বৃহস্পতিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ,২০১৯

Bangla Version
  
SHARE

রবিবার, ২৬ মে, ২০১৯, ০৮:১৯:৫২

দীর্ঘ বছর ধরে মানুষের প্রাণের দাবী চন্দ্রঘোনা ফেরিঘাট সংযোগ সেতু নির্মাণ কাজ অনুমোদন

দীর্ঘ বছর ধরে মানুষের প্রাণের দাবী চন্দ্রঘোনা ফেরিঘাট সংযোগ সেতু নির্মাণ কাজ অনুমোদন

রাঙ্গামাটিঃ-অবশেষে সব জল্পনা কল্পনা ছাড়িয়ে রাঙ্গামাটি, চন্দ্রঘোনা, রাজস্থলী, কাপ্তাই, রাঙ্গুনিয়া, বান্দরবান ও মানুষের দাবী চন্দ্রঘোনা ফেরিঘাট সংযোগ সেতু নির্মাণ কাজ অনুমোদন দেয়া হয়েছে। এই এলাকার প্রাণের দাবী ছিল সংযোগ সেতু নির্মাণের। ফলে যোগাযোগ সুবিধার্থে সড়ক ও সেতু মন্ত্রানালয় সংযোগ সেতু নির্মাণ করতে যাচ্ছে। সম্প্রতি সড়ক ও জনপদ বিভাগে এক বৈঠকে সেতুটি নির্মাণের জন্য অনুমোদন প্রদান করা হয়েছে। এসময় তথ্যমন্ত্রী ড. হাসান মাহমুদ ও সংশ্লিষ্ট বিভাগের কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন।
দীর্ঘ বছর ধরে একটি জেলা ও তিনটি উপজেলার সাধারণ মানুষের প্রাণের দাবী ছিলো কর্ণফুলী নদীতে একটি সংযোগ সেতু নির্মাণ করে দেয়ার। সেতুটি নির্মিত হলে কাপ্তাই-রাজস্থলী, বান্দরবানের সাথে রাঙ্গুনিয়া উপজেলার যোগযোগ ব্যবস্থার উন্নতি ঘটবে। আর অবশেষে এসব উপজেলার বাসিন্দাদের কাঙ্খিত স্বপ্ন পূরণ হতে চলেছে।
দীর্ঘদিন ধরে অনেক কষ্ট করে এসব এলাকার মানুষ ফেরি পারাপার করে যোগাযোগ করতে হয়েছে। অনেক সময় যাওয়া আসা করা যাত্রীরা ঘন্টার পর ঘন্টা সময় ব্যয় করতে হয়। সন্ধ্যা হলে ফেরি পারাপার বন্ধ হয়ে যায়। এসময় যাত্রী ও সাধারণ মানুষ চরম বিপাকে পড়তে হয়। এবার সংযোগ সেতুটি নির্মান করা হলে এ ধরনের সমস্যার হাত থেকে রক্ষা পাবে এবং যোগাযোগ ব্যবস্থা আরও শক্তিশালী হবে বলে স্থানীয়দের অভিমত।
এব্যাপারে রাঙ্গামাটি ও বান্দরবানের বাস চালকরা জানান, রাঙ্গামাটি থেকে বান্দরবান যেতে সময় লাগে ৩ থেকে ৪ ঘন্টাও বেশী সময়। এখন সংযোগ সেতুটি নির্মান হলে ২ ঘন্টার মধ্যে বান্দরবান যাওয়া যাবে। এতে করে যাত্রীদের সময় বেচে যাবে এবং পরিশ্রমও কম হবে বলে জানান তারা। এছাড়াও সংযোগ সেতুটি নির্মিত হলে কক্সবাজারের বাস ও পর্যটনবাহী গাড়ি এই সেতু দিয়ে খুব সহজে চলাচল করতে পারবে।
অন্যদিকে সরকারের এই মহান উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়ে এই বিষয়ে কাপ্তাই সদর উপজেলার সাবেক চেয়ারম্যান দিলদার হোসেন ও সাবেক নিবার্হী কর্মকর্তা (ইউএনও) রুহুল আমীন সেতুটি নির্মাণের অনুমোদন পাওয়ায় সরকারের প্রশংসা করেন। অন্যদিকে চন্দ্রঘোনা ফেরিঘাট সংযোগ সেতুটি অনুমোদন ও নির্মাণে নিরলস ভূমিকা রয়েছে ড. হাসান মাহমুদ ও সাবেক প্রতিমন্ত্রী ও রাঙ্গামাটি ২৯৯ নং আসন সংসদ সদস্য দীপংকর তালুকদারের। আর এই সংযোগ সেতুটি অনুমোদন দেওয়ায় পাহাড়ের জনসাধারণ কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন এবং প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনাকে ধন্যবাদ জানান।

এই বিভাগের আরও খবর

  উন্নতশীল দেশ গঠন ও প্রধানমন্ত্রীর স্বপ্ন বাস্তবায়নে সকলকে সমন্বয়ের মাধ্যমে কাজ করতে হবে-বৃষ কেতু চাকমা

  শারদীয় দূর্গোৎসব আনন্দঘন পরিবেশে পালন করতে সর্বাত্মক প্রচেষ্টা থাকবে প্রশাসনের-এ,কে,এম মামুনুর রশিদ

  রাঙ্গামাটি শহরের চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ী জেল হাজতে

  রাঙ্গামাটি পৌর মেয়র আকবর হোসেন চৌধুরী রাষ্ট্রীয় কাজে বিদেশ সফর, ভারপ্রাপ্ত মেয়র জামাল উদ্দিন

  মাইনীমুখ বাজারে অগ্নিকান্ডে ক্ষতিগ্রস্থ এলাকা পরিদর্শন লংগদু জোন কমান্ডার

  বাঘাইছড়িতে দূর্বৃত্তদের গুলিতে পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতির এমএন লারমা গ্রুপের দুই কর্মী নিহত

  দেশের ক্রীড়া উন্নয়নে বাংলাদেশ অনেক দূর এগিয়ে চলছে-সংসদ সদস্য দীপংকর তালুকদার

  কাপ্তাই থেকে উৎপাদিত পরিবেশ বান্ধব সৌর বিদ্যুৎ সারা দেশে সঞ্চলিত যাচ্ছে

  সরকার কর্মজীবি মা ও শিশুদের স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত প্রদানের লক্ষ্যে কাজ করে যাচ্ছে-এ কে এম মামুনুর রশিদ

  প্রশাসন আইনের শাসনকে সুপ্রতিষ্ঠিত করে ন্যায় ও সমতা ভিত্তিক পদক্ষেপ গ্রহনের আহবান-এ্যাড.দীপেন দেওয়ান

  রাঙ্গামাটির খাদ্য অফিসে প্রতি সিডিউল ৩শ টাকা বেশী নেয়ার অভিযোগ!

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

আজকের প্রশ্ন

ডেঙ্গুতে মৃত্যুর সংখ্যা নিয়ে বিভ্রান্তির প্রেক্ষাপটে আইইডিসিআরের সাবেক পরিচালক মাহমুদুর রহমান বলছেন, মৃত্যুর ঘটনাগুলো ‘রিভিউ’ করার কোনো প্রয়োজন নেই, চিকিৎসকদের কথাই যথেষ্ট। আপনি কি তাকে সমর্থন করেন?