সোমবার, ২৩ অক্টোবর ,২০১৭

Bangla Version
  
SHARE

রবিবার, ১৮ জুন, ২০১৭, ০৯:৪৬:৪৮

সরকারের পাশাপাশি বিত্তবানদেরও ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারদের পাশে দাঁড়ানো দরকার-বৃষ কেতু চাকমা

সরকারের পাশাপাশি বিত্তবানদেরও ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারদের পাশে দাঁড়ানো দরকার-বৃষ কেতু চাকমা

রাঙ্গামাটিঃ-রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বৃষ কেতু চাকমা বলেছেন, গত ১৩ জুন একটানা ভারী বর্ষনে রাঙ্গামাটিতে স্মরনকালের ভয়াবহ পাহাড় ধসের ঘটনায় বসতবাড়ীর উপর মাটি চাপা পড়ে নিহত ও আহত ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারদের পাশে দাঁড়িয়ে একটু সহানুভূতি পারে দুর্যোগ ও দুর্ভিক্ষ থেকে মানুষকে রক্ষা করতে। ধান, মাছ, পবাদিপশু, ঘরবাড়ি সবকিছু হারিয়ে মহাবিপর্যয়ে পড়েছেন এ জেলার ক্ষতিগ্রস্থরা। তিনি বলেন, ইতোমধ্যে পরিষদে হতে ভারী বর্ষনে মাটি চাপা পড়ে মৃত ব্যাক্তির পরিবারদের নগদ ২০হাজার টাকা ও আশ্রয়কেন্দ্রে থাকা পরিবারদের খাদ্য প্রদান করা হয়েছে। তিনি সরকারের পাশাপাশি বিভিন্ন উন্নয়ন সংস্থা, সামজিক, সাংস্কৃতিক সংগঠন ও বিত্তবানদের ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারদের পাশে দাঁড়ানোর আহ্বান জানান।
রবিবার (১৮জুন) রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদের সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত পরিষদের মাসিক সমন্বয় সভায় সভাপতির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।  
রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদের নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ ছাদেক আহমদের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত সভায় রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদের সদস্যগন ও হস্থান্তরিত বিভাগের কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন।  
সভায় স্বাস্থ্য বিভাগের সিভিল সার্জন ডাঃ শহীদ তালুকদার বলেন, পাহাড় ধসের ঘটনায় আহত ১৬৪জনকে জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসা প্রদান করা হয়েছে এবং বর্তমানে ২৩জন চিকিৎসাধীন রয়েছে। এছাড়া ১৭টি আশ্রয়কেন্দ্রে মেডিকেল টিমদারা চিকিৎসা সেবা ও ঔষুধ প্রদান করা হচ্ছে। আশ্রয়কেন্দ্রে যতদিন লোকজন থাকবে তাদের নিয়মিত চিকিৎসা সেবা প্রদান করা হবে।
জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা বলেন, গত ১৩ জুন একটানা ভারী বর্ষনের ফলে রাঙ্গামাটির বিভিন্ন উপজেলায় স্কুল ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে এছাড়া ৪জন স্কুল ছাত্রী নিহত হয়েছে । ক্ষতিগ্রস্থ বিদ্যালয়গুলো পুনঃনির্মান ও মেরামতের জন্য মন্ত্রনালয়ের পত্র প্রেরণ করা হয়েছে।
জেলা শিক্ষা কর্মকর্তা বলেন, শিক্ষার মান উন্নয়নে ২য় ব্যচে শিক্ষকদের প্রশিক্ষণ প্রদান করা হচ্ছে।
কৃষি সম্প্রসারন বিভাগের উপ-পরিচালক বলেন, ভারী বর্ষনের ফলে আবাদি জমি, শাক-সবজী’সহ বিভিন্ন ফসলের প্রচুর ক্ষতি হয়েছে। উপজেলাওয়ারী ক্ষতিগ্রস্থ কৃষকদের তালিকা করা হচ্ছে।   
জেলা মৎস্য কর্মকর্তা জানান, জেলার বিভিন্ন উপজেলায় ভারী বর্ষনের ফলে ক্রীক ও পুকুর ভাঙ্গনের ফলে মৎস্য চাষীদের প্রায় ৫৮লাখ টাকার ক্ষতি হয়েছে।
জেলা সমাজ সেবা বিভাগের কর্মকর্তা বলেন, ভারী বর্ষনের ফলে ক্ষতিগ্রস্থ পরিবার ও গৃহহীনদের মন্ত্রনালয়ের নির্দেশক্রমে সমাজসেবা হতে সহায়তা প্রদান করা হবে।
সভায় হস্থান্তরিত বিভাগের অন্যান্য কর্মকর্তাগন তাদের বিভাগের স্ব স্ব কার্যক্রম উপস্থাপন করেন এবং বিভিন্ন সমস্য ও সম্ভবনার কথা তুলে ধরে মতামত ও সু পরামর্শ প্রদান করেন।
সভায় উত্থাপিত যেসব সমস্য ও বিষয়গুলো নিয়ে বিশদভাবে আলোচনা হয়েছে সেগুলো বাস্তবায়নের ক্ষেত্রে পরিষদের সর্বাত্বক সহযোগিতা প্রদানের আশ্বাস প্রদান করেন চেয়ারম্যান ও সদস্যগন।
এর আগে সভার শুরুতেই জেলায় ভারী বর্ষনে মাটি চাপা পড়ে মৃত ব্যাক্তিদের সৎগতি কামনায় সকলে দাঁড়িয়ে এক মিনিট নীরবতা পালন করে। 

