বুধবার, ২৩ মে ,২০১৮

Bangla Version
SHARE

বৃহস্পতিবার, ১৮ জানুয়ারী, ২০১৮, ০৭:১৮:০৬

পার্বত্য চট্টগ্রামের সীমান্ত প্রহরায় বর্ডার রোড নির্মাণে কাজ শুরু করেছে বিজিবি-মোহাম্মদ পাভেল আকরাম

পার্বত্য চট্টগ্রামের সীমান্ত প্রহরায় বর্ডার রোড নির্মাণে কাজ শুরু করেছে বিজিবি-মোহাম্মদ পাভেল আকরাম

মিল্টন বাহাদুর, রাঙ্গামাটিঃ-পার্বত্য চট্টগ্রামের সীমান্ত প্রহরায় বর্ডার রোড নির্মাণে কাজ শুরু হয়েছে। পাশাপাশি পার্বত্য অঞ্চলের সীমান্ত প্রহরায় নতুন বিওপি পোষ্ট স্থাপন করে অত্যাধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহারের মাধ্যমে সীমান্ত ব্যবস্থাপনা কার্যক্রম হাতে নিয়েছে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ-বিজিবি।
বৃহস্পতিবার (১৮ জানুয়ারী) রাঙ্গামাটির কাপ্তাইয়ের কর্ণফুলী পানি বিদ্যুৎ কেন্দ্রের সম্মেলন কক্ষে বিজিবির আয়োজিত এক সেমিনারে এ তথ্য জানানো হয়।
সেমিনারে রাঙ্গামাটি সেক্টর কমান্ডার কর্ণেল মোহাম্মদ পাভেল আকরাম, ১৯ বিজিবি অধিনায়ক লেঃ কর্ণেল মোহাম্মদ শহিদুল ইসলাম, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের কম্পিউটার সাইন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং এর চেয়ারম্যান ড. শামসুল আরেফিন, চট্টগ্রাম প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় চুয়েটের কম্পিউটার সাইন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং এর চেয়ারম্যান ড. মোহাম্মদ অসিউর রহমান ও রাঙ্গামাটি বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের কম্পিউটার সাইন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং এর চেয়ারম্যান মোহাম্মদ জুয়েল শিকদার বক্তব্য রাখেন।
রাঙ্গামাটি সেক্টর কমান্ডার কর্ণেল মোহাম্মদ পাভেল আকরাম বলেন, গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার যে দিকনিদের্শনা সেই নির্দেশনা বাস্তবায়নের পুরোদমে চলছে। দেশের বিভিন্ন প্রান্তে বিজিবি তার যে বর্ডার আউট পোষ্ট সেগুলো যেমন স্থাপন করা হয়েছে তার সাথে আধুনিক প্রযুক্তির ব্যবহারকে সমন্নিত ভাবে বর্ডারকে ব্যবস্থাপনা করার চেষ্টা করে যাচ্ছে।
তিনি আরো বলেন, পার্বত্য চট্টগ্রামে দূর্গম পাহাড়ী এলাকা এখানে এক জায়গা থেকে আরেক জায়গা যাওয়াটা একটু সময় সাপেক্ষ। এই জন্য আমরা বিজিবি সদর দপ্তরের যে দিকনিদের্শনা আসে সেই দিক নিদের্শনা মোতাবেক বিভিন্ন ধরণের সেন্সর হয়তো বা ক্যামেরা সেন্সরের মধ্যে ড্রোন বা অন্যান্য যে সকল আধুনিক প্রযুক্তি আছে সেইগুলোকে আমরা পার্বত্য অঞ্চলেও ব্যবহারের চেষ্টা আমরা করে যাচ্ছি। তবে এখানে নিরবিচ্ছিন্ন পাওয়ারের ব্যবস্থা করাটা একটু সময়ের ব্যাপার। ইতিমধ্যে আমরা জেনারেটরের মাধ্যমে বা সোলারের মাধ্যমে এই কাজকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করছি। এছাড়াও এই বছর ফেব্রুয়ারী মাস থেকে মার্চ মাসের মধ্যে আমরা নতুন বেশকিছু বিওপি দখল করেছি। এই বিওপি’র মাধ্যমে সীমান্তকে আমরা শাক্তিশালী করেছি। গত একবছরে বিশেষ করে রাঙ্গামাটিতে সেক্টর কমান্ডার হিসেবে আরো ৫টি নতুন বিওপি স্থাপনের জন্য প্রস্তাবনা তৈরী করেছি। এই ব্যাপারে মাঠ পর্যায়ে অধিনায়ক যারা আছেন সর্বস্তরের সৈনিকবৃন্দ আছে তারাও ভালভাবে কাজ করে যাচ্ছে। আমি পাহাড়ী-বাঙ্গালী সকলের এই ব্যাপারে সহযোগিতা পাচ্ছি, স্থানীয় প্রশাসন ও অন্যান্য গন্যমান্য যারা আছেন বিভিন্ন সময়ে সহযোগিতা চেয়েছি এবং সহযোগিতা পাচ্ছি।
তিনি আরো বলেন, এই সীমান্তকে সুরক্ষিত করার ব্যাপারে শুধুমাত্র বিজিবি নয়, শুধুমাত্র আধুনিক প্রযুক্তি নয়, দেশের মানুষকে যে সম্পৃক্ত করে বর্ডারকে নিছিদ্র করা যায় সেই প্রচেষ্টায় আমরা কাজ করে যাচ্ছি এবং আমাদের এই কাজের জন্য সকলের সহযোগিতা চায় এবং আমি বিশ্বাস করি সকলের সহযোগিতায় এই কাজ আমরা সুন্দর ভাবে সম্পন্ন করতে পারবো বলে আশ্বাস প্রদান করেন।
সেমিনারে বক্তারা পার্বত্য অঞ্চলসহ দেশের সীমান্ত প্রহরায় বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ-বিজিবিকে আধুনিক প্রযুক্তির যন্ত্রপাতি ব্যবহারের মাধ্যমে সীমান্ত নিরাপত্তা শক্তিশালী করণে স্মার্ট ফেন্সিং ও ড্রোনের ব্যবহার বাড়ানোর উপর গুরুত্বারোপ করেন।

