বুধবার, ১৮ জুলাই ,২০১৮

Bangla Version
SHARE

বৃহস্পতিবার, ০৭ ডিসেম্বর, ২০১৭, ০৫:৪১:২৭

আওয়ামী লীগের ডাকা হরতালে কাপ্তাই ছিল অচল

আওয়ামী লীগের ডাকা হরতালে কাপ্তাই ছিল অচল

কাজী মোশাররফ হোসেন, কাপ্তাইঃ-বৃহস্পতিবার (৭ ডিসেম্বর) আওয়ামী লীগের ডাকা হরতালে সমগ্র কাপ্তাই উপজেলা অচল হয়ে পড়ে। সকাল ৬টা থেকে যুবলীগের নেতা কর্মীরা কাপ্তাই সড়কের বিভিন্ন স্থানে বসে পিকেটিং করেন। যুবলীগ ছাড়াও আওয়ামী লীগ, ছাত্রলীগ, কৃষক লীগ এবং মহিলা আওয়ামী লীগের নেতা কর্মীরাও পিকেটিংয়ে অংশ নেন। হরতালের কারণে কাপ্তাই সড়কে বাস, ট্রাক, প্রাইভেট গাড়ি, অটোরিক্সা এমনকি মোটর সাইকেল পর্যন্ত রাস্তায় চলাচল করতে পারেনি। কাপ্তাই উপজেলা সদর বরইছড়ি, শীলছড়ি, কাপ্তাই লগগেইটসহ বিভিন্ন স্থানে নেতা কর্মীদের পিকেটিং করতে দেখা গেছে। কোথাও কোথাও রাস্তার উপর টায়ার জ্বেলে পিকেটিং করা হয়। কাপ্তাই উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অংসুইছাইন চৌধুরী, সাধারন সম্পাদক থোয়াইচিং মারমা, যুবলীগের সাধারন সম্পাদক তানভীর আহমেদ, ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদক এ আর লিমন, আওয়ামী লীগ নেতা দিপ্তী তালুকদার, অমলেশ, মাহবুবসহ বিপুল সংখ্যক নেতা কর্মীকে রাস্তার উপর দাঁড়িয়ে থেকে হরতালের সমর্থনে পিকেটিং করতে দেখা গেছে। যানবাহন চলাচল বন্ধ থাকায় সাধারন লোকজনকে চরম দূর্ভোগ পোহাতে হয়।

এই বিভাগের আরও খবর

  কাপ্তাইয়ে জাতীয় ফল প্রদর্শনী উদ্বোধন

  রাঙ্গামাটির ঘিলাছড়ি থেকে অস্ত্রসহ ২ সন্ত্রাসী আটক

  বিনা উদ্ভাবিত প্রযুক্তিসমুহের সম্প্রসারণ কৌশল পদ্ধতি বিষয়ে কাপ্তাইয়ে দিনব্যাপী কর্মশালা

  যুবদল কেন্দ্রীয় সম্পাদক ও সাংগঠনিক সম্পাদক গ্রেফতারের প্রতিবাদে রাঙ্গামাটি বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ

  রাঙ্গামাটি শহরের শাপলা হোটেলে অভিযানঃ ২ মাদক সেবীকে ১ মাসের কারাদন্ড

  রাঙ্গামাটির সুবলং ড্রিংকিং ওয়াটার কারখানা বন্ধ করে দিয়েছে মোবাইল কোর্ট

  যেখানে সন্ত্রাসীদের কর্মকান্ড থাকবে, সেখানে সেনাবাহিনী থাকবে-লেঃ কর্ণেল আঃ আলীম

  দেশবরেণ্য চিত্রশিল্পীদের নিয়ে রাঙ্গামাটিতে সপ্তাহ ব্যাপী আর্ট ক্যাম্প শুরু

  রাঙ্গামাটি ও খাগড়াছড়িতে রথযাত্রা উৎসব

  পার্বত্য অঞ্চলকে অর্থনৈতিক জোন করতে সরকারের উচ্চ পর্যায়ের পরিকল্পনা রয়েছে-সৌরেন্দ্র নাথ চক্রবর্তী

  রাঙ্গামাটি ও বান্দরবানে অস্ত্রসহ আটক-২

 

 

 

 

 

 

 

আজকের প্রশ্ন

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল বলেছেন, চলমান মাদকবিরোধী অভিযানে তথ্য-প্রমাণের ভিত্তিতে কাজ হচ্ছে, এখানে কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না। বাস্তবে তা ঘটবে বলে মনে করেন?