রবিবার, ২২ সেপ্টেম্বর ,২০১৯

Bangla Version
  
SHARE

বৃহস্পতিবার, ১৮ জুলাই, ২০১৯, ০৮:৩৬:০৯

রাঙ্গামাটিতে ৭৩ বৌদ্ধ বিহারসহ চিকিৎসা সহায়তার অনুদান প্রদান

রাঙ্গামাটিতে ৭৩ বৌদ্ধ বিহারসহ চিকিৎসা সহায়তার অনুদান প্রদান

রাঙ্গামাটিঃ-রাঙ্গামাটিতে ৭৩ বৌদ্ধ বিহারসহ অসহায় রোগীদের চিকিৎসা সহায়তার জন্য অনুদান প্রদান করা হয়েছে। এসব অনুদান দেয়া হয়েছে, প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ ও কল্যাণ এবং বৌদ্ধধর্মীয় কল্যাণ ট্রাস্ট তহবিল হতে।
এ উপলক্ষে বৃহস্পতিবার (১৮ জুলাই) সকাল সাড়ে ১০টায় শহরের মৈত্রী বিহার দেশনালয়ে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে এসব অনুদানের চেক বিতরণ করে, বৌদ্ধ ধর্মীয় কল্যাণ ট্রাস্টের রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলার ট্রাস্টি অফিস। অনুষ্ঠানে মোট ১৯ লাখ ১৮ হাজার টাকার চেক বিতরণ করা হয়।
বৌদ্ধ ধর্মীয় কল্যাণ ট্রাস্ট রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলার ট্রাস্টি দীপক বিকাশ চাকমার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত বিতরণী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান ও পার্বত্য চট্টগ্রাম হেডম্যান অসোসিয়েশনের সভাপতি চিংকিউ রোয়াজা। এতে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, পার্বত্য চট্টগ্রাম বৌদ্ধ অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি প্রগতি খীসা ও রাঙ্গামাটি সদর উপজেলার ভাইস চেয়ারম্যান দুর্গেশ্বর চাকমা। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন, রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলার প্যাগোডাভিত্তিক প্রাক-প্রাথমিক শিক্ষা প্রকল্পের সুপারভাইজার শাক্যরাজ চাকমা। অনুষ্ঠানে জেলার বিভিন্ন বৌদ্ধ ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানের সভাপতি ও সম্পাদকরা উপস্থিত ছিলেন। এ সময় মঙ্গলাচরণ পরিচালনা করেন, মৈত্রী বিহারের আবাসিক ভিক্ষু শ্রীমৎ শীলানন্দ স্থবির।
অনুষ্ঠানে মেরামত ও সসংস্কারের জন্য সদরসহ জেলার বিভিন্ন উপজেলার ৭৩টি বৌদ্ধ বিহারকে ১৭ লাখ ৫৯ হাজার, তিনটি শ্মশান সংষ্কারের জন্য ৮০ হাজার এবং ছয়জন গরিব ও অসহায় রোগীকে ৮০ টাকার অনুদানের চেক বিতরণ করা হয়েছে। বৌদ্ধ ধর্মীয় কল্যাণ ট্রাস্টের রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলার ট্রাস্টি দীপক বিকাশ চাকমা জানান, গত বৈশাখী পুর্ণিমা উপলক্ষে তার ত্রাণ ও কল্যাণ তহবিল হতে জেলার ৬৩ বৌদ্ধ বিহার সংস্কার ও মেরামতের জন্য ১২ লাখ টাকার অনুদান দিয়েছেন। একই সঙ্গে বৌদ্ধ ধর্মীয় কল্যাণ ট্রাস্টের নিজস্ব তহবিল হতে ১০টি বৌদ্ধ বিহার সংস্কার ও মেরামতের জন্য ৫ লাখ টাকা অনুদান দেয়া হয়েছে। এছাড়া এ কল্যাণ ট্রাস্টের নিজস্ব তহবিল হতে তিনিট শ্মশাসন সংস্কারে ৮০ হাজার টাকা এবং ৬ জন অসহায় দূরারোগ্য রোগীর চিকিৎসা সহায়তায় ৮০ হাজার টাকা অনুদান দেয়া হয়েছে।
অনুষ্ঠানে বক্তারা বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অসাম্প্রদায়িক ও দূরদর্শী চেতনায় বর্তমানে পার্বত্য চট্টগ্রাম অঞ্চলের ধর্ম, বর্ণ, নির্বিশেষে সবার উন্নয়নে সমান সুযোগ-সুবিধা নিশ্চিত হয়েছে। ফলে পার্বত্য চট্টগ্রামের উন্নয়নে ব্যাপক কর্মকান্ড বাস্তবায়ন করছে বর্তমান সরকার। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পার্বত্য চট্টগ্রাম অঞ্চলের মানুষের প্রতি অত্যন্ত আন্তরিক ও সহানুভূতিশীল। তার ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় বর্তমানে পার্বত্য চট্টগ্রামে শান্তির বাতাবরণ বইছে। পার্বত্য চট্টগ্রাম আগের মতো আর পিছিয়ে নেই। সবক্ষেত্রে দ্রুত এগিয়ে যাচ্ছে পার্বত্য চট্টগ্রাম। এটা সম্পূর্ণ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অবদান।

