সোমবার, ১৭ ডিসেম্বর ,২০১৮

Bangla Version
  
SHARE

শুক্রবার, ৩০ নভেম্বর, ২০১৮, ০১:৪৪:১৭

লোক দেখানো উপকারে সওয়াব বিনষ্ট হয়

লোক দেখানো উপকারে সওয়াব বিনষ্ট হয়

ধর্ম ডেস্কঃ-চলতি জীবনে আমরা একে-অপরের সাথে লেনদেন করি। সুখ/দু:খ ভাগাভাগি করি। কতিপয় বদ অভ্যাসের কারণে আমাদের মধ্যে হীনমন্যতা বাসা বাধে। মূলত: কারো উপকার করে খোঁটা দেওয়া একটি বিশ্রি অভ্যাস। এটা মানুষের ব্যক্তিত্বকে ছোট করে দেয়। দেখা যায়, একশ্রেণীর মানুষ দান-খয়রাত করে এবং ঋণ-কর্জ দিয়ে পরক্ষণেই খোঁটা দেয়।
বিশেষত যদি গ্রহীতার সঙ্গে দাতার কোনো কারণে সম্পর্ক নষ্ট হয় বা মতপার্থক্য দেখা দেয়, তখন অতীতের উপকারের ফিরিস্তি খুলে দিয়ে খোঁটা দিতে শুরু করে।
কাউকে সহযোগিতা কিংবা উপকার করে খোঁটা দেওয়া ইসলামে নিকৃষ্ট অপরাধ। খোঁটা দিলে উপকারের সওয়াব বিনষ্ট হয়ে যায়। তাই খোঁটা দেওয়া ইসলামের দৃষ্টিতে জঘন্য অন্যায় ও কবিরা গুনাহ হিসেবে বিবেচিত।
পবিত্র কোরআনে ইরশাদ হয়েছে, যারা স্বীয় ধন সম্পদ আল্লাহর রাস্তায় ব্যয় করে, এরপর ব্যয় করার পর সে অনুগ্রহের কথা প্রকাশ করে না এবং কষ্টও দেয় না, তাদেরই জন্যে তাদের পালনকর্তার কাছে রয়েছে পুরস্কার এবং তাদের কোনো আশঙ্কা নেই, তারা চিন্তিতও হবে না। (সুরা বাকারা, আয়াত: ২৬২)
আল্লাহ তাআলা আরো ইরশাদ করেন, হে ঈমানদারগণ! তোমরা অনুগ্রহের কথা প্রকাশ করে এবং কষ্ট দিয়ে নিজেদের দান-বদান্যতা বরবাদ করো না সে ব্যক্তির মতো, যে নিজের ধন-সম্পদ লোক দেখানোর উদ্দেশ্যে ব্যয় করে এবং আল্লাহ ও পরকালের প্রতি বিশ্বাস রাখে না। (সুরা বাকারা, আয়াত : ২৬৪)
এছাড়া যারা সংকীর্ণমনা তারাই উপকার করে অপরকে খোঁটা দেয়। আল্লাহ তাআলা কেয়ামতের দিন তাদের সাথে কথা বলবেন না বলে হাদিসে এসেছে।
আবু যর (রা.) থেকে বর্ণিত, রাসুল (সা.) বলেন, তিন শ্রেণীর লোকের সঙ্গে আল্লাহ তাআলা কেয়ামতের দিন কথা বলবেন না। খোঁটাদানকারী; সে যা কিছু দান-সদকা করে পরক্ষণেই তার খোঁটা দেয়। আর যে ব্যক্তি মিথ্যা শপথ করে তার পণ্য বিক্রি করে এবং যে ব্যক্তি টাখনুর নিচে কাপড় ঝুলিয়ে চলে বা পরিধান করে। (মুসলিম, হাদিস নং: ২০২)
মুসলিম শরিফের আরেকটি হাদিসে আছে, কিয়ামতের দিন আল্লাহ তাআলা তিন শ্রেণীর লোকের সঙ্গে কথা বলবেন না। তাদের দিকে তাকাবেন না এবং তাদের পাপমুক্ত করবেন না। তাদের জন্য রয়েছে পীড়াদায়ক শাস্তি। এই তিনজন হচ্ছে, পায়ের গিরার নিচে ঝুলিয়ে কাপড় পরিধানকারী, অনুগ্রহ ও দান-দক্ষিণার পর খোঁটাদাতা ও প্রচারকারী এবং মিথ্যা শপথ করে পণ্যসামগ্রী বিক্রয়কারী।
অন্য হাদিসে আছে, তিনজন বেহেশতে যেতে পারবে না। তারা হচ্ছে মাতাপিতার অবাধ্য সন্তান, মাদকসেবী, উপকার ও দানদক্ষিণার প্রচার ও খোঁটাদাতা।  (নাসায়ি শরিফ)
তাই কাউকে উপকার করতে চাইলে, নিঃস্বার্থভাবেই করতে হবে। উপকার করে খোঁটা দেয়া যাবে না। নিজের ব্যক্তিত্বকে ছোট করার পাশাপাশি উপকারের সওয়াব নষ্ট না করার প্রতি সতর্ক থাকতে হবে।
আল্লাহ আমাদের তাওফিক দান করুন।

এই বিভাগের আরও খবর

  শীতকালীন পবিত্রতা অর্জনে পরামর্শমালা

  লোক দেখানো উপকারে সওয়াব বিনষ্ট হয়

  ভাবগাম্ভীর্য্য ও উৎসব মুখর পরিবেশে চলছে রাঙ্গামাটিতে শ্রী শ্রী জগদ্ধাত্রী মায়ের পূজা

  প্রিয় নবীর আদর্শ বাস্তবায়নে রবিউল আউয়ালের ভূমিকা

  কাল মঙ্গলবার হিন্দু সম্প্রদায়ের দ্বিতীয় বৃহত্তম ধর্মীয় উৎসব কালী পুজা

  নফল নামাজের ফজিলত

  মণ্ডপে মণ্ডপে বিদায়ের সুর, আজ শুভ বিজয়া দশমী

  মহা নবমীতে মন্ডপে মন্ডপে হাজারো পূর্ণার্থীঃ কাল প্রতিমা বিসর্জনের মধ্যে দিয়ে শেষ হচ্ছে দূর্গোৎসব

  বর্ণাঢ্য আয়োজনে তিন পার্বত্য জেলার ১২১টি পূজা মন্ডপে শারদীয় দুর্গোৎসব শুরু

  সোমবার থেকে দুর্গাপূজা শুরু

  আখেরী চাহার শোম্বা ৭ নভেম্বর

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

আজকের প্রশ্ন

সরকার ও নির্বাচন কমিশনের বিরুদ্ধে বিএনপির বিভিন্ন অভিযোগের প্রতিক্রিয়ায় ওবায়দুল কাদের বলেছেন, নির্বাচন বানচালের জন্য তারা এসব অজুহাত তুলছে। আপনি কি তার সঙ্গে একমত?