সোমবার, ১৯ আগস্ট ,২০১৯

Bangla Version
  
SHARE

শুক্রবার, ১৯ এপ্রিল, ২০১৯, ০৯:০৭:১৬

পার্বত্যাঞ্চলের উন্নয়নে পরিকল্পিত পরিকল্পনা গ্রহন করতে হবে-ড.সাইফুল ইসলাম দিলদার

পার্বত্যাঞ্চলের উন্নয়নে পরিকল্পিত পরিকল্পনা গ্রহন করতে হবে-ড.সাইফুল ইসলাম দিলদার

রাঙ্গামাটিঃ-বাংলাদেশের এক দশমাংশ জায়গা জুড়ে পার্বত্য চট্টগ্রাম। বিগত আশির দশক থেকে এই পার্বত্যাঞ্চলে মানবাধিবার সুপ্রতিষ্টিত করার জন্য কাজ করে আসছিলাম বলেই ১৯৯৭ সালের ২ডিসেম্বর সরকার এবং জনসংহতি সমিতির নেতা জ্যোতিরিন্দ্র বোধি প্রিয় সন্তু লারমার সাথে পার্বত্য শান্তি চুক্তি সম্পাদিত হয়েছে। 
বাংলাদেশ মানবাধিকার কমিশন রাঙ্গামাটি জেলার উদ্যোগে শুক্রবার (১৯ এপ্রিল) সকালে জেলা পরিষদ সম্মেলন কক্ষে রাঙ্গামাটি আঞ্চলিক মানবাধিকার সম্মেলন-২০১৯ এ প্রধান অতিথির বক্তব্য দিতে গিয়ে বাংলাদেশ মানবাধিকার কমিশনের কেন্দ্রিয় মহা সচিব ড.সাইফুল ইসলাম দিলদার এসব কথা বলেন। 
কমিশনের রাঙ্গামাটি জেলা সভাপতি ডা. সুপ্রিয় বড়ুয়ার সভাপতিত্বে অনুষ্টিত সম্মেলনে বিশেষ অতিথি ছিলেন, কমিশনের ঢাকা গভর্ণর সিকান্দার আলী জাহিদ, কমিশনের বিশেষ প্রতিনিধি গোলাম কিবরিয়া মোল্লা, দৈনিক গিরিদর্পনের সম্পাদক, চারন সাংবাদিক কিংবদন্তি মানবাধিকার নেতা একেএম মকছুদ আহমেদ প্রমুখ। 
কমিশনের রাঙ্গামাটি জেলা সাধারন সম্পাদক শিক্ষক তপন কান্তি বড়ুয়ার সঞ্চালনায় অনুষ্টিত সম্মেলনে মুখ্য আলোচক ছিলেন, রাঙ্গামাটি সরকারী কলেজের সহকারী অধ্যাপক অনির্বান বড়ুয়া। 
অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন কমিশনের চট্টগ্রাম জেলা সভাপতি মোঃ নুর উদ্দিন, খাগড়াছড়ি জেলার সভাপতি এড, মহি উদ্দিন, সাধারণ সম্পাদক নিগার সুলতানা, কমিশনের লক্ষ্মীপুর জেলা উপদেষ্টা মমতাজ বেগম, ওয়ার্ল্ড পীস্ এন্ড হিউম্যান রাইটস সোসাইটি রাঙ্গামাটি জেলা সভাপতি শিক্ষক অরূপ মুৎসুদ্দী, কমিশনের কাপ্তাই উপজেলা সাধারন সম্পাদক কাজী মোশারফ হোসেন, মাটিরাঙ্গা প্রতিনিধি মোঃ সাইদুর রহমান, অবসর প্রাপ্ত সরকারী কল্যান সমিতির সাধারণ সম্পাদক মোঃ জসীম উদ্দিন, কমিশনের বান্দরবান সদর উপজেলা প্রতিনিধি নু শৈ প্রু মারমা, মানবাধিকার কর্মী প্রকৌশলী সমিল বড়ুয়া, কমিশনের ময়মন সিংহ জেলা সভাপতি মতিউর রহমান প্রমুখ। 
সম্মেলনে প্রধান অতিথি ড.সাইফুল ইসলাম দিলদার আরো বলেন, পার্বত্য অঞ্চলের উন্নয়নে পরিকল্পিত পরিকল্পনা গ্রহন করতে হবে। তা না হলে এইখানকার উন্নয়ন সম্ভব নয়। তিনি বলেন, এইখানে শান্তি প্রতিষ্টা হতে পারে একমাত্র সবাই আত্ম নির্ভরশীল হলে। আর আত্ম নির্ভরশীল হতে হলে খয়রাত, রিলিফ দিয়ে আত্মনির্ভরশীল করা যাবেনা। এর জন্য নারী শিক্ষা সংস্কৃতির উন্নয়নের পাশাপাশি ক্ষুদ্র মাঝারী শিল্প কারখানা তৈরীসহ বিভিন্ন উন্নয়নমুলক কাজ হাতে নেওয়া জন্য তিনি সরকারের প্রতি আহবান জানান। তিনি মানবাধিকার নেতৃবৃন্দদের আয়ের একটি অংশ মানবতার কাজে ব্যয় করার জন্য পরামর্শ দেন। 
সম্মেলনে বিশেষ অতিথি একেএম মকছুদ আহমেদ বলেন, একসময় পার্বত্যাঞ্চলে আজকের মতো স্বাধীন ভাবে কথা বলা যেতোনা, স্বাধীন ভাবে ঘোরা যেতোনা, আজ তার অনেক পরিবর্তন হয়েছে। তিনি বলেন, শান্তিচুক্তি হয়েছে তারপরও এখানে প্রতিনিয়ত মানবাধিকার ভুলুন্ঠিত হচ্ছে, পাখির মতো গুলি করে মানুষ মারা হচ্ছে। তিনি এই থেকে উত্তরনের জন্য সরকারের পাশাপাশি মানবিধিকার কর্মীদেরও এগিয়ে আসার আহবান জনান। 
বিশেষ অতিথি সিকান্দার আলী জাহিদ বলেন, এখনই সময় সচেতন হওয়ার, ঐক্যবদ্ধ হওয়ার, নতুবা আরো অনেক নুসরাতকে এইভাবে হারাতে হবে। বিশেষ অতিথি গোলাম কিবরিয়া মোল্লা বলেন, ঐক্যবদ্ধ নাহলে মানবাধিকার সুপ্রতিষ্টিত করা যাবেনা। সম্মেলনের মুখ্য আলোচক অনির্বান বড়ুয়া বলেন এখনও দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলে প্রতিদিন মানবাধিকার লঙ্ঘিত হচ্ছে তাই সব মানবাধিকার কর্মীরা এক নাহলে এথেকে উত্তরনের পথ নেই। 
আঞ্চলিক সম্মেলনে বাংলাদেশ মানবাধিকার কমিশন কেন্দ্রীয় কমিটির পক্ষ থেকে মানবাধিকার কর্মকান্ডে বিশেষ অবদানের জন্য কমিশনের খাগড়াছড়ি জেলা সভাপতি এড,মহি উদ্দিন এবং কাপ্তাই উপজেলার সাঃ সম্পাদক কাজী মোশারফ হোসেনকে স্বর্ণ পদক প্রদান করা হয়।
এছাড়া রাঙ্গামাটি, খাগড়াছড়ি, বান্দবান জেলাসহ বিভিন্ন উপজেলার প্রায় ৩০ জন মানবাধিকার কর্মীকে মানবাধিকার কর্মকান্ডে বিশেষ অবদানের জন্য মানবাধিকার পদক প্রদান করা হয়। এছাড়া কমিশন রাঙ্গামাটি জেলার পক্ষ থেকে সম্মেলনে উপস্থিত প্রধান ও বিশেষ অতিথি, মুখ্য আলোচককে সম্মাননা স্বারক প্রদান করা হয়। সম্মেলনের শুরুতে জাতীয় সংগীত পরিবেশন, পবিত্র ধর্মীয় গ্রন্থদি পাঠ এবং মানবাধিকার প্রতিষ্টাই আত্মদানকারী সকল শহীদদের স্মরনে দাঁড়িয়ে ১মিনিট নিরবতা পালনে করা হয়। সম্মেলন শেষে অতিথিবৃন্দসহ এতে অংশগ্রহনকারীরা প্রীতিভোজে অংশ নেন।