এই বিভাগের আরও খবর

  একটা জাতিকে সুস্থভাবে গড়ে তুলতে হলে তার ভিত্তিটাকে মজবুত করে তুলতে হবে-সংসদ সদস্য দীপংকর তালুকদার

  কাপ্তাই থেকে সন্ত্রাস ও চাঁদাবাজ দুর করতে সেনাবাহিনী যে কোন ভূমিকা নিতে প্রস্তুত-তৌহিদ উজ্জামান

  রাঙ্গামাটিতে বিভিন্ন ক্লাবে জেলা প্রশাসনের অভিযানে ১২জনকে জরিমানা, সরঞ্জাম জব্দ

  রাঙ্গামাটিতে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত-১, আহত-৫

  কাউখালীতে চাঁদা না দেয়ায় বটতলী সড়কে যান চলাচল বন্ধ, চাঁদা চেয়ে ব্যবসায়ীদেরও চিঠি

  পাহাড়ে পিছিয়ে পরা জনগোষ্ঠিদের সর্বক্ষেত্রে এগিয়ে নিতে মোনঘর প্রতিষ্ঠানটি একটি উজ্জ্বল বাতিঘর-সংসদ সদস্য দীপংকর তালুকদার

  বাঘাইছড়িতে জেএসএস দুই কর্মীকে হত্যাকান্ডে সাবেক চেয়ারম্যান বড় ঋষি চাকমাকে প্রধান আসামী করে থানায় মামলা

  কাউখালীর সুগারমিল আদর্শগ্রাম সড়কের এক কিলোমিটার সড়ক যেন সড়ক নয় ফসলী জমি

  পার্বত্য অঞ্চলের প্রান্তিক জনগোষ্ঠীদের মৌলিক অধিকার নিশ্চিত করতে সরকার কাজ করে যাচ্ছে-একেএম মামুনুর রশিদ

  পাহাড়ি ছড়া ও ঝরনার উৎস খুঁজে বের করে পানি সংকট দুরীকরণে কার্যকর উদ্যোগ নিতে হবে-বৃষ কেতু চাকমা

  দূর্গম এলাকায় গবাদী পশু পালনের উদ্যোগকে আরো বেশী বেগবান করতে হবে-রেমলিয়ানা পাংখোয়া

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

আজকের প্রশ্ন

আওয়ামী লীগের দুর্নীতিবাজদের বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে দাবি করে ওবায়দুল কাদের বলেছেন, সরকারের অনেক মন্ত্রী দুদকে হাজিরা দিচ্ছেন, আওয়ামী লীগের অনেক নেতাকর্মী জেলে আছেন। তার এই বক্তব্যের সঙ্গে আপনি একমত?