মঙ্গলবার, ২৩ জুলাই ,২০১৯

Bangla Version
  
SHARE

সোমবার, ২২ অক্টোবর, ২০১৮, ০৭:১৮:৩২

পার্বত্যঞ্চলে আলাদা রাষ্ট্র চিন্তাকারীদের স্বপ্ন কোন দিন পূরণ হবে না-জিওসি

পার্বত্যঞ্চলে আলাদা রাষ্ট্র চিন্তাকারীদের স্বপ্ন কোন দিন পূরণ হবে না-জিওসি

রাঙ্গামাটিঃ-পার্বত্যাঞ্চল নিয়ে আলাদা রাষ্ট্র চিন্তাকারীদের স্বপ্ন কোনদিন পূরণ হবে না বলে সাফ জানিয়ে দিয়েছেন ২৪ পদাতিক ডিভিশনের জেনারেল অফিসার কমান্ডিং ও চট্টগ্রাম এরিয়া কমান্ডার মেজর জেনারেল এস এম মতিউর রহমান। তিনি হুঁশিয়ারী উচ্চারণ করে বলেন, পার্বত্যাঞ্চল স্বাধীন বাংলাদেশের অংশ। এখানে আর কোন নতুন রাষ্ট হবে না। যারা রাষ্ট্রের স্বার্বভৌমত্বকে ক্ষীন চোখে দেখে পার্বত্যাঞ্চলকে ঘিরে স্বাধীন রাষ্ট্র গড়ার স্বপ্ন দেখে তাদেরকে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী চিরতরে ধূলিসাৎ করে দিবে।
সোমবার (২২ অক্টোবর) দুপুরে বিলাইছড়ি উপজেলায় দূর্গম পাংখোয়া পাড়া ট্রাইবাল ভিলেজ উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে চট্টগ্রাম ২৪ পদাতিক ডিভিশনের এরিয়া কমান্ডার (জিওসি) মেজর জেনারেল এসএম মতিউর রহমান প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।
বিলাইছড়ি উপজেলায় পাংখোয়া পাড়া ট্রাইবাল ভিলেজ উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিলাইছড়ি উপজেলার সাবেক চেয়ারম্যান ও ১২০ তিনকোনিয়া মৌজার হেডম্যান লাল ইং লিয়ানা পাংখোয়ার সভাপতিত্বে এসময়
রাঙ্গামাটি রিজিয়নের  রিজিয়ন কমান্ডার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল সৈয়দ রিয়াদ মেহমুদ, এএফডব্লিউসি, পিএসসি; বিলাইছড়ি জোনের জোন কমান্ডার লেঃ কর্ণেল শেখ আব্দুল্লাহ, পিএসসি; উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) আসিফ ইকবাল, উপজেলা চেয়ারম্যান মঙ্গল কুমার চাকমা, রাঙ্গামাটি জেলা পরিষদের সদস্য রেমলিয়ান পাংখোয়া, স্থানীয় পাংখোয়া সমাজের গণ্যমান্য ব্যক্তিসহ প্রশাসনের অন্যান্য উর্ধতন কর্মকর্তা এবং গণমাধ্যম কর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।
২৪ পদাতিক ডিভিশনের জেনারেল অফিসার কমান্ডিং ও চট্টগ্রাম এরিয়া কমান্ডার মেজর জেনারেল এস এম মতিউর রহমান আরও বলেন, ১৯৭৪ সাল থেকে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী পার্বত্যঞ্চলের উন্নয়নে কাজ করে যাচ্ছে। ১৯৯৭ সালে শান্তি চুক্তির পর সেনাবাহিনী নতুন করে পাহাড়ে শান্তি, সম্প্রতি এবং উন্নয়ন কার্যক্রম অব্যাহত রেখেছে এবং ধৈর্য্যরে পরিক্ষা দিচ্ছে।
মেজর জেনারেল মতিউর রহমান বলেন, পাহাড়ে ক্ষুদ্র নৃ গোষ্ঠীদের সর্বক্ষেত্রে উন্নয়নের ক্ষেত্রে সেনাবাহিনীর ভূমিকা রয়েছে। ১৯৯৭ সালে পাহাড়ে শান্তির জন্য একটি গোষ্ঠীর সাথে সরকারের পার্বত্য শান্তিচুক্তি স্বাক্ষরিত হয়। কিন্তু শান্তি চুক্তির পর থেকে একটি মহল বিরোধীতা করে পাহাড়ে শান্তির বদলে অশান্তি সুষ্টি করছে। তারা পার্বত্য অঞ্চলকে স্বাধীন রাষ্ট্র বানানোর নামে নানাভাবে সাধারণ পাহাড়ীদের বিভ্রান্ত করছে।
মেজর জেনারেল মতিউর রহমান আরো বলেন, চুক্তির পরবর্তী শান্তিচুক্তি বিরোধী একটি মহল পাহাড়ে আবারো অরাজকতা, খুন, গুম, হত্যা, চাঁদাবাজি, অস্ত্রবাজি করছে। যারা এসব অপকর্ম করে তারা মাত্র গুটিকয়েক স্বার্থন্বেষী ব্যক্তি। তিনি বলেন, পাহাড়ের সকল মানুষ শান্তি চাই। পাহাড়ের যে কোন সম্প্রদায়ের বিপদে সেনাবাহিনী ছুটে যাচ্ছে। রাঙ্গামাটিতে ভয়াবহ ভূমি ধ্বস তার একটি দৃষ্টান্ত উদাহরণ মাত্র। ভূমি ধ্বসের পর উদ্ধার কাজে অংশ নেওয়া সেনাবাহিনীর দুইজন অফিসারসহ তিন সৈনিক সে সময় নিহত হয়েছে। তাই পাহাড়ে সকল সম্প্রদায়ের বিপদ আপদের জন্য সেনা বাহিনী থাকবে এবং আছে।
বক্তব্যের প্রারম্ভে পাংখোয়া সমাজের সাংস্কৃতিক কর্মীরা তাদের সংস্কৃতির নাচ, গান পরিবেশন করে অতিথিদের মুগ্ধ করেন।
অনুষ্ঠান শেষে প্রধান অতিথি মেজর জেনারেল মতিউর রহমান পাংখোয়া সমাজের নানা সমস্যা দূরীকরণ ও পাংখোয়া জনগোষ্ঠীর কৃষ্টি সংস্কৃতি রক্ষার্থে সেনাবাহিনীর পক্ষ থেকে নগদ ৬লাখ টাকা সহায়তা প্রদান করেন। এসময় পাংখোয়া সমাজের পক্ষ থেকে অতিথিদেরকে ঐতিহ্যের উপহার প্রদান করেন।

