে এ ব্যাটারি। আর কথা বলা যাবে টানা ২২ ঘণ্টা পর্যন্ত।

বিবিসি আরও জানিয়েছে, ৩৩১০ মডেলের পুরনো হ্যান্ডসেটে সাদাকালো স্ক্রিন থাকলেও সময়ের সঙ্গে তাল মেলাতে এবার তাতে রঙিন স্ক্রিন সংযুক্ত করা হয়েছে। আর জনপ্রিয় স্নেক গেমের আধুনিক ভার্সনও দেওয়া হয়েছে এতে।

প্রযুক্তি বিষয়ক পরামর্শক প্রতিষ্ঠান সিসিএস ইনসাইটের বেন উডের মতে, বিশ্বের প্রথম বহুল-বিক্রিত মোবাইল হ্যান্ডসেট নকিয়া ৩৩১০। এর জন্য মানুষের মাঝে এটাকে নিয়ে ব্যাপক নস্টালজিয়া কাজ করে।

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

আজকের প্রশ্ন

আওয়ামী লীগের দুর্নীতিবাজদের বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে দাবি করে ওবায়দুল কাদের বলেছেন, সরকারের অনেক মন্ত্রী দুদকে হাজিরা দিচ্ছেন, আওয়ামী লীগের অনেক নেতাকর্মী জেলে আছেন। তার এই বক্তব্যের সঙ্গে আপনি একমত?