বুধবার, ২৩ জানুয়ারী ,২০১৯

Bangla Version
SHARE

রবিবার, ১৬ ডিসেম্বর, ২০১৮, ০৮:৫৬:৫২

রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদের উদ্যেগে বীর মুক্তিযোদ্ধাদের সংবর্ধনা প্রদান

রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদের উদ্যেগে বীর মুক্তিযোদ্ধাদের সংবর্ধনা প্রদান

রাঙ্গামাটিঃ-রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বৃষ কেতু চাকমা বলেছেন, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের বলিষ্ঠ নেতৃত্বে দীর্ঘ ৯ মাসের বীরত্বপূর্ণ সংগ্রামের মাধ্যমে ১৯৭১ সালের মুক্তিযুদ্ধে অর্জন করে চূড়ান্ত বিজয়। তখন বঙ্গবন্ধুর ডাকে মুক্তিযোদ্ধারা যেভাবে বিজয় ছিনিয়ে এনেছিলো ঠিক সেভাবে এই বিজয় মাসের আসন্ন নির্বাচনে বঙ্গবন্ধুর প্রতীক নৌকাকে বিজয় করতে হবে। এ বিজয় হবে হবে আমাদের স্বাধীনতার স্বপক্ষের বিজয়।    
রবিবার (১৬ ডিসেম্বর) সকালে বিজয় দিবসে রাঙ্গামটি পার্বত্য জেলা পরিষদের আয়োজনে পরিষদ সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত রাঙ্গামাটির বীর মুক্তিযোদ্ধা এবং শহীদ মুক্তিযোদ্ধা পরিবারবর্গের সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে সভাপতির বক্তব্যে চেয়ারম্যান এসব কথা বলেন।
অনুষ্ঠানে রাঙ্গামাটি জেলা প্রশাসক এ কে এম মামুনুর রশিদ, পুলিশ সুপার আলমগীর কবীর, পার্বত্য চট্টগ্রাম আঞ্চলিক পরিষদ সদস্য মুক্তিযোদ্ধা হাজী মোঃ কামাল উদ্দিন, জেলা পরিষদ সদস্য মনোয়ারা আক্তার জাহান, রাঙ্গামাটি মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার রোবার্ট রোনাল্ড পিন্টু, রাঙ্গামাটি মুক্তিযোদ্ধা সংসদ (সদর) এর কমান্ডার মিজানুর রহমান, সাবেক ডেপুটি কমান্ডার ইকবাল হোসেন চৌধুরী বক্তব্য দেন। স্বাগত বক্তব্য দেন রাঙ্গাামটি পার্বত্য জেলা পরিষদের নির্বাহী প্রকৌশলী ক্যা হলা খই।
এ সময় রাঙ্গামাটি চেম্বার অব কমার্স এর সভাপতি বেলায়েত হোসেন বেলাল, রাঙ্গাামটি পার্বত্য জেলা পরিষদের হস্থান্তরিত বিভাগের বিভাগীয় কর্মকর্তা’সহ মুক্তিযোদ্ধা ও শহীদ মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।
অনুষ্ঠানে জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ যখন উন্নয়নের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে তখন স্বাধীনতা বিরোধীরা দেশের উন্নয়ন ব্যহৃত করতে উঠে পরে লেগেছে। তিনি কোন ষড়যন্ত্রকারী গোষ্ঠী যাতে দেশকে পিছিয়ে নিতে না পারে সে জন্য মুক্তিযোদ্ধা’সহ দেশপ্রিয় সাধারণ মানুষকে ঐক্যবদ্ধ থাকার আহ্বান জানান।
অনুষ্ঠানে জেলা প্রশাসক এ কে এম মামুনুর রশিদ বলেন, গত দশ বছরে উন্নয়নে দেশ অনেকদূর এগিয়ে গেছে। দেশের উন্নয়নে পারমানবিক বিদ্যূৎ কেন্দ্র, পদ্মা সেতু, মহাকাশে স্যাটালাইট উৎক্ষেপন’সহ বড় বড় মেগা প্রকল্প সরকার গ্রহণ করেছে। তিনি বলেন, বিশ্বের মাঝে এখন এ দেশ মাথা উচু করে দাড়িয়েছে। এগুলো একমাত্র সম্ভব হয়েছে সরকার মুক্তিযোদ্ধাদের কারনে। কারণ মুক্তিযোদ্ধারা দেশ স্বাধীন না করলে এসব হতোনা। তিনি বলেন, মুক্তিযোদ্ধাদের ত্যাগ আমাদের সবসময় মনে রাখতে হবে। তাই তাদের জন্য আমার কার্যালয় সবসময় খোলা থাকবে। মুক্তিযোদ্ধাদের সব ধরনের সহযোগিতা প্রদানের আশ্বাস দেন তিনি।
পরে তিনি মুক্তিযোদ্ধা ও শহীদ মুক্তিযোদ্ধা পরিবারবর্গের সদস্যদের বিজয় দিবসের শুভেচ্ছা জানান। তিনি রাঙ্গামাটির ৬জন শহীদ মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের প্রত্যেকের হাতে ২হাজার ৫শত, ৫৮জন বীর মুক্তিযোদ্ধা প্রত্যেককে ১হাজার এবং ২৯জন মৃত মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের সদস্যদের প্রত্যেককে ১হাজার টাকা করে সম্মাননা ভাতা প্রদান করেন।
এর আগে রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদের পক্ষ থেকে বিজয় দিবসের প্রথম প্রহরে মুক্তিযুদ্ধে শহীদদের স্মৃতির উদ্দ্যেশে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে পুস্পমাল্য অর্পন করে ও  শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়।

