বুধবার, ২০ মার্চ ,২০১৯

Bangla Version
SHARE

বৃহস্পতিবার, ০৭ মার্চ, ২০১৯, ০৮:২০:৩৪

৩ এপ্রিল পবিত্র শবে মেরাজ

৩ এপ্রিল পবিত্র শবে মেরাজ

ধর্ম ডেস্কঃ-রজব মাসের চাঁদ দেখা না যাওয়ায় আগামী ৯ মার্চ শুরু হবে হিজরি সনের রজব মাস। ফলে আগামী ৩ এপ্রিল (২৬ রজব) পবিত্র শবে মেরাজ পালিত হবে।
বৃহস্পতিবার (৭ মার্চ) জাতীয় চাঁদ দেখা কমিটির বৈঠক থেকে এ সিদ্ধান্ত জানানো হয়েছে। ইসলামিক ফাউন্ডেশনের সহকারী পরিচালক (জনসংযোগ) মুহাম্মদ নিজাম উদ্দিন এ তথ্য জানিয়েছেন।
ইসলামিক ফাউন্ডেশন বায়তুল মুকাররম সভাকক্ষে অনুষ্ঠেয় সভায় সভাপতিত্ব করবেন ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী ও জাতীয় চাঁদ দেখা কমিটির সভাপতি আলহাজ্ব অ্যাডভোকেট শেখ মো. আব্দুল্লাহ।
এছাড়া বাংলাদেশের আকাশে কোথাও পবিত্র রজব মাসের চাঁদ দেখা গেলে তা জানানোর জন্য অনুরোধ জানিয়েছে ইসলামিক ফাউন্ডেশন।
মহান আল্লাহর নির্দেশে হজরত জিবরাইল (আ.) কে সঙ্গে নিয়ে মহানবী হজরত মুহাম্মদ (স.) ঊর্ধ্বাকাশে গমন করেন।৬২০ খ্রিস্টাব্দে ২৬ রজব রাতে মহানবী (সা.) এর সঙ্গে সরাসরি আল্লাহর সান্নিধ্য লাভের অলৌকিক এ ঘটনা ঘটে। রফরফ নামক বিশেষ বাহনে করে ৭০ হাজার নূরের পর্দা পেরিয়ে আরশে আজিমে মহান আল্লাহতায়ালার সান্নিধ্য লাভ করেন। এরপর উম্মতের জন্য পাঁচওয়াক্ত নামাজের হুকুম নিয়ে ফিরে আসেন পৃথিবীতে।
একই সময়ে মহানবী (সা.) সৃষ্টি জগতের সবকিছুর রহস্য অবলোকন করেন। আরবি ভাষায় মেরাজ অর্থ হচ্ছে সিঁড়ি। আর ফার্সি ভাষায় এর অর্থ ঊর্ধ্ব জগতে আরোহণ।

এই বিভাগের আরও খবর

  সকল প্রাণির হিত সুখ কামনা করে লংগদু তিনটিলা বনবিহারে বিভিন্ন ধর্মীয়ানুষ্টান

  প্রকৃত ধার্মিক হতে হলে প্রকৃত ধর্ম পালনে বিকল্প নেই-শ্রীমৎ নন্দপাল মহাস্থবির ভান্তে

  রাঙ্গামাটিতে পার্বত্য ভিক্ষু সংঘের ৬০তম বর্ষপূর্তি ও বার্ষিক সন্মেলন

  ৩ এপ্রিল পবিত্র শবে মেরাজ

  ৬ মে শুরু হবে মাহে রমজান

  শুভ মাঘী পূর্ণিমায় রাঙ্গামাটির আনন্দ বিহারে দিনব্যাপী ৮৪তম ঐতিহ্যবাহী ব্যুহচক্র মেলা

  দ্বিতীয় পর্বের ইজতেমার সময় বাড়ল

  আম বয়ানের মধ্যদিয়ে বিশ্ব ইজতেমা শুরু

  বিশ্ব ইজতেমায় থাকছে ১০ হাজারের বেশি নিরাপত্তা কর্মী

  রাঙ্গামাটিতে দেবী সরস্বতীকে উৎসর্গ করে সার্বজনীন শ্রী শ্রী বাণী অর্চনা উৎযাপন

  আগামীকাল শ্রী শ্রী সরস্বতী পূজা, বিদ্যা ও জ্ঞান অর্জনে প্রণতি জানাবেন অগণিত ভক্ত

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

আজকের প্রশ্ন

ডাকসু নির্বাচনের সঙ্গে একাদশ সংসদ নির্বাচনের তুলনা করে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, এতে ৩০ ডিসেম্বরের ‘ভোট ডাকাতি’র পুনরাবৃত্তি ঘটেছে। আপনি কি তা মনে করেন?