মঙ্গলবার, ২৩ অক্টোবর ,২০১৮

Bangla Version
SHARE

রবিবার, ১২ নভেম্বর, ২০১৭, ০৭:৩০:৩২

বকেয়া বেতন ও মঞ্জুরী কমিশনের দাবিতে কর্ণফূলী পেপার মিলে শ্রমিকদের বিক্ষোভ

বকেয়া বেতন ও মঞ্জুরী কমিশনের দাবিতে কর্ণফূলী পেপার মিলে শ্রমিকদের বিক্ষোভ

রাঙ্গামাটিঃ-কেপিএম এ কর্মরত শ্রমিকরা চলতি বছরের আগামী ডিসেম্বর মাসের মধ্যেই তাদের মঞ্জুরি কমিশন বাস্তবায়নসহ অন্তত ৫শতাধিক শ্রমিক কর্মচারির পাওনা বকেয়া বেতনভাতাদি পরিশোধের দাবিতে রোববার (১২ নভেম্বর) কেপিএম এর এক নাম্বার গেইট সম্মুখে  বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করে।
সমাবেশে শ্রমিক কর্মচারী পরিষদ সিবিএ সভাপতি আব্দুর রাজ্জাকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত শ্রমিক সভায় বক্তব্য রাখেন, শ্রমিক নেতা আবুল বশর, মোঃ শামসুল আলম, মোঃ বেলাল হোসেন, কার্য্যকরী সভাপতি সায়দুল হক, সিবিএ সাধারণ সম্পাদক মাকসুদুর রহমান মুক্তার প্রমূখ।
সমাবেশে বক্তারা বলেন, ২০১৫ সালের জুলাই থেকে পে-স্কেল বাস্তবায়িত হলেও একই প্রতিষ্ঠানে একই সাথে চাকরী করেও শ্রমিকরা আজ চরম বৈষম্যর শিকার হচ্ছে। গত প্রায় ২ বছরেও শ্রমিকদের মজুরী স্কেল বাস্তবায়ন করা হয়নি। বর্তমান দ্রব্যমূল্যের উর্দ্ধগতির বাজারে শ্রমিকরা মারাত্মক অর্থ কষ্ট নিয়ে মানবেতর জীবন যাপন করছে।
তারা বলেন, এই মিলে কর্মরত অন্তত ৫শতাধিক শ্রমিক বিগত চারমাস ধরে কোনো বেতন-ভাতা পাচ্ছেনা। কর্তৃপক্ষের চরম অবহেলার শিকার হওয়া এই ৫শ শ্রমিক পরিবার-পরিজন নিয়ে বর্তমানে চরম কষ্টে দিনযাপন করছে। দায়-দেনাভারে জর্জরিত এ কারখানার শ্রমিক-কর্মচারীদের বেতন-ভাতা দীর্ঘদিন বকেয়া পড়ে আছে। চরম দুঃখ-কষ্টে জীবনযাপন করছে হাজারো পরিবার।
এসব বৈষম্য দূর করতে দেশের বর্তমান প্রধানমন্ত্রীর নিকট সমাবেশ থেকে তারা অনুরোধ জানান। এছাড়া গত চার মাস ধরে মিলের কর্মকর্তা কর্মচারীদের এবং তিন মাস ধরে শ্রমিকদের বেতন ভাতা বকেয়া থাকায় পরিবার পরিজন নিয়ে কর্মরত শ্রমিক, কর্মচারী ও কর্মকর্তাদের নাভিশ্বাস উঠেছে।
এছাড়া কেপিএমে কর্মরত শ্রমিকদের জন্যে সরকারি নির্দেশনা সত্বেও বাস্তবায়ন করা হচ্ছেনা মঞ্জুরি কমিশন। বক্তারা অবিলম্বে শ্রমিকদের বকেয়া বেতনভাতাদি পরিশোধ করাসহ আগামী ডিসেম্বর মাসের মধ্যেই মঞ্জুরি কমিশন বাস্তবায়নের দাবি জানিয়েছেন শ্রমিক নেতৃবৃন্দ।
শ্রমিক নেতারা জানান, নির্দিষ্ট্য সময়ের পরেও অতিরিক্ত কয়েকঘন্টা এমনকি রাত দশটা পর্যন্ত কাজ করেও শ্রমিকরা পাননা কোনো মুজুরি। তারপরও তারা কাজ করে যাচ্ছেন বঙ্গবন্ধু স্মৃতিবিজরিত এই মিলটি রক্ষায়। কিন্তু বর্তমান কর্তৃপক্ষ কোনো সুনির্দিষ্ট্য কারন ছাড়াই সিবিএ নেতাদের বিরুদ্ধে বিষোদগার করাসহ শ্রমিকদের পাশে সব সময় থাকে এরকম দুই শ্রমিকনেতাকে বহিস্কার করে শ্রমিকদের উপর ষ্ট্রিম রোলার চালাচ্ছে। কর্তৃপক্ষের এহেন নির্মম আচরনের শিকার শ্রমিকরা একত্রিত হয়ে রোববারের আন্দোলন কর্মসূচীর ডাক দেয়। তারা জানান, আমাদের দাবি মানা না হলে কঠোর কর্মসূচির পাশাপাশি আইনি লড়াইয়ে যাবে কেপিএম এর নির্যাতিত শ্রমিকরা।
সমাবেশ শেষে এক বিক্ষোভ মিছিল মিলের প্রধান ফটক থেকে জিএম রোড এলাকায় এসে সমাপ্ত হয়।

এই বিভাগের আরও খবর

  রাঙ্গামাটিতে পালিত হলো জাতীয় নিরাপদ সড়ক দিবস উপলক্ষে বর্ণাঢ্য র‌্যালী ও আলোচনা সভা

  লংগদুতে জাতীয় নিরাপদ সড়ক দিবস উপলক্ষে শোভাযাত্রা

  পার্বত্যঞ্চলে আলাদা রাষ্ট্র চিন্তাকারীদের স্বপ্ন কোন দিন পূরণ হবে না-জিওসি

  রাঙ্গামাটিতে ট্রাক ভর্তি অবৈধ কাঠসহ দুইজনকে আটক করেছে যৌথবাহিনী

  বরকলের ১৮টি বৌদ্ধ বিহারে রাঙ্গামাটি জেলা পরিষদের আর্থিক সহায়তা প্রদান

  রাঙ্গামাটি সরকারি কলেজে মোবাইল ফোন ব্যবহার নিষিদ্ধ করা প্রয়োজন-বিধান চন্দ্র বড়ুয়া

  রাঙ্গামাটির ভেদভেদীতে ভ্রাম্যমান আদালতঃ বনলতা বেকারীকে ৫ হাজার ও ১৫ দিনের কারাদন্ড

  রাজবন বিহারে ৪৫তম কঠিন চীবর দান উদযাপনে রাঙ্গামাটি জেলা পরিষদের প্রস্তুতিমূলক সভা

  সরকার ক্ষমতায় থেকে আগামী নির্বাচনের নীল নকশা তৈরী করতে যাচ্ছে

  বিলাইছড়ির কুতুবদিয়ায় পানীয় জলের তীব্র সংকট

  কেন্দ্রীয় বিএনপির নেতা দীপেন দেওয়ানের তৃণমূল পর্যায়ে সভা সমাবেশ

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

আজকের প্রশ্ন

তথ্য প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম বলেছেন, গুজব সনাক্তকরণে যে সেল করা হয়েছে, তা সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে মতপ্রকাশ নিয়ন্ত্রণ বা সোশ্যাল মিডিয়া পুলিশিং করবে না। আপনি কি এতে আশ্বস্ত?