এই বিভাগের আরও খবর

  জুরাছড়িতে ফলদ বৃক্ষমেলা ও বৃক্ষারোপনঃ পরিবেশ বিপর্যয় রোধে বৃক্ষরোপন

  লংগদুতে মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার সাইফুল ও ইউএনও প্রবীর কুমার সংবর্ধিত

  কাপ্তাইয়ে বাংলাদেশ স্কাউটসের শাপলা কাব এওয়ার্ড পরীক্ষা অনুষ্ঠিত

  লংগদুতে দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গের দায়ে উপজেলা আওয়ামীলীগের ৩জন সাময়িক বহিস্কার

  সশস্ত্র সন্ত্রাসীরা পাহাড়ে বনায়নে বাধাগ্রস্ত করছে-সংসদ সদস্য দীপংকর তালুকদার

  আন্দোলনে পৌর কর্মকর্তা-কর্মচারীঃ রাঙ্গামাটি শহরে আবর্জনার স্তুপ, দুর্গন্ধে নাকাল পৌরবাসী

  বরকলে বিজিবির উদ্যোগে বিভিন্ন মালামাল সামগ্রি ও নগদ অর্থ বিতরন

  প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনায় বাঘাইছড়িতে মুনিরিয়া তবলীগ কমিঠির মানবন্ধনঃ রাউজান জুড়ে বর্বরতা বন্ধের দাবী

  কাপ্তাইয়ে দুর্গত জনগণের মাঝে ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিবের ত্রাণ বিতরণ

  কাপ্তাই লেকে রুলকার্ভের চেয়ে ২০ ফুট পানি বেশিঃ ১৬টি স্পিল দিয়ে দেড় ফুট হারে পানি ছাড়া হচ্ছে

  লংগদুতে তিনদিন ব্যাপী ফলদ মেলা উদ্বোধন

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

আজকের প্রশ্ন

এলডিপি সভাপতি অলি আহমদ বলেছেন, বাংলাদেশে এখন টাকা থাকলে সব রকম অন্যায় করে পার পাওয়া যায়। আপনি কি তা ঠিক মনে করেন?