শুক্রবার, ২৩ আগস্ট ,২০১৯

Bangla Version
  
SHARE

মঙ্গলবার, ০৫ ফেব্রুয়ারী, ২০১৯, ০৯:১৪:৩৯

১৪ হাজার টাকায় নতুন মাল্টিটাচ ল্যাপটপ

১৪ হাজার টাকায় নতুন মাল্টিটাচ ল্যাপটপ

ডেস্ক রিপোর্টঃ-আগামী ১৪ ফেব্রুয়ারি ভালোবাসা দিবসকে সামনে রেখে দেশের নতুন অনলাইন শপ টেকপ্লাটুন নিয়ে এসেছে বিশেষ অফার। এ অফারের আওতায় মার্কিন প্রযুক্তি ব্র্যান্ড আইলাইফের নতুন টাচস্ক্রীন ল্যাপটপ পাওয়া যাবে ১৪ হাজার ২৯০ টাকায়। ১০.১ ইঞ্চির ১২৮০ x ৮০০ রেজুলেশনের মাল্টিটাচ আইপিএস ডিসপ্লের এই ডিভাইসটি কিবোর্ড থেকে খুলে ফেললেই এটি ট্যাবলেট পিসি হিসাবে ব্যবহার করা যায়। টাচ স্ক্রীন সংবলিত জেড বুক ডবলিউ (Z Book W) মডেলের ল্যাপটপটিতে থাকছে দেশজুড়ে ফ্রি হোম ডেলিভারির সুবিধা।
সরাসরি দুবাই থেকে আমদানি করা আইলাইফের এই ল্যাপটপটি যে কোন বাংকের ডেবিট, ক্রেডিট কার্ড অথবা বিকাশের মাধ্যমে কেনা যাবে।
টেকপ্লাটুন জানিয়েছে, বিল্টইন উইন্ডোজ ১০ জেনুইন অপারেটিং সিস্টেমসহ ল্যাপটপটি অফিসের গুরুত্তপূর্ণ কাজ যেমন ই-মেইল চেকিং, ইন্টারনেট ব্রাউজিংসহ অন্যান্য কাজ করা যাবে। এতে রয়েছে ২ জিবি র‌্যাম, ৩২জিবি স্টোরেজ, আনলিমিটেড এক্সটারনাল হার্ডডিস্ক ও পেনড্রাইভ ব্যবহারের সুবিধা।
এছাড়াও রয়েছে মাইক্রো এসডি কার্ড দিয়ে ১২৮ জিবি পর্যন্ত স্টোরেজ বাড়ানোর সুবিধা। ডিভাইসটি এমএস ওয়ার্ড, এক্সেল, পাওয়ারপয়েন্ট প্রেজেন্টেশনের জন্য এটা অসাধারণ, লেখাপড়ার অনন্য সহায়ক হিসাবে ব্যাবহার করা যাবে। স্লিম, স্বচ্ছ ও হালকা এই ডিভাইসটিতে রয়েছে ইন্টেল এইচডি গ্রাফিক্স, ১.৮৩ গিগাহার্জের কোয়াড কোর প্রসেসর। ৬০০০ এমএএইচ ক্যাপাসিটির ব্যাটারির এই ল্যাপটপে মোটামুটি ৪ ঘন্টার বেশি চার্জ থাকে। অবশ্য ব্যাটারি সেভিং মোডে ব্যবহার করলে ৬-৭ ঘন্টা ব্যাকআপ পাওয়া যায়।
ডিভাইসটির সামনে পিছনে দুদিকেই ২ মেগাপিক্সেলের ক্যামেরা রয়েছে। স্কাইপিতে ভিডিও চ্যাট করার জন্য অসাধারণ। একটা মাইক্রো ইউএসবি পোর্ট মূল অংশের সঙ্গে আর একটা ইউএসবি ২.০ পোর্ট এক্সটার্নাল কিবোর্ডের সঙ্গে রয়েছে। ল্যাপটপটি অনলাইনে কেনার ঠিকানা : https://bit.ly/2MMvVlB
আইলাইফের প্রতিটি পণ্যের সাথে আপনি পাচ্ছেন ১ বছরের ব্র্যান্ড ওয়ারেন্টি!

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

আজকের প্রশ্ন

ডেঙ্গুতে মৃত্যুর সংখ্যা নিয়ে বিভ্রান্তির প্রেক্ষাপটে আইইডিসিআরের সাবেক পরিচালক মাহমুদুর রহমান বলছেন, মৃত্যুর ঘটনাগুলো ‘রিভিউ’ করার কোনো প্রয়োজন নেই, চিকিৎসকদের কথাই যথেষ্ট। আপনি কি তাকে সমর্থন করেন?