বুধবার, ২০ মার্চ ,২০১৯

Bangla Version
SHARE

সোমবার, ২৫ ফেব্রুয়ারী, ২০১৯, ০১:৩৫:১৪

৬ মে শুরু হবে মাহে রমজান

৬ মে শুরু হবে মাহে রমজান

ধর্ম ডেস্কঃ-পবিত্র মাহে রমজান শুরু হতে পারে আগামী ৬ মে। সংযুক্ত আরব আমিরাতের আকাশ গবেষণা প্রতিষ্ঠান সারজা সেন্টার ফর অ্যাস্ট্রোনমি অ্যান্ড স্পেস সাইন্স জানায়, আগামী ৫ মে শাবান মাসের শেষ দিন। সে হিসেবে ৬ মে থেকে শুরু হবে পবিত্র রমজান মাসের রোজা। এখবর দিয়েছে গালফ নিউজ।
রীতি অনুযায়ী চাঁদ দেখার ওপর নির্ভরশীল আরবি মাস। আর চাঁদ দেখার মাধ্যমেই সারাবিশ্বের মুসলিমরা মাসব্যাপী রোজা পালন করেন। এটাই ইসলামের নীতি। সারজা সেন্টার ফর অ্যাস্ট্রোনিওমি অ্যান্ড স্পেস সাইন্স জানায়, এবার রমজান মাসের শুরুর দিকে মুসলিম উম্মাহ ১৩ ঘণ্টা ১০ মিনিট রোজা পালন করবে আর শেষ দিকে ১৩ ঘণ্টা ৪০ মিনিটে গিয়ে দাঁড়াবে এবারের রোজার সময়।
তারা জানায়, ৫ মে সংযুক্ত আরব আমিরাতের স্থানীয় সময় ২টা ৪৬ মিনিটে উদিত হবে পবিত্র রমজান মাসের চাঁদ। ঐ দিন দুপুরের পর রমজান মাসের চাঁদ উদিত হলেও সে দিন বিকেলে তা দেখা যাবে না।
উল্লেখ্য যে, সাধারণভাবে মুসলিমেরা জ্যোতির্বিজ্ঞানের গবেষণার চেয়ে খালি চোখে চাঁদ দেখে রোজা পালন করতেই বেশি স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করে থাকেন। যদিও রোজা ও রমজানের তারিখ প্রযুক্তির কল্যাণে খালি চোখে চাঁদ দেখার আগেই নির্ধারণ হয়ে যায়।

এই বিভাগের আরও খবর

  সকল প্রাণির হিত সুখ কামনা করে লংগদু তিনটিলা বনবিহারে বিভিন্ন ধর্মীয়ানুষ্টান

  প্রকৃত ধার্মিক হতে হলে প্রকৃত ধর্ম পালনে বিকল্প নেই-শ্রীমৎ নন্দপাল মহাস্থবির ভান্তে

  রাঙ্গামাটিতে পার্বত্য ভিক্ষু সংঘের ৬০তম বর্ষপূর্তি ও বার্ষিক সন্মেলন

  ৩ এপ্রিল পবিত্র শবে মেরাজ

  ৬ মে শুরু হবে মাহে রমজান

  শুভ মাঘী পূর্ণিমায় রাঙ্গামাটির আনন্দ বিহারে দিনব্যাপী ৮৪তম ঐতিহ্যবাহী ব্যুহচক্র মেলা

  দ্বিতীয় পর্বের ইজতেমার সময় বাড়ল

  আম বয়ানের মধ্যদিয়ে বিশ্ব ইজতেমা শুরু

  বিশ্ব ইজতেমায় থাকছে ১০ হাজারের বেশি নিরাপত্তা কর্মী

  রাঙ্গামাটিতে দেবী সরস্বতীকে উৎসর্গ করে সার্বজনীন শ্রী শ্রী বাণী অর্চনা উৎযাপন

  আগামীকাল শ্রী শ্রী সরস্বতী পূজা, বিদ্যা ও জ্ঞান অর্জনে প্রণতি জানাবেন অগণিত ভক্ত

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

আজকের প্রশ্ন

ডাকসু নির্বাচনের সঙ্গে একাদশ সংসদ নির্বাচনের তুলনা করে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, এতে ৩০ ডিসেম্বরের ‘ভোট ডাকাতি’র পুনরাবৃত্তি ঘটেছে। আপনি কি তা মনে করেন?