এই বিভাগের আরও খবর

  রাজস্থলীতে সেনা টহল দলের উপর সন্ত্রাসীদের গুলিবর্ষণঃ স্থল মাইন বিষ্ফোরণ ও গুলিবিদ্ধ হয়ে ৪ সেনা সদস্য আহত

  তিন পার্বত্য জেলা পরিষদকে শক্তিশালী করতে জনবল বৃদ্ধিসহ নানামুখী পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে-সচিব

  রাঙ্গামাটিতে মাদক বিরোধী সচেতনতামুলক ডিজিটাল কিওস্ক এলইডি ডিসপ্লের উদ্বোধন করলেন জেলা প্রশাসক

  দীর্ঘ ৫৭ বছর ধরে একটি ব্রিজের দাবি বাস্তবায়িত করেনি কেউঃ ঝুঁকি নিয়ে পারাপার করছে এলাকাবাসী

  রাঙ্গামাটিতে জেলা প্রশাসনের মাসিক আইন শৃংখলা সভা অনুষ্ঠিত

  জনগনের জানমালের নিরাপত্তার স্বার্থে সরকারের যা করার দরকার তাই করবে-বীর বাহাদুর ঊশৈসিং

  পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের বাস্তবায়নাধীন কৃষদের মিশ্র ফল চাষ পরিদর্শনে পার্বত্য সচিব মোঃ মেসবাহুল ইসলাম

  পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ড বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর চিন্তার ফলশ্রুতি-নব বিক্রম কিশোর ত্রিপুরা

  কাপ্তাই ট্রাফিক পুলিশের বিশেষ অভিযানে ১০টি মোটরযান এর বিরুদ্ধে মামলা

  জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে রাঙ্গামাটি জেলা প্রশাসনের শ্রদ্ধা নিবেদন, শোক র‌্যালী ও আলোচনা সভা

  বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন বাস্তবায়নে শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করে দেশকে এগিয়ে নিয়ে যেতে হবে-বৃষ কেতু চাকমা

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

আজকের প্রশ্ন

ডেঙ্গুতে মৃত্যুর সংখ্যা নিয়ে বিভ্রান্তির প্রেক্ষাপটে আইইডিসিআরের সাবেক পরিচালক মাহমুদুর রহমান বলছেন, মৃত্যুর ঘটনাগুলো ‘রিভিউ’ করার কোনো প্রয়োজন নেই, চিকিৎসকদের কথাই যথেষ্ট। আপনি কি তাকে সমর্থন করেন?