রবিবার, ২৪ জুন ,২০১৮

Bangla Version
  
SHARE

সোমবার, ১৬ এপ্রিল, ২০১৮, ০৮:০০:৩৯

গভীর রাতে সাজেকে আগুনঃ তিনটি কটেজ পুড়ে ছাই

গভীর রাতে সাজেকে আগুনঃ তিনটি কটেজ পুড়ে ছাই

রাঙ্গাামাটিঃ-রাঙ্গামাটির সাজেকে রাত পৌনে দুইটার সময় রহস্যজনক অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটেছে। রোববার দিবাগত গভীর রাত পৌনে দুইটার সময় আকস্মিক আগুনের সূত্রপাত হয়। পানির তীব্র সংকট থাকা সাজেক ভ্যালীতে এই অগ্নিকান্ডে আগুলের লেলিহান শিখা প্রচন্ড বাতাসের কারনে মুহুর্তের মধ্যেই চারিপাশে ছড়িয়ে যায়।
স্থানীয়রা ও নিরাপত্তা সুত্রের তথ্যের ভিত্তিতে জানা যায়, আগুন লাগার সাথে সাথে প্রচন্ড পানি সংকটে থাকা অবস্থায় আগুন নেভানোর মতো কিছুই ছিলোনা। এছাড়া ঘটনাস্থলে বাতাসের তীব্রতা আগুন চারিপাশে ছড়িয়ে পড়ে। নিয়ন্ত্রণহীনভাবে আগুন দাউ দাউ করে জ্বলে সাজেক বিলাস, গরবা কটেজ ও কাচালং কটেজ নামে এই তিনটি কটেজ সম্পূর্ন পুড়ে ছাই হয়ে গেছে।
স্থানীয়রা জানিয়েছেন, কোনো প্রকার বিদ্যুতিক শর্ট সার্কিট দূর্ঘটনার সম্ভাবনাও সেখানে নাই। এছাড়া এতোটা গভীর রাতে সেখানে কোনো ধরনের রান্নার কাজও চলার কথা নয়? তাহলে আগুনটা লাগলো কিভাবে?? এমন প্রশ্ন এখন সাজেকের সকলের মুখে মুখে???

এই বিভাগের আরও খবর

  নির্বাচনকে সামনে রেখে পাহাড়ের অবৈধ অস্ত্রধারীরা ত্রাসের সৃষ্টি করছে

  লংগদুতে আওয়ামীলীগের ৬৯তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালন

  জনসেবায় নিযুক্ত হলে অঙ্গীকারবদ্ধতা ও দায়বদ্ধতা থাকতে হবে-ড. প্রদানেন্দু বিকাশ চাকমা

  সম্প্রতি প্রবল বর্ষনে শাহ হাই স্কুল ভবন ও অডিটরিয়ামের পিছনে ভাঙ্গন, প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা নেয়া জরুরী

  বলাকা ক্লাবের উদ্যোগে সৌখিন ফুটবল টুর্ণামেন্টঃ মংলা স্মৃতি চ্যাম্পিয়ন, পান্ডিয়া দল রানার্স আপ

  হাজারো মানুষের ভালোবাসা আর ফুলেল শ্রদ্ধায় ডাঃ নিহারেন্দু তালুকদারের দাহক্রিয়া সম্পন্ন

  পাহাড় ধ্বসের ঘটনায় মগবান, বালুখালী ও জীপতলীর ক্ষতিগ্রস্থ ঢেউটিন নগদ অর্থ বিতরণ

  খালেদা জিয়ার নিঃশ্বর্ত মুক্তির না দিলে পার্বত্য রাঙ্গামাটি থেকে বৃহত্তর আন্দোলন

  না ফেরার দেশে চলে গেলেন ডাঃ নিহারেন্দু তালুকদার

  যোগ ব্যায়ামের প্রসারের ফলে শারীরিক ও আত্মিক উন্নয়ন সম্ভব

  মাছ ধরা বন্ধকালীন সময়ে ৪০ কেজি করে চাল দেয়া না হলে হরতালসহ বৃহত্তর কর্মসূচী দেয়ার ঘোষণা

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

আজকের প্রশ্ন

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল বলেছেন, চলমান মাদকবিরোধী অভিযানে তথ্য-প্রমাণের ভিত্তিতে কাজ হচ্ছে, এখানে কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না। বাস্তবে তা ঘটবে বলে মনে করেন?