এই বিভাগের আরও খবর

  সন্তানরা যাতে বিপথগামী হতে না পারে তার জন্য পারিবারিক বন্ধন দৃঢ় করতে হবে-মোহাম্মদ পাভেল আকরাম

  বাঙ্গালহালিয়াতে ৬ লক্ষ টাকার সেগুন কাঠ আটক

  বাঙ্গালহালিয়া বাজারে ভেজাল বিরোধী অভিযানঃ ১৫ হাজার টাকা জরিমানা

  ভবিষ্যতে আইসিটি প্রকল্পটিকে আরো আধুনিক করে গড়ে তুলতে বোর্ডের পরিকল্পনা রয়েছে-তরুন কান্তি ঘোষ

  সীতাকুন্ডে ত্রিপুরা কিশোরী হত্যারীদের শাস্তির দাবীতে রাঙ্গামাটিতে ত্রিপুরা স্টুডেন্ট ফোরামের মানববন্ধন

  কাপ্তাইয়ে দিনভর ভারি বৃষ্টিতে উপজেলা সদরের সড়কে হাঁটু পানি

  চুক্তিকে নৎসাতের ষড়যন্ত্র হিসেবে পাহাড়ে আবারও রক্তে হলি খেলা শুরু হয়েছে-উষাতন তালুকদার এমপি

  ঋণ যথাযথ কাজে ব্যবহার না করে বেকারত্ব জীবনে মুখ থুপরে পরছে-উদয় জয় চাকমা

  সমন্বয় না থাকলে এলাকার উন্নয়ন সম্ভব নয়-বৃষ কেতু চাকমা

  বর্তমান সরকার শিক্ষার মানোন্নয়নে কাজ করে যাচ্ছে-বৃষ কেতু চাকমা

  অবৈধ মাছ শিকারীদের বিরুদ্ধে সামাজিক ও আইনের মাধ্যমে ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে-মোঃ রইসুল আলম মন্ডল

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

আজকের প্রশ্ন

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, বাংলাদেশের ক্ষমতায় কে আসবে তা এ দেশের জনগণই নির্ধারণ করবে, এ বিষয়ে ভারতের ইন্টারফেয়ার করার কিছু নেই। আপনি কি তার সঙ্গে একমত?