বুধবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ,২০১৯

Bangla Version
  
SHARE

রবিবার, ০৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ০১:০৯:৩০

রাঙ্গামাটিতে অনির্দিষ্টকালের পরিবহন ধর্মঘট, ভোগান্তিতে দূর পাল্লার যাত্রীরা

রাঙ্গামাটিতে অনির্দিষ্টকালের পরিবহন ধর্মঘট, ভোগান্তিতে দূর পাল্লার যাত্রীরা

রাঙ্গামাটিঃ-চট্টগ্রাম বিভাগীয় গণ ও পণ্য পরিবহন মালিক ঐক্য পরিষদের আহ্বানে ৯ দফা দাবি বাস্তবায়নের লক্ষ্যে রাঙ্গামাটিতে অনির্দিষ্টকালের জন্য পরিবহন ধর্মঘট চলছে। রবিবার (৮ সেপ্টেম্বর) সকাল থেকে রাঙ্গামাটির শহরে সিএনজি অটোরিক্সা চলাচল করলেও ধর্মঘটের কারণে সকালে রাঙ্গামাটি থেকে কোনও ধরনের দূরপাল্লার যাত্রীবাহী ও পন্যবাহী বাস ছেড়ে যায়নি।
এতে ভোগান্তিতে পড়েছেন দূর পাল্লার যাত্রী ও সাধারণ পর্যটকরা। যাত্রী ও পর্যটকদের অভিযোগ, কোনও ধরনের আগাম ঘোষণা ছাড়াই অনির্দিষ্টকালের জন্য পরিবহন ধর্মঘট ডাকায় বাস স্টেশনে এসে অনেকেই আটকা পড়েছেন। তারা বলেন, আগে থেকে পরিবহন ধর্মঘট জানানো হলে এই ভোগান্তিতে পড়তে হতো না। এখন কি করবো ভেবে পাচ্ছি না। তবে রাঙ্গামাটি শহরে ও অভ্যন্তরীন রুট গুলোতে যানবাহন চলাচল স্বাভাবিক রয়েছে।
দাবী দাওয়ার কথা বলে ইউনিক পরিবহনের কাউন্টার ম্যানেজার জানান, রাঙ্গামাটি শহরে সকাল থেকে কোন বাস ছেড়ে যাচ্ছে না। আমাদের গাড়ী আছে কিন্তু আমরা টিকেট বিক্রি করতে পারছি না। যাত্রী বাহী বাস ও মালামাল পরিবহন সব বাস ও ট্রাক চলাচল বন্ধ রয়েছে। আমাদেরকে টিকিট বিক্রি করতে বলা হলে তখন যাত্রীকে টিকেট করবো।
এব্যাপারে চট্টগ্রাম রাঙ্গামাটি বাস মালিক সমিতির সভাপতি মোঃ মঈন উদ্দিন সেলিম বলেন, গণ ও পণ্য পরিবহন মালিক ঐক্য পরিষদের ৯ দফা দাবি হলো ১. গণ ও পণ্য পরিবহনের কাগজপত্র হালনাগাদ করার জন্য জরিমানা মওকুফ করতে হবে, ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে স্থাপিত ওয়েট স্কেল দুটি পরিচালনার দায়িত্ব বাংলাদেশ সেনাবাহিনীকে দেয়াসহ ৯ দাফা দাবী কথা জানান তিনি। আর এইসব দাবী যতদিন সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ মেনে নেবে না ততদিন অনিদিষ্টকালের ধর্মঘট চলবে।
এদিকে আকস্মিক ধর্মঘটের ফলে রাঙ্গামাটিতে আটকা পড়েছে শত শত যাত্রী। যাত্রীদের দাবী ১ দিন আগে থেকেও যদি ধর্মঘটের কথা জানতে পারতাম তাহলে আমাদের আজকে এই ভোগান্তি হতো না। তাই নেতৃবৃন্দ ভোগান্তি কমাতে বাস মালিক সমিতির নেতৃবৃন্দকে আরো বেশী সচেতন হওয়ার দাবী জানান যাত্রীরা।

