বৃহস্পতিবার, ২০ জুন ,২০১৯

Bangla Version
  
SHARE

মঙ্গলবার, ০৮ জানুয়ারী, ২০১৯, ০৭:৪৭:২৫

পার্বত্যবাসীর উন্নয়নে এক সাথে কাজ করার অঙ্গিকার নিয়ে ফুলেল শুভেচ্ছা জানালেন একজন আরেকজনকে

পার্বত্যবাসীর উন্নয়নে এক সাথে কাজ করার অঙ্গিকার নিয়ে ফুলেল শুভেচ্ছা জানালেন একজন আরেকজনকে

রাঙ্গামাটিঃ-পার্বত্য অঞ্চল থেকে দ্বিতীয় বারের মতো পার্বত্য বিষয়ক মন্ত্রনালয়ের পূর্ণমন্ত্রী পাওয়া পার্বত্যমন্ত্রী বীর বাহাদুর ঊশৈসিং এমপিকে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানালেন পাহাড়ের অবিসংবাদিত নেতা ও রাঙ্গামাটি সংসদ সদস্য দীপংকর তালুকদার ও খাগড়াছড়ির সংসদ সদস্য কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা।
সোমবার (৭ জানুয়ারী) বীর বাহাদুরের রাজনৈতিক গুরু হয়ে শীর্ষের বাড়ীতে ফুল নিয়ে গিয়ে শুভেচ্ছা জানাতে এতটুকুও দেরী করেনি পাহাড়ের অবিসংবাদিত নেতা দীপংকর তালুকদার।
তিন পার্বত্য জেলায় ১৯৯৬ সালের তিনটি আসনে নৌকার বিজয় হওয়ায় কল্পরঞ্জন চাকমাকে প্রথম পার্বত্য মন্ত্রীর দায়িত্ব দিয়েছিলেন শেখ হাসিনা। ২০১৮ সালে এসে আবারো পাহাড়ের নৌকার বিজয়ে দ্বিতীয় বারের মতো বান্দরবান জেলার বীর বাহাদুরকে পার্বত্যমন্ত্রী দিতে পিছপা হয়নি শেখ হাসিনা। সেই আনন্দে পাহাড়ের মানুষ আজ একাকার হয়ে আছে। পার্বত্য এই তিন জেলায় উন্নয়নের শিখরে পৌছে দিতে দীর্ঘদিন পর পার্বত্য প্রতিমন্ত্রী থেকে পার্বত্যমন্ত্রী পাওয়া খুশী সকলেই।
শুভেচ্ছা জানাতে গিয়ে কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা বলেন, পার্বত্য মানুষের ভাগ্য উন্নয়নে আজ আমরা পার্বত্য জেলার তিনটি আসন শেখ হাসিনাকে উপহার দিয়েছি। আমাদের বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা যাকে যোগ্য মনে করেছে তাকেই দায়িত্ব অর্পণ করেছে। আমরা সকলেই মিলে পার্বত্যবাসীর উন্নয়নে কাজ করবো।
এই বীর বাহাদুর পার্বত্যমন্ত্রীকে শুভেচ্ছা জানিতে ছুটে গিয়ে দীপংকর তালুকদার বলেন, পাহাড়ের উন্নয়নে আমরা সকলেই এক হয়ে কাজ করবো। তিনজনই শেখ হাসিনার আস্থার ভাজন, নেত্রী বীরের হাতে দায়িত্ব দিয়েছে এই আমি মনে করি একজন যোগ্য নেতার হাতেই দায়িত্ব দিয়েছে। যাকে আমি রাজনৈতিক মঞ্চে নিয়ে এসেছি আমাদের নেত্রী আজ তাকে একটি বড়ো দায়িত্ব দিয়েছে। এতে আমার চাইতে বেশি খুশি আর কে হতে পারে। আমরা এক সাথে থেকে পার্বত্য মানুষের উন্নয়নে কাজ করবো।
পার্বত্য মন্ত্রী বীর বাহাদুর ঊশৈসিং বলেন, আমি মনে করি পার্বত্য অঞ্চলের দায়িত্ব আমাদের তিন জনের। এই অঞ্চলের উন্নয়নে আমরা তিনজন এক সাথে মিলে মিশে কাজ করবো। আমার রাজনৈতিক গুরু আমাদের দাদা কাজ থেকে আমি অনেক কাজ শিখেছি। তিনি পাশে আছেন বলেই আমি আজ এতো দুর এগুতে পেরেছি। বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা আমাদের জননেত্রী আমাকে দায়িত্ব দিয়েছে ঠিকই কিন্তু এই দায়িত্ব একা পালন করতে পারবো না। এই দায়িত্ব পালন করতে আমার দুজন বড় ভাইকে আমার পাশে সব সময় থাকতে হবে। তিনি বলেন, আমরা তিনজনই মিলে পার্বত্য অঞ্চলের উন্নয়নে পাহাড়ের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করতে কাজ করবো।

এই বিভাগের আরও খবর

  ৬টি ক্যাটাগরিতে শ্রেষ্ঠত্বের পুরস্কার গ্রহন করলো কাপ্তাই নৌ বাহিনী স্কুল এন্ড কলেজ

  তামাকের বিষাক্ত গন্ধে ভয়াবহ রোগ দেখা দিচ্ছে-সুরেশ কুমার চাকমা

  রাঙ্গামাটির মানিকছড়িতে অজ্ঞাতনামা পাহাড়ি যুবকের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার

  সচেতনা ও যক্ষ্মা নিরোধমূলক বিভিন্ন কার্যক্রম গ্রহনের কারণে যক্ষ্মা রোগ অনেকাংশে কমে এসেছে-ডা. শহীদ তালুকদার

  কাপ্তাইয়ে উন্নত রাষ্ট্র ও জাতি গঠন বিষয়ে জনগনকে অবহিত ও সম্পৃক্তকরণ বিষয়ক আলোচনা ও চলচ্চিত্র প্রদর্শন

  অস্ত্র ও নগদ অর্থসহ বাঘাইছড়িতে জেএসএস ( মূল) দলের এক চাদাঁবাজ আটক

  শিক্ষক ও অভিভাবকদের সু সম্পর্কের মাধ্যমে সৃষ্টি করতে হবে শিক্ষার গুনগত পরিবেশ-বিধান চাকমা

  স্বাস্থ্য বিভাগের সংবাদ সম্মেলনঃ রাঙ্গামাটিতে ৭৯ হাজার শিশুকে ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল খাওয়ানোর হবে

  জুরাছড়িতে ভোটার তালিকা হালনাগাদ উপলক্ষে তথ্য সংগ্রহকারী-সুপাভাইজারদের দিনব্যাপী প্রশিক্ষণ

  পাহাড়ে উন্নয়নের আলো পৌছে দিতে সব রকম প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে সরকার-জ্ঞানেন্দু বিকাশ চাকমা

  পার্বত্যাঞ্চলে দক্ষ জনশক্তি গড়ার লক্ষ্যে সরকারের বিশেষ পরিকল্পনা রয়েছে-মোঃ আরিফ আহমদ

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

আজকের প্রশ্ন

ঈদের চাঁদ দেখা নিয়ে বিভ্রান্তির জন্য সরকারের সমালোচনা করে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, এটা সুশাসনের অভাবের ফল। আপনি কি তা মনে করেন?