এই বিভাগের আরও খবর

  পার্বত্য অঞ্চলের মানুষের ভাগ্য পরিবর্তন করতে সকলকে আরো আন্তরিক হতে হবে-সচিব নূরুল আমিন

  ফিরোজা বেগম চিনুকে আবারো সংসদ সদস্য হিসাবে দেখতে চায় পাহাড়ের নারীরা

  পরিষদ চেয়ারম্যানের সঙ্গে বাংলাদেশে নিযুক্ত অস্ট্রেলিয়ান হাই কমিশনারের সৌজন্য সাক্ষাৎ

  সমাজ ও দেশের উন্নয়ন করতে হলে আদর্শিক ও নৈতিক শিক্ষায় শিক্ষিত হতে হবে-এ কে এম মামুনুর রশিদ

  কাপ্তাইয়ের কেপিএমে ৩ মাসের বকেয়া বেতনের দাবিতে এমডির অফিস ঘেরাও

  রাঙ্গামাটির আসামবস্তি থেকে জেএসএসের চাঁদা কালেক্টর অস্ত্রসহ আটক

  শেখ হাসিনা সুস্থতা কামনায় রাঙ্গামাটি রাজবন বিহারে ধর্মানুষ্ঠান করলেন এক বৃদ্ধা ও তার পরিবার

  কে হচ্ছেন এবার পাহাড়ের সংরক্ষিত নারী নেত্রী! চিনু-শান্তনা নাকি অন্য কেউ ?

  জীবনের ফ্রি ব্লাড গ্রুপিং কর্মসূচি খুবই মহতী উদ্যোগ ও সত্যি প্রশংসনীয়-এ কে এম মামুনুর রশিদ

  বরকলের দূর্গম গ্রামের মানুষের স্বেচ্ছাশ্রমে ১০ কিলোমিটার রাস্তা নির্মাণ

  প্রধানমন্ত্রীর স্বপ্ন ও উন্নতশীল দেশে রূপান্তরে সবাইকে নিরলসভাবে কাজ করতে হবে-বৃষ কেতু চাকমা

 

 

 

 

 

আজকের প্রশ্ন

বৈষম্য কমাতে নিম্ন আয়ের মানুষের জন্য পেনশন ব্যবস্থা চালুর পরামর্শ দিয়েছেন বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক গভর্নর আতিউর রহমান। এটা করা হলে বৈষম্য কমবে বলে মনে করেন?