৯টি দফা হচ্ছে ১। পণ্য ও পণ্য পরিবহণের কাগজ পত্র হালনাগাদ করার জন্য জরিমানা মওকুফ করতে হবে। জরিমানা মওকুফের সিদ্ধান্ত না আসা পর্যন্ত কাগজপত্র যাছাই বাছাইয়ের নামে হয়রানী বন্ধ করতে হবে।
২। বিআরটিএ ও জেলা ম্যাজিস্ট্রেট কর্তৃক ভোক্তা অধিকার আইন প্রয়োগ করে গণ ও পণ্য পরিবহনে কোন জরিমানা আদায় করা যাবেনা। হাইওয়ে ও থানা পুলিশ কর্তৃক গাড়ী জব্দ ও নিকুইজিশন করা যাবেনা।
৩। চট্টগ্রাম মেট্রো এলাকায় গাড়ীর ইকোনমিক লাইফের অজুহাত দেখিয়ে ফিটনেস ও পারমিট নবায়ণ বন্ধ রাখা যাবেনা।
৪। ট্রাফিক পুলিশ কর্তৃক যান্ত্রিক ত্রুটিযুক্ত গাড়ী ছাড়া অন্যকোন অজুহাত দেখিয়ে গণ ও পণ্য পরিবহণ টু বা ডাম্পিং করা যাবেনা। ড্রাইভার কর্তৃক চালিত গাড়ীর রেকার ভাড়া আদায় করা যাবেনা।
৫। সহজ শর্তে চালকদের ড্রাইভিং লাইসেন্স প্রদান করতে হবে। কাগজপত্র হালনাগাদের ক্ষেত্রে বিআরটিএ এর কার্যক্রমে ভোগান্তি বন্ধ করতে হবে।
৬। বৃহত্তর চট্টগ্রাম বিভাগের সড়ক ও মহাসড়কে গ্রাম সিএনজি ও মেট্রো সিএনজি চলাচলের ক্ষেত্রে আরটিসি এর সিদ্ধান্ত কার্যকর করতে হবে।
৭। ঢাকা চট্টগ্রামের মহাসড়কে স্থাপিত ওয়ে স্কেল দুটি পরিচালনার দায়িত্ব বাংলাদেশ সেনাবাহিনীকে দিতে হবে।
৮। মহাসড়কে পণ্য চুরি/ ডাকাতি রোধ কল্পে বর্তমান আইনের পরিবর্তণ ঘটিয়ে নতুন আইন প্রনয়ণ করতে হবে।
৯। মহাসড়ক ও মেট্রো শহর এলাকায় গণ ও পণ্য পরিবহণ যত্রতত্র দাড় করিয়ে চেকিং এর নামে হয়রানি বন্ধ করে নির্দিস্ট দুটি স্থানে চেকিং পয়েন্ট নির্ধারণ করতে হবে।

এই বিভাগের আরও খবর

  দেশের ক্রীড়া উন্নয়নে বাংলাদেশ অনেক দূর এগিয়ে চলছে-সংসদ সদস্য দীপংকর তালুকদার

  কাপ্তাই থেকে উৎপাদিত পরিবেশ বান্ধব সৌর বিদ্যুৎ সারা দেশে সঞ্চলিত যাচ্ছে

  সরকার কর্মজীবি মা ও শিশুদের স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত প্রদানের লক্ষ্যে কাজ করে যাচ্ছে-এ কে এম মামুনুর রশিদ

  প্রশাসন আইনের শাসনকে সুপ্রতিষ্ঠিত করে ন্যায় ও সমতা ভিত্তিক পদক্ষেপ গ্রহনের আহবান-এ্যাড.দীপেন দেওয়ান

  রাঙ্গামাটির খাদ্য অফিসে প্রতি সিডিউল ৩শ টাকা বেশী নেয়ার অভিযোগ!

  রাঙ্গামাটি ডিসি অফিস সংলগ্ন এলাকায় প্রকাশ্যে ধুমপান করার দায়ে ৬ ব্যক্তিকে জরিমানা

  পাহাড়ি কৃষি গবেষণা কেন্দ্রে গ্রীষ্মকালীন টমেটো উৎপাদন বিষয়ক কৃষক প্রশিক্ষণ

  একটি ব্রীজের অভাবে পাঁচ গ্রামের মানুষের চরম দূর্ভোগ

  রাঙ্গামাটি কলেজ গেইট এলাকার জমি বিরোধ নিয়ে প্রয়াত ডা.একে দেওয়ান পরিবারের সংবাদ সম্মেলন

  রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদ চেয়ারম্যানের সাথে গুর্খা সম্প্রদায়ের সৌজন্য সাক্ষাৎ

  রাঙ্গামাটি সদর উপজেলা এলাকায় পারিবারিক কলহের জের ধরে রাজমিস্ত্রীর বিষ পানে আত্মহত্যা

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

আজকের প্রশ্ন

ডেঙ্গুতে মৃত্যুর সংখ্যা নিয়ে বিভ্রান্তির প্রেক্ষাপটে আইইডিসিআরের সাবেক পরিচালক মাহমুদুর রহমান বলছেন, মৃত্যুর ঘটনাগুলো ‘রিভিউ’ করার কোনো প্রয়োজন নেই, চিকিৎসকদের কথাই যথেষ্ট। আপনি কি তাকে সমর্থন করেন?