সোমবার, ২৭ মে ,২০১৯

Bangla Version
  
SHARE

বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল, ২০১৯, ০২:০৬:৩৩

যে কোনো মূল্যে বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্ত করে নিয়ে আসতে হবে

যে কোনো মূল্যে বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্ত করে নিয়ে আসতে হবে

রাঙ্গামাটিঃ-বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার সুচিকিৎসা ও নিঃশর্ত মুক্তির দাবিতে রাঙ্গামাটি জেলা বিএনপি’র ও অঙ্গ-সহযোগি সংগঠনের আয়োজনে প্রতীকি অনশন কর্মসূচী পালন করা হয়েছে।
বৃহস্পতিবার (১৮ এপ্রিল) সকালে রাঙ্গামাটি জেলা বিএনপি’র দলীয় কার্যালয়ে ঘন্টাব্যাপী এ প্রতীকি অনশন কর্মসূচীতে বক্তব্য রাখেন, সাবেক পার্বত্য উপমন্ত্রী মনি স্বপন দেওয়ান, কেন্দ্রীয় বিএনপি’র উপজাতীয় বিষয়ক সম্পাদক কর্ণেল (অবঃ) মণিষ দেওয়ান, জেলা বিএনপির সভাপতি আলহাজ্ব মোঃ শাহ আলম, জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি হারুন অর রশিদ, সাধারণ সম্পাদক দীপন তালুকদার, সাংগঠনিক সম্পাদক সাইফুল ইসলাম পনির, সিনিয়র যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক মামুনুর রশীদ মামুন।
এসময় বক্তারা বলেন, কথিত বিচারের নামে সাজা দিয়ে বেগম খালেদা জিয়াকে কারাগারে পাঠানো সরকারের হীন সুদুর প্রসারী পরিকল্পনারই অংশ। বহুদলীয় গণতন্ত্রকে চিরদিনের জন্য বিদায় করে নির্বাচন পুনরায় একতরফাভাবে করতে একদলীয় দুঃশাসনকে চিরস্থায়ী করাই এদের মুল লক্ষ্য ও উদ্দেশ্যে ছিল। তাই তারা বেগম খালেদা জিয়াকে কারাগারে রেখে একতরফা ভাবে ভোট ডাকাতি করে আবারো ক্ষমতায় মসনদে আসিন হয়েছেন। তাই যে কোনো মূল্যে বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্ত করে নিয়ে আসতে হবে। সে জন্য আমাদের আন্দোলন আরো জোরদার করতে হবে।
বক্তারা আরো বলেন, আওয়ামীলীগ সরকার গায়ের জোরে ও সাজানো মামলায় প্রতিহিংসামূলক বিচারে বিএনপি চেয়ারপারসন ও তিন বারের সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে সাজা দিয়ে কারাবন্ধি করা হয়েছে। কারা একটি পাতানো-সাজানো নির্বাচনের মাধ্যমে দৃশ্যত বিজয়ী হলেও নৈতিকভাবে পরাজিত এই সরকার খালেদা জিয়ার জনপ্রিয়তাকেই ভয় পায়। তাঁকে রাজনৈতিকভাবে মোকাবিলা করতে ব্যর্থ হয়ে ষড়যন্ত্রমূলকভাবে হয়রানি করতে মিথ্যা মামলার মাধ্যমে কারারুদ্ধ করে রেখেছে। তাই বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার যদি কিছু হয় তা হলে পুরো পার্বত্য এলাকা অচল করে দেয়া হবে।
এসময় অন্যান্যদের মধ্যে আরো বক্তব্য রাখেন, যুগ্ন সম্পাদক  আলী বাবর, বাবুল আলী, নিজাম উদ্দিন, জেলা যুবদলের সভাপতি সাইফুল ইসলাম শাকিল, যুবদলের সাধারণ সম্পাদক আবু সাদাৎ মোহাম্মদ সায়েম, সাংগঠনিক সম্পাদক ইউছুপ চৌধুরী, জেলা মহিলা দলের আহবায়িকা মিনারা আশ্রাফ, জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি জাহাঙ্গীর আলম তালুকদার, সিনিয়র সহ সভাপতি জসিম উদ্দিন, সাধারণ সম্পাদক মাহাবুবুর রহমান মাহবুব, সিনিয়র যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক মোঃ মিজানুর রহমান মিজান, সাংগঠনিক সম্পাদক আবু নাসের, জেলা ছাত্রদলের সভাপতি ফারুক আহমেদ ছাব্বির, সাধারণ সম্পাদক আলী আকবর সুমন সহ প্রতীকি অনশনে  বিএনপি, যুবদল,  ছাত্রদল, স্বেচ্ছাসেকবদল,  শ্রমিকদল, কৃষকদল, তাতীদল ও অন্যান্য অঙ্গসংগঠনের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।
পরে বিএনপি’র নেতৃবৃন্দ দলীয় নেতাকর্মীদের পানি পান করিয়ে অনশন ভঙ্গ করান।

এই বিভাগের আরও খবর

এই বিভাগের আরও খবর

  কাঙ্খিত বৃষ্টিতে কাপ্তাই লেকে পানি বৃদ্ধি, বেড়েছে বিদ্যুৎ উৎপাদন

  ক্ষুধা, দারিদ্রমুক্ত ও উন্নয়নশীল দেশ রূপান্তরে সকলে নিষ্টা ও আন্তরিকতার সাথে কাজ করুন-বৃষ কেতু চাকমা

  দীর্ঘ বছর ধরে মানুষের প্রাণের দাবী চন্দ্রঘোনা ফেরিঘাট সংযোগ সেতু নির্মাণ কাজ অনুমোদন

  সরকার আক্রোসের বশবর্তী হয়ে বেগম খালেদা জিয়াকে কারাগারে আটক রেখে মেরে ফেলার ষড়যন্ত্র করছে-এ্যাডভোকেট দীপেন দেওয়ান

  সরকারের বার্ষিক বাজেট রাষ্ট্রের উন্নয়ন দর্শনের অবিচ্ছেদ্য পথনিদের্শক দলিল-অধ্যক্ষ প্রফেসর মঈন উদ্দিন

  অসাম্প্রদায়িক পার্বত্য অঞ্চল গড়ে তুলতে মারমা জাতি গোষ্ঠী কাজ করে চলেছে-অংসুই প্রু চৌধুরী

  আমাদের দেশের জন্য যেসব সুচক দরকার সেগুলো বাস্তবায়নের জন্য কাজ করে যেতে হবে-মোঃ এসএম শফি কামাল

  নানিয়ারচরে মিনি ট্রাক উল্টে একজন নিহত, আহত-১

  পার্বত্যাঞ্চলে সশস্ত্র সন্ত্রাসীদের অপকর্মকান্ড বন্ধ, অবৈধ অস্ত্র উদ্ধার ও সেনাক্যাম্প পূর্ণস্থাপনের দাবি

  আত্মনির্ভরশীল ও হতদরিদ্র মৎস্যজীবী মানুষের ন্যায্য অধিকার প্রতিষ্ঠায় কাজ করে যাচ্ছে আওয়ামী মৎস্যজীবীলীগ

  কাপ্তাইয়ে মহিলাদের অংশ গ্রহণে উঠান বৈঠক অনুষ্ঠিত

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

আজকের প্রশ্ন

ভোটের পর থেকে সংসদে না যাওয়ার ঘোষণা দিয়ে আসা মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, দলের নির্বাচিতদের শপথ নেওয়ায় সম্মতি দিয়ে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান সঠিক কাজটিই করেছেন। আপনি কি তার সঙ্গে একমত?