এই বিভাগের আরও খবর

  টানা বৃষ্টি ও পাহাড়ি ঢলে রাঙ্গামাটিসহ ১০ উপজেলার নিম্নাঞ্চল প্লাবিত, তলিয়ে গেছে ফসলি জমি

  রাঙ্গামাটি-খাগড়াছড়ি সড়কে যাত্রীবাহী বাসের নামে মরণ ফাঁদ

  কাপ্তাই হ্রদে পানি ধারণ ক্ষমতার সর্বোচ্চ পর্যায়,বাঁধ রক্ষায় ১৬টি গেট খুলে দেওয়া হয়েছে

  কমিউনিটি পুলিশিং ডে পালন নিয়ে রাঙ্গামাটি জেলা পুলিশের প্রেস ব্রিফিং

  আদিবাসী গুর্খা সম্প্রদায়ের ঐতিহ্যবাহী উৎসব “ভৈল ঢেউসি” উদযাপিত

  পাহাড়ে সংঘাত বন্ধের আসার আহবান জানিয়েছেন ড. এফ দীপংকর মহাথেরো (ধুতাঙ্গ ভান্তে)

  নোংরা পরিবেশে পাউরুটি বিস্কুট রাখার দায়ে বেকারি মালিকের ৩০ হাজার টাকা জরিমানা

  ভবনের অভাবে লংগদু রাবেতা মডেল কলেজকে স্নাতক মানে উন্নীত করা যাচ্ছে না

  পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের উন্নয়ন কর্মকান্ড বাস্তবায়ন কাজের তদারকী বাড়াতে চেয়ারম্যানের নির্দেশ

  জাতীয় কৃমি নিয়ন্ত্রণ সপ্তাহ উপলক্ষে রাঙ্গামাটিতে জেলা এ্যাডভোকেসি সভা

  কাপ্তাই উপজেলা প্রশাসনের মরহুম আবুল কাশেম স্মরণে শোকসভা

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

আজকের প্রশ্ন

জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী বলেছেন, বাংলাদেশ সম্পূর্ণ মানবিক কারণে রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দিলেও এখন এটা বাংলাদেশের জন্য বোঝা হয়ে দাঁড়িয়েছে। আপনি কি তার এ বক্তব্যের সঙ্